চাঁদপুর, রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪  |   ২১ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   লঞ্চ ধর্মঘটে বিপাকে যাত্রী সাধারণ
  •   মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা-২০২২ কমিটিতে সংশোধনী আকারে অন্তর্ভুক্ত হলেন যারা
  •   কচুয়ায় গাঁজাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক
  •   শেখ ফরিদ আহমেদ মানিকের নেতৃত্বে চাঁদপুর জেলা বিএনপির কুমিল্লায় সমাবেশে যোগদান
  •   মতলব উত্তরে আবারও সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩

প্রকাশ : ২৪ নভেম্বর ২০২২, ০০:০০

সম্মেলনে দলের ত্যাগী, পরীক্ষিত সৎ ও সাবেক ছাত্র নেতারা নেতৃত্বে আসুক
স্টাফ রিপোর্টার ॥

শাহরাস্তি উপজেলার রাজনীতিতে আলোচিত নাম কামরুজ্জামান মিন্টু। আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক নেতা-কর্মীদের আস্থা অর্জন করে নিজেকে তুলে ধরেছেন বারবার। কামরুজ্জামান মিন্টুর মূল শক্তি তার দক্ষ কর্মীবাহিনী। নিজ উদ্যোগে দলের যে কোনো কর্মসূচি বাস্তবায়নে তার বিকল্প নেই। আসন্ন শাহরাস্তি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে প্রার্থী হয়েছেন তিনি। বর্তমানে তিনি এ পদে দায়িত্ব পালন করছেন। উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি কামরুজ্জামান মিন্টু রাজনৈতিক দলের পদণ্ডপদবী ছাড়াও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি বলেন, শাহরাস্তি উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে সৎ, ত্যাগী, পরীক্ষিত এবং সাবেক ছাত্রনেতাদের নেতৃত্ব প্রত্যাশা করছি। তিনি ২০১৩ সালে শাহরাস্তি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে শেখ হাসিনার একজন কর্মী হিসেবে দলের সকল নির্দেশনা সফলতার সাথে পালন করে আসছেন। শাহরাস্তি উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়ে ৮ মাস দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

জনাব কামরুজ্জামান মিন্টু দৈনিক চাঁদপুর কণ্ঠে আওয়ামী লীগের সম্মেলন নিয়ে ভাবনায় উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। প্রশ্নোত্তর আকারে তার পূর্ণাঙ্গ ভাবনাটি নিচে তুলে ধরা হলো :-

চাঁদপুর কণ্ঠ : আগামী ১০ ডিসেম্বর চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন এবং তার পূর্বে বিভিন্ন উপজেলা ও পৌর ইউনিটের সম্মেলন। আপনার প্রতিক্রিয়া কী?

মোঃ কামরুজ্জামান মিন্টু : সম্মেলন সামনে রেখে নেতা-কর্মীদের মাঝে উৎসাহ-উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়েছে। আসন্ন সম্মেলনকে কেন্দ্র করে ওয়ার্ড, ইউনিয়ন, পৌরসভার ওয়ার্ডগুলোর সম্মেলন সফলতার সাথে সম্পন্ন করেছি। আগামী ২৮ নভেম্বর কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের আগমনে শাহরাস্তি উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন সফলতার সাথে সম্পন্ন করার সকল প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। একঝাঁক সাবেক ছাত্রনেতা নিয়ে আমি দলের জন্যে কাজ করে যাচ্ছি। উক্ত সম্মেলনে আমি পুনরায় সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী। আমি মনে প্রাণে বিশ্বাস করি, আমার অতীত কর্মকাণ্ড মূল্যায়ন করে কাউন্সিলরগণ আমাকে বিশাল ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী করবে।

চাঁদপুর কণ্ঠ : আপনি সম্মেলনের মাধ্যমে কেমন নেতৃত্ব প্রত্যাশা করেন?

মোঃ কামরুজ্জামান মিন্টু : দলের ত্যাগী, পরীক্ষিত, সৎ এবং সাবেক ছাত্রনেতাদের নেতৃত্ব প্রত্যাশা করছি।

চাঁদপুর কণ্ঠ : আপনি নিজে কি কোনো পদপ্রার্থী?

মোঃ কামরুজ্জামান মিন্টু : আগেই বলেছি, আমি শাহরাস্তি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী। আমি বিগত দিনে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেছি। এ সম্মেলনে কাউন্সিলরগণ আমাকেই নির্বাচিত করবেন- এটাই আমার প্রত্যাশা।

চাঁদপুর কণ্ঠ : দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, জ্বালানি তেলের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি, বিদ্যুৎ-গ্যাস সঙ্কট, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিসহ আরো কিছু কারণে বিএনপির যে ধারাবাহিক আন্দোলন, তাতে আপনারা কতোটুকু উদ্বিগ্ন?

মোঃ কামরুজ্জামান মিন্টু : আমি এ বিষয়ে মোটেও উদ্বিগ্ন নই। আমাদের প্রাণপ্রিয় নেত্রী শেখ হাসিনা সবসময়ই শান্তিপূর্ণভাবে বিরোধী দলের কর্মসূচিকে মেনে নেয়ার পক্ষে। শেখ হাসিনার একজন একনিষ্ঠ কর্মী হিসেবে আমার নেত্রীর সাথে আমিও একমত। বিরোধী দল যদি অহেতুক ইস্যু নিয়ে কোনো নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে চায় তাহলে আমি শক্ত হাতে প্রতিহত করার জন্যে প্রস্তুত রয়েছি। ১৯৮০-৯০ দশকে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হিসেবে রাজপথ আমাদের দখলে ছিলো। সুতরাং বিরোধী দলের রক্তচক্ষু দেখে উদ্বিগ্ন হওয়ার মতো কিছু নেই।

চাঁদপুর কণ্ঠ : এ আন্দোলন সাংগঠনিকভাবে কিংবা অন্য কী উপায়ে মোকাবেলা করা যায় বলে আপনি মনে করেন?

মোঃ কামরুজ্জামান মিন্টু : শান্তিপূর্ণ আন্দোলনকে শান্তিপূর্ণ উপায়ে ও রাজনৈতিকভাবেই আমরা মোকাবেলা করতে চাই।

চাঁদপুর কণ্ঠ : আপনি কি এমন মানসিক আস্থা পোষণ করেন যে, বিদ্যমান সমস্যা বিশেষ করে মূল্যস্ফীতি, অর্থনৈতিক সঙ্কট, সম্ভাব্য বৈশ্বিক মন্দা তথা নানা চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে আওয়ামী লীগ স্বীয় জনপ্রিয়তা প্রমাণ করে আসন্ন সংসদ নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠ আসনে হয়ে টানা চতুর্থবারের মতো সরকার গঠন করতে পারবে?

মোঃ কামরুজ্জামান মিন্টু : বর্তমান মূল্যস্ফীতির যে সংকট তা বৈশ্বিক সমস্যা, ইতিপূর্বে করোনাও একটি বৈশ্বিক সমস্যা ছিলো। বিশ্বের অনেক উন্নত দেশের চেয়েও দ্রুততা, দক্ষতা এবং সাহসিকতার সাথে জননেত্রী শেখ হাসিনা এই সংকট সফলভাবে মোকাবেলা করেছেন। ইনশাআল্লাহ মূল্যস্ফীতি, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধিসহ চলমান বৈশ্বিক সংকটগুলো শেখ হাসিনা সফলভাবে মোকাবেলা করে আওয়ামী লীগকে ব্যাপক জনপ্রিয়তায় জনগণের আস্থার মাধ্যমে টানা চতুর্থবারের মতো ক্ষমতায় নিয়ে আসতে পারবেন বলে আমি বিশ্বাস করি। কারণ আওয়ামী লীগের রয়েছে ঐতিহ্যবাহী দক্ষিণ এশিয়ার বৃহত্তম রাজনৈতিক দলের দক্ষ কর্মী বাহিনী এবং ১৪ বছরের আওয়ামী লীগের অর্জন অন্য সকল সরকারের তুলনায় আকাশচুম্বী।

চাঁদপুর কণ্ঠ : উপরোক্ত প্রশ্নমালার বাইরে আপনার অন্য কোনো বক্তব্য থাকলে উপস্থাপন করতে পারেন।

মোঃ কামরুজ্জামান মিন্টু : আমি ১৯৮৫ সালে এসএসসি পরীক্ষার পর মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী একটি পরিবারের সন্তান হিসেবে ছাত্রলীগে যোগদান করি। অতঃপর মেহের ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের আহ্বায়ক, মেহের ডিগ্রি কলেজ ছাত্র সংসদের ছাত্রলীগ মনোনীত জিএস প্রার্থী, উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, ১৯৯৩-৯৬ সালে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হিসেবে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেছি। এছাড়াও স্বৈরাচার এরশাদ বিরোধী আন্দোলন, জঙ্গিবাদ মদদপুষ্ট খালেদা জিয়া বিরোধী আন্দোলনে জীবন বাজি রেখে বহু মামলা হামলা ও নির্যাতনের শিকার হয়ে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছি। ২০০১ সালে পৌর আওয়ামী লীগের সদস্য সচিব পরবর্তীতে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়ে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেছি। ২০১২ সালে উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির সদস্য সচিব হিসেবে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করার পর ২০১৩ সালে উপজেলা আওয়ামী লীগের কাউন্সিলে ভোটের মাধ্যমে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হই। অদ্যাবধি শেখ হাসিনার একজন কর্মী হিসেবে দলের সকল নির্দেশনা সফলতার সাথে পালন করে আসছি।

উল্লেখ্য, আগামী ২৮ নভেম্বর শাহরাস্তি উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এবারের সম্মেলনেও কামরুজ্জামান মিন্টু অন্যতম সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়