চাঁদপুর, সোমবার, ৮ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯, ৯ মহররম ১৪৪৪  |   ২৯ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   চাঁদপুরে ৭ম শ্রেণির ছাত্রীকে গণধর্ষণ
  •   গলায় ফাঁস লাগিয়ে কিশোরের আত্মহত্যা
  •   জমি খারিজের নামে হাতিয়ে নিলেন বিপুল পরিমাণ টাকা
  •   কিশোর গ্যাং গড়ে উঠার আগেই নির্মূল করতে হবে : মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম
  •   ডিবি পুলিশের অভিযানে আন্তঃ জেলা প্রতারকচক্রের ৪ সদস্য গ্রেফতার

প্রকাশ : ১১ মার্চ ২০২২, ১৯:৩৬

পাল্টা নিষেধাজ্ঞা পুতিনের, বললেন ‘আরও শক্তিশালী হব’

পাল্টা নিষেধাজ্ঞা পুতিনের, বললেন ‘আরও শক্তিশালী হব’
অনলাইন ডেস্ক

পশ্চিমা বিশ্বের দেয়া নিষেধাজ্ঞা প্রতিহত করা কঠিন হলেও তাতে ভীত নয় বলে জানিয়েছে রাশিয়া। দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের দেয়া বক্তৃতার পর এমন কথা জানালেন সহকারী পররাষ্ট্র মন্ত্রী আলেকজ্নাডার প্যাঙ্কিন। অপরদিকে এক বক্তৃতায় পুতিন বলেছেন, এসব নিষেধাজ্ঞার ফলে রাশিয়া আরও শক্তিশালী হবে। অসুবিধায় পড়তে হবে পশ্চিমাদেরই।

বৃহস্পতিবার প্যাঙ্কিন বলেন, 'এটা স্পষ্ট যে আমরা অসুবিধার মুখোমুখি হব। এটাও স্পষ্ট যে আমরা সহ্য করতে প্রস্তুত। একদিকে কোনো আতঙ্ক নেই, অন্যদিকে আমাদের কোনো সহজ আশাবাদ বা অহংকারী উদাসীনতা এবং আত্মতুষ্টিও নেই।' খবর স্পুটনিক নিউজের

ইউক্রেনের হামলার চালানোর পর একাট্টা হয়ে রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়ে চলেছে পশ্চিমা বিশ্ব। মস্কোকে চাপে রাখতে ও ইউক্রেনে হামলা বন্ধ করতে অর্থনৈতিকসহ বিভিন্ন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। পশ্চিমা দেশগুলোকে অনুসরণ করে রাশিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক স্থগিত করেছে বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত বিশ্বসেরা কোম্পানিগুলোও। এতে রাশিয়ার ওপর ব্যাপক প্রভাব পড়বে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

স্পুটনিকের খবরে বলা হয়েছে, ডনবাসের নেতারা ইউক্রেনীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে আত্মরক্ষার জন্য রাশিয়ার কাছে সাহায্যের আবেদন করে। এরপরই মস্কো তাদের সাহায্য করার জন্য বিশেষ অভিযান পরিচালনা করছে। ইউক্রেনের দখল নেয়ার কোনো পরিকল্পনা রাশিয়ার নেই।

বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউস বলেছে যে, ইউক্রেনে অপ্রচলিত অস্ত্র ব্যবহার করা হলেও সেখানে সেনা পাঠানোর কোনো ইচ্ছা ওয়াশিংটনের নেই।

রাশিয়ার পাল্টা নিষেধাজ্ঞা পশ্চিমাদের নিষেধাজ্ঞার জবাবে দুই শতাধিক পণ্য রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে রাশিয়া। চলতি বছরের শেষ পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা চলবে। এর আওতায় রয়েছে টেলিকম, কৃষি পণ্য, বৈদ্যুতিক এবং প্রযুক্তিগত যন্ত্রপাতি, গাড়ি, রেলের বগি, কন্টেইনার এবং টারবাইন।

অবন্ধুসুলভ আচরণ করেছে এমন দেশগুলোতে রাশিয়া কাঠ রপ্তানিও নিষিদ্ধ করছে। এসব নিষেধাজ্ঞার ফলে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) এবং যুক্তরাষ্ট্রসহ প্রায় ৪৮ টি দেশ ক্ষতির মুখে পড়বে বলে মনে করা হচ্ছে।

রাশিয়া সাময়িকভাবে ইউরেশিয়ান ইকোনোমিক ইউনিয়নভুক্ত (ইইইউ) সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের কয়েকটি দেশে ১৫ মার্চ থেকে ৩১ অগাস্ট পর্যন্ত শস্য রপ্তানি এবং ইইইউ এলাকার বাইরে চিনি রপ্তানিও নিষিদ্ধ করতে পারে বলে ইন্টারফ্যাক্স বার্তা সংস্থাকে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা। ইইইউ দেশগুলোর মধ্যে আছে আর্মেনিয়া, বেলারুশ, কাজাখস্তান, কিরগিজস্তান এবং খোদ রাশিয়াও।

আরও শক্তিশালী হয়ে উঠব: পুতিন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বৃহস্পতিবার বলেছেন যে, এসব নিষেধাজ্ঞার ফলে রাশিয়া আরও শক্তিশালী হয়ে উঠবে। মস্কো এসব সমস্যার সমাধান বের করবে। উপরন্তু রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়ায় বিপদে পড়বে পশ্চিমারাই। তাদের খাবার ও জ্বালানির দাম অনেকটাই বেড়ে যাবে।

পুতিন বলেন, অতিতেও আমরা সমস্যা কাটিয়ে উঠেছি। এখনো কাটিয়ে উঠবো। শেষ পর্যন্ত, এটি আমাদের স্বাধীনতা, স্বয়ংসম্পূর্ণতা এবং আমাদের সার্বভৌমত্ব বৃদ্ধির দিকে পরিচালিত করবে।

পশ্চিমাদের উদ্দেশ্য করে পুতিন বলেন, তাদের নিজেদের ভুলের দায় আমাদের ওপর চাপানোর চেষ্টা করছে।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়