সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২১  |   ২৮ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   চাঁদপুরে ১৬১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাতের রেকর্ড
  •   রেলওয়ের ফিশ প্লেট উদ্ধার ॥ আটক ২
  •   মোস্তাক হায়দার চৌধুরীর খোঁজ-খবর নিলেন লায়ন্স ক্লাবের নেতৃবৃন্দ
  •   শাহরাস্তি উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন নাসরিন জাহান সেফালী।
  •   হিজড়াদের জন্য যা থাকছে নতুন শিক্ষাক্রমে

প্রকাশ : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:৩৩

মৃত সন্তানের কাছে মায়ের খোলা চিঠি (ভিডিও দেখুন)

রাসেল হাসান

ফরিদগঞ্জে বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া সন্তানের মৃত্যুর ১ বছর পর সন্তানের কাছে খোলা চিঠি লিখলেন মা। গত বছর ১৪ সেপ্টেম্বর জ্বরে আক্রান্ত হয়ে ঢাকা নেয়ার পথে লঞ্চে মারা যাওয়া ঢাকা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী শিক্ষার্থী ইমরান হোসেন পাবেল মারা যাওয়ার এক বছর পূর্ণ হলো আজ। গত এক বছরে সন্তানকে হারিয়ে পাগলপ্রায় মা গতকাল রাতে পাবেলের উদ্দেশ্যে খোলা চিঠি লিখে। চিঠিটি গতকাল চাঁদপুর কণ্ঠের হাতে এসে পৌঁছায়। মায়ের আবেগময়ী অস্রুসিক্ত চিঠিতে পাবেলের জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত তার সাবলীল বৈশিষ্ট্যগুলো তুলে ধরেণ তার মা পারভীন আক্তার।

মারা যাওয়া ইমরান হোসেন পাবেল ফরিদগঞ্জ ম্যাগাজিন হাউজের স্বত্তাধিকারি, স্থানীয় ও জাতীয় পত্রিকার এজেন্ট মাওলানা তাজুল ইসলামের ছেলে ছিলো। ২ ছেলে ১ মেয়ের মধ্যে পাবেল ছিলো সবার বড়। পাবেলের মায়ের লেখা আবেগঘন চিঠিটি হুবহু তুলে ধরা হলো:

'তোমার জন্ম শহরের কোন ক্লিনিক বা হাসপাতালে নয়, গ্রামীন পরিবেশে, গ্রামের টিনের চালাঘরে মাটিতে হামাগুড়ি দিয়েই তুমি হাঁটতে শুরু করেছিলে। মাটিতে পড়েছো, মাটিতে আঘাত খেয়েছো আবার মাটিতো ভর করেইদাঁড়িয়েছো। এই পড়া উঠা দাঁড়ানো কেবল তোমার শিশু বয়সের অভিজ্ঞতাই নয় বরং এগুলো তোমার চির জীবনের সাথী। তোমার জীবনের উত্থান পতনের সাথে সফলতা-ব্যর্থতা, সুখ-দুঃখ, আনন্দ-বেদনা নিবিড়ভাবে হৃদয়ের মাঝে জড়িয়ে আছে। শিশুকাল পেড়িয়ে যখন স্কুলে যাও তোমার মেধার বুদ্ধি পরিচয়ে ১ম স্থান দখল করে স্কুল-কলেজ পেরিয়ে বিদ্যার বিদ্যাপীঠ ঢাকার বিশ্ববিদ্যালয়ে (জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়) মেধার পরিচয়ে স্থান করে নাও। কিন্তু বিধির বিধান খণ্ডায় কে? জন্মালে মরিতে হয়, মাটিতে তোমার উৎপত্তি আবার এ মাটিতেই তোমার শেষ পরিণতি।

পাবেল, তুমি চলে যাবার পর একটি বছর কেটে গেছে। এই একটি বছরে এমন একটি দিনও যায়নি যে তোমার কথা-বার্তা, আচার-আচরণ, নম্রতা-ভদ্রতা, শিষ্টাচারিতা মনে না পড়েছে। তোমার সাহস আর বন্ধুত্ব, মানবিকতার বিরল দৃষ্টান্ত আমাদের গর্বে বুক ভরিয়ে দেয়। তুমি আমাদের মাঝে না থাকলেও আমরা তোমার স্মৃতি ভুলতে পারি না। তুমি বেঁচে আছো তোমার সাহসিকতা ও নৈতিকতার প্রতিক হয়ে। পাবেল, তুমি ভালো থাকো। তুমি আছো হৃদয়ের গভীরে, তাইতো তোমায় ভুলি কি করে? যাহারা আমাদের চারপাশে আছেন, ভালোবাসা ও সমর্থনের জন্য তাদের সবাইকে ধন্যবাদ। আমাদের প্রাণপ্রিয় হৃদয়ের স্পন্দন, মনের মনিমুক্তা ইমরান হোসেন পাবেলের জন্য সবাই দোয়া করবেন। আল্লাহ যেন তাকে জান্নাতবাসী করেন। আমিন।

ইতি

তোমার মা

পারভীন ও পরিবারবর্গ।

উল্লেখ্য, ইমরান হোসেন পাবেল ফরিদগঞ্জ এআর পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০১৫ সালে এসএসসি ও গৃদকালিন্দিয়া হাজেরা হাসমত বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে ২০১৭ সালে এইচএসসি পরীক্ষা দিয়ে স্নাতকের জন্য জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা বিভাগে ভর্তি হয়।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়