সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮  |   ২১ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   হুমকির মুখে ১৪ নং ওয়ার্ডের পরিবেশ
  •   চাঁদপুরে মাদকবিরোধী অভিযানে ইয়াবাসহ ১ জন আটক
  •   উপজেলা প্রেসক্লাব হাইমচবের নির্বাচন তফসিল ঘোষণা
  •   ইতালি সরকার ৮০ হাজার শ্রমিক নেবে
  •   মোস্তাক হায়দার চৌধুরীর জানাজা সোমবার বাদ জোহর

প্রকাশ : ১৪ অক্টোবর ২০২১, ২১:২৯

হোক না প্রস্তুতি ম্যাচ, তাই বলে এমন ছন্নছাড়া ব্যাটিং-বোলিং!

অনলাইন ডেস্ক
হোক না প্রস্তুতি ম্যাচ, তাই বলে এমন ছন্নছাড়া ব্যাটিং-বোলিং!

ওয়ানডে কিংবা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে দলগুলো নিজেদের ঝালিয়ে নিতে খেলে ওয়ার্ম-আপ ম্যাচ। আইসিসির নির্ধারিত সূচিতে হলেও হার-জিতে কিছু যায়-আসে না। তবে পারফরম্যান্স নিশ্চিতভাবেই প্রভাব ফেলে দলের মধ্যে। জিতলে যেমন মূল পর্বে নামার আগে আত্মবিশ্বাস টগবগ করে, তেমনি হারলে গ্রাস করে হতাশা। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ মিশনে বাংলাদেশ অন্তত আত্মবিশ্বাস নিয়ে নামতে পারছে না। টানা দুটো ওয়ার্ম-আপ ম্যাচেই যে হারতে হয়েছে মাহমুদউল্লাহদের।

আজ (বৃহস্পতিবার) আবুধাবিতে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ ৩৩ রানে হেরেছে বাংলাদেশ। বোলারদের ছন্নছাড়া বোলিংয়ের পর ব্যাটাররাও ব্যর্থতার মিছিলে যোগ দেন। তাই আইরিশদের দেওয়া ১৭৮ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ১৪৪ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ।

বোলারদের পারফরম্যান্স সন্তোষজনক ছিল না। ব্যাটিং দিয়ে অন্তত পুষিয়ে দেওয়ার সুযোগ ছিল লাল-সবুজ জার্সিধারীদের। কিন্তু আয়ারল্যান্ডের বোলারদের সামনে লজ্জায় মুখ লুকালেন বাংলাদেশের ব্যাটাররা। এক সৌম্য সরকার ছাড়া টপ অর্ডারের সবাই ব্যর্থ। ওমানে দারুণ পারফর্ম করলেও ওয়ার্ম-আপ ম্যাচে নিজেদের ছায়ায় আটকে রইলেন দুই ওপেনার লিটন দাস ও নাঈম শেখ। ৩ রানে নাঈমের বিদায়ের পর লিটন আউট হয়ে যান মাত্র ১ রানে।

ব্যর্থতার বৃত্ত থেকে বের হতে পারলেন না মুশফিকুর রহিম। নিউজিল্যান্ড সিরিজ ভালো কাটেনি। বিশ্বকাপ প্রস্তুতিতেও ব্যাটে রান নেই তার। আইরিশদের বিপক্ষে ৪ বলে মাত্র ৪ রান করে সাজঘরে ফেরেন তিনি। ভালো শুরুর পর আফিফ হোসেনও বেশিদূর যেতে পারেননি, ১৬ বলে এক বাউন্ডারিতে ১৭ রান করেন তিনি।

ব্যর্থতার মিছিলে কিছুটা হলেও আশার আলো দেখিয়েছেন সৌম্য ও নুরুল হাসান সোহান। বাংলাদেশের ইনিংসে সর্বোচ্চ ৩৮ রান এসেছে সোহানের ব্যাট থেকে। ২৪ বলে ৬ বাউন্ডারিতে ইনিংসটি সাজান উইকেটকিপার ব্যাটার। সৌম্য ৩০ বলে ১ চার ও ২ ছক্কায় করেন ৩৭ রান। তবে শামীম হোসেন (১) হতাশ করেছেন।

শেখ মেহেদী হাসান ৯ ও শেষ দিকে তাসকিন আহমেদের অপরাজিত ১৪ রানে একেবারে শেষ বলে ১৪৪ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ।

আয়ারল্যান্ডের সবচেয়ে সফল বোলার মার্ক অ্যাডির। এই পেসার ৪ ওভারে ৩৩ রানে নেন ৩ উইকেট। ২টি করে উইকেট শিকার ক্রেগ ইয়াং ও জোশুয়া লিটলের।

তাসকিন আহমেদ নিয়েছেন ২ উইকেট টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ মিশনে নামার আগে বাংলাদেশের দুশ্চিন্তার মেঘ কাটছেই না। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ার্ম-আপ ম্যাচেও বোলাররা সুবিধা করতে পারেননি। মোস্তাফিজুর রহমান-শরিফুল ইসলাম-নাসুম আহমেদদের রীতিমতো শাসন করেছেন আইরিশ ব্যাটাররা। তাদের ওপর ছড়ি ঘুরিয়ে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৩ উইকেটে ১৭৭ রান করে আয়ারল্যান্ড।

আবুধাবির ওয়ার্ম-আপ ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিংয়ে সিদ্ধান্ত নেয় আইরিশরা। শুরুতে বল হাতে তুলে নেওয়া তাসকিন আহমেদ সফল। ডানহাতি পেসার ৪ ওভারে ২৬ রান দিয়ে নিয়েছেন ২ উইকেট। তার ওপেনিং সঙ্গী শেখ মেহেদী হাসানও দারুণ বল করেছেন। কোনও উইকেট না পেলেও ৩ ওভারে তার খরচ ১৫ রান।

কিন্তু মোটেও ‍সুবিধা করতে পারেননি নাসুম, মোস্তাফিজ ও শরিফুল। দুই বাঁহাতি পেসার মোস্তাফিজ ও শরিফুল ওভারপ্রতি খরচ করেছেন ১০-এর ওপরে! এই সংযুক্ত আরব আমিরাতে রাজস্থান রয়্যালসের জার্সিতে আইপিএলে দারুণ সময় কাটালেও বাংলাদেশের ওয়ার্ম-আপ ম্যাচে ব্যর্থ মোস্তাফিজ। উইকেট তো পানইনি, উল্টো ৪ ওভারে খরচ করেছেন ৪০ রান।

অন্যদিকে শরিফুল ৪ ওভারে ৪১ রান দিয়ে উইকেটশূন্য। নাসুমের ওপর দিয়েও ঝড় বইয়ে দিয়েছেন আইরিশ ব্যাটাররা। বাঁহাতি স্পিনার ৩ ওভারে ৩৩ রান দিয়ে পেযেছে ১ উইকেট। আর সৌম্য সরকার ২ ওভার বল করে উইকেট না পেলেও বেঁধে রেখেছিলেন ব্যাটারদের, দিয়েছেন ১৩ রান।

বাংলাদেশের বোলারদের ওপর সবচেয়ে বড় ঝড় বইয়ে দিয়েছেন গ্যারেথ ডেলানি। তিনে নেমে আইরিশ ব্যাটার খেলেছেন হার না মানা ঝড়ো ৮৮ রানের ইনিংস। ৫০ বলের দুর্দান্ত ইনিংসটি তিনি সাজান ৩ বাউন্ডারি ও ৮ ছক্কায়। এর আগে ওপেনিংয়ে পল স্টার্লিং ১৬ বলে ৫ বাউন্ডারিতে ২২ রান করে নাসুমের বলে বোল্ড হয়ে যান। আরেক ওপেনার অ্যান্ড্রু বারবার্লি ২২ বলে ২৫ রান করে বোল্ড তাসকিনের বলে। এই পেসারের অন্য শিকার জর্জ ডকরেল (৯)। আর হ্যারি হেক্টর ২৩ বলে ২৩ রানে অপরাজিত থাকেন।

১৭ অক্টোবর শুরু হবে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ মিশন। নিজেদের উদ্বোধনী ম্যাচে মাহমুদউল্লাহদের প্রতিপক্ষ স্কটল্যান্ড। অন্যদিকে আয়ারল্যান্ডের বিশ্বকাপ শুরু হবে ১৮ অক্টোবর, নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়