চাঁদপুর, মঙ্গলবার, ৪ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯, ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪  |   ২৮ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   নদীতে যৌথ অভিযান হবে এবং যথাযথ শক্তভাবে হবে : জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান
  •   শেখ ফরিদ আহমেদ মানিকের সুস্থতা কামনায় মসজিদে দোয়া
  •   হাসপাতাল হলো ময়লার ভাগাড়
  •   মায়ের বুকে শিশুর মৃত্যু?
  •   পানিতে ডুবে ৫ম শ্রেণীর ছাত্রের মৃত্যু

প্রকাশ : ১১ আগস্ট ২০২২, ০০:০০

গণঅধিকার পরিষদের বিক্ষোভ সমাবেশ
অনলাইন ডেস্ক

গণঅধিকার পরিষদ চাঁদপুর জেলা শাখার আয়োজনে জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৮ আগস্ট সোমবার বিকেলে চাঁদপুর শহরের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশকে কেন্দ্র করে দুপুর থেকেই গণঅধিকার পরিষদ, যুব অধিকার পরিষদ, ছাত্র অধিকার পরিষদ ও শ্রমিক অধিকার পরিষদসহ সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে সমাবেশ স্থলে যোগ দেয়। তবে বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে মিছিল বের করতে চাইলে পুলিশের বাধায় তা প- হয়ে যায়।

গণঅধিকার পরিষদ চাঁদপুর জেলা শাখার সমন্বয়ক খান মুহাম্মদ নিয়াজ মোর্শেদের সভাপতিত্বে ও আশরাফুজ্জামান কাজী রাসেলের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন জেলা যুব অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক সালমান ফার্সী, যুগ্ম আহ্বায়ক উমর সালমান, নেয়ামত উল্যাহ, ছাত্র অধিকার কেন্দ্রীয় পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান, জেলা ছাত্র অধিকার পরিষদের সভাপতি সামিউল প্রধান, সাধারণ সম্পাদক জিএম মানিক, সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুন্নবী আহমেদ, ছাত্র অধিকার পরিষদের নেতা শাওন, নাহিয়ান আহাদ, মাহমুদুল হাসান জীবন, শ্রমিক অধিকার পরিষদ চাঁদপুর জেলা শাখার আহ্বায়ক ফারুক হোসেন, সদস্য সচিব মাইনুদ্দিন রাজু প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, জ্বালানি তেলের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি এবং অসহনীয় লোডশেডিংয়ের ফলে বাংলাদেশের মানুষের জীবনে নেমে এসেছে নিদারুণ কষ্ট। বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ক্ষুদ্র শিল্প। উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে। বিদেশে অর্থপাচার, দুর্নীতি-লুটপাটের সাথে যখন সরকার কুলিয়ে উঠতে পারছে না, তখন বৈশ্বিক অর্থনীতির দোহাই দিয়ে সরকার পার পাওয়ার চেষ্টা করছে। জ্বালানি তেলের মূল্য বাড়িয়ে অর্থনৈতিক সংকট মোকাবেলা করার চেষ্টা করা হচ্ছে। দেশের সকল সংকটের আঘাত এসে পড়ছে নিম্ন আয়ের মেহনতি মানুষের উপর।

বক্তারা বলেন, এই দেশে এখন আর জনগণের ভোটাধিকার নাই। সরকার গরিবের স্বার্থ না দেখে পুঁজিবাদ ও সিন্ডিকেটের স্বার্থে কাজ করছে। অন্যদিকে লুটপাট ও দুর্নীতি বন্ধ করতে সরকার ব্যর্থ। এ কারণেই অর্থনৈতিক সঙ্কট আরো ঘনীভূত হচ্ছে। সরকার নিজেই পতনের দিকে যাচ্ছে। এ সঙ্কট থেকে উত্তরণের জন্য সরকারকে আস্থা তৈরি করতে হবে। আস্থা অর্জনে পূর্ব শর্ত হচ্ছে জনপ্রতিনিধিত্বমূলক অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন।

বক্তারা আরো বলেন, বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে নির্দলীয় সরকার ব্যতীত সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। তাই সরকারের প্রতি আহ্বান থাকবে, জাতিকে মুক্তি দিন, জনগণের কষ্ট বুঝুন। স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতামূলক ব্যবস্থা তৈরি করুন।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়