চাঁদপুর, মঙ্গলবার, ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯, ১৫ রজব ১৪৪৪  |   ২৩ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   তুরস্ক ও সিরিয়ায় শক্তিশালী ভূমিকম্পে প্রাণহানি ১ হাজার ৬'শ ছাড়িয়েছে, জরুরী অবস্থা জারি
  •   জুনের মধ্যে সংসদীয় আসনের সীমানা পুনর্নির্ধারণ
  •   ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে হজের নিবন্ধন শুরু
  •   জুয়ার নিরাপদ আস্তানায় হানা নেই কেন?
  •   নিখোঁজের ৪ দিন পর ফরিদগঞ্জে মাদক ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার ॥ আটক ২

প্রকাশ : ২৪ জানুয়ারি ২০২৩, ১২:৩৮

সবজি বিক্রেতা শিশু রাতুল লেখাপড়া করে মায়ের দুঃখ গোছাবে

আব্দুল মান্নান সিদ্দিকী
সবজি বিক্রেতা শিশু রাতুল লেখাপড়া করে মায়ের দুঃখ গোছাবে

মুন্সীগঞ্জ জেলার শ্রীনগর উপজেলার জাহানাবাদ গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে রাতুল ১৩ বছরের শিশু। ঢাকা দোহার সড়কে কাদেরের দোকান নামক ফুটপাতের বাজারে সবজি বিক্রি করে থাকে। এরপর যা অবশিষ্ট থাকে গ্রামে ঘুরে ঘুরে বিক্রি করে। রাতুল এ প্রতিনিধিকে জানায়, তারা দুই ভাই এক বোন,বোন সবার বড়। বোনের আগেই বিবাহ হয়েছে। বাবা ১০ বছর আগে বাড়ি হতে নিখুঁজ হয়েছেন তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। বাড়িও ফিরে আসেন নি।

তখন তার বয়স মাত্র তিন বছর, বাবা নিখোঁজ হওয়ার পর সংসারে হাল ধরেন। মা, বাবার ছোট্ট একটি জমি রয়েছে। সে জমিতে মা বিভিন্ন প্রকার সবজির চাষ করেন। সন্ধ্যার পূর্বে মা সবজি উত্তোলন করে ঘরে রাখেন। ভোরে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে রাতুল এই সবজি নিয়ে চলে আসে ঢাকা দোহার সড়কে কাদেরের দোকান নামক বাজারে। এ বাজারে সবজি বিক্রি শেষে যা অবশিষ্ট থাকে তা গ্রামে ঘুরে ঘুরে বিক্রি করে।

গ্রামের গৃহবধুরা জানেন ছোট্ট শিশু রাতুল সবজি বিক্রিকরার পরও লেখাপড়া করে। এ কথা জেনে গৃহবুধরা তাকে স্নেহ করেন ও একটু বেশি দাম দিয়ে সবজি সংগ্রহ করেন।

রাতুল এ প্রতিনিধিকে জানায়, বর্তমানে সে সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র। মায়ের শ্রম এবং সবজিরআয় দিয়ে তাদের সংসার চলে কারো কাছ থেকে তারা আর্থিক সংগ্রহ করেন না। শত কষ্টের মাঝেও তার মায়ের উৎসাহে সে তার লেখাপড়া চালিয়ে যাচ্ছে,তার দৃঢ় বিশ্বাস সে লেখাপড়া শেষে বড় একটি চাকুরী পাবে। আর চাকরি পেয়ে সে তার মার দুঃখ গোছেবে।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়