চাঁদপুর, মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩, ১৭ মাঘ ১৪২৯, ৮ রজব ১৪৪৪  |  
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   আগামী নির্বাচনে অনেক চমক অপেক্ষা করছে
  •   ১৭ দিন পর করোনায় একজনের মৃত্যু, শনাক্ত ১০
  •   জাপানি দুই শিশু মায়ের জিম্মায় থাকবে
  •   হাজীগঞ্জের আমির হোসেনের প্রতারণার শিকার হয়ে সৌদি আরবে বহু প্রবাসী যুবক নিঃস্ব
  •   কোস্টগার্ডের অভিযানে ৪৪০ কেজি জাটকা মাছ জব্দ

প্রকাশ : ১৪ নভেম্বর ২০২২, ০০:০০

করোনা নাকি ডেঙ্গুতে ভুগছেন?
অনলাইন ডেস্ক

বিশ্বজুড়ে করোনা রোগীর সংখ্যা বর্তমানে বাড়ছে। করোনার পাশাপাশি এখন দেশে ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাবও বেড়েছে। দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগীর ভিড় বাড়ছে প্রতিনিয়ত। এ সময় অনেকেই টের পাচ্ছেন না সাধারণ জ্বর, কোভিডের জ্বর নাকি ডেঙ্গু জ্বরে ভুগছেন তারা।

কোভিড ও ডেঙ্গু উভয় সংক্রমণেই জ্বর, ঠাণ্ডা লাগা, মাথাব্যথা ও শরীরে ব্যথার মতো বেশ কিছু সাধারণ লক্ষণ আছে। তবে উভয় সংক্রণের মধ্যে কিছুটা পার্থক্যও আছে, যার মাধ্যমে বুঝতে পারবেন কোন সমস্যায় ভুগছেন।

ডেঙ্গুর গুরুতর লক্ষণ কী কী?

ইউএস সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন অনুসারে, কিছু লক্ষণ আছে যেগুলো ডেঙ্গুর গুরুতর লক্ষণ হিসেবে বিবেচিত। যেমন-* ক্রমাগত বমি * মিউকোসাল রক্তপাত * শ্বাস নিতে কষ্ট হওয়া * অলসতা/অস্থিরতা * যকৃত বড় হওয়া।

কোভিড-১৯-এর গুরুতর লক্ষণ কী কী?

ইউএস সিডিসি অনুসারে, কোভিড সংক্রমণের গুরুতর লক্ষণগুলো হলো-* শ্বাসকষ্ট * বুকে ব্যথা বা চাপ * বিভ্রান্তি * অলসতা ও ক্লান্তি * নীলাভ ঠোঁট-মুখ

কোভিড ও ডেঙ্গুর মধ্যে পার্থক্য কোথায়?

ইনকিউবেশন পিরিয়ড মানে ভাইরাস ধরা/সংক্রমিত হওয়া ও রোগের লক্ষণ দেখা দেওয়ার মধ্যবর্তী সময়। ডেঙ্গুর ইনকিউবেশন সময়কাল ৩-১০ দিনের মধ্যে ও সাধারণত ৫-৭ দিন।

অন্যদিকে কোভিডের ইনকিউবেশন পিরিয়ড ১৪দিন পর্যন্তও হতে পারে। সাধারণ লক্ষণগুলোর সংস্পর্শে আসার পর থেকে এটি ৪-৫ দিন সময় নেয়। করোনা নাকি ডেঙ্গুতে ভুগছেন তা নির্ভর করে জ্বরের মতো লক্ষণগুলো প্রকাশের মাধ্যমে। যদিও এই দুই রোগের লক্ষণেও কিছু মিল আছে।

কোভিডের জ্বরকে সাধারণত কম বা মাঝারি ধরনের হয়। ঘরে থেকেই ডাক্তারের নির্দেশিত ওষুধ ও পর্যাপ্ত বিশ্রাম, স্বাস্থ্যকর খাদ্য ও তরল পানের মাধ্যমে কোভিড-১৯ থেকে সুসস্থতা মিলবে।

অন্যদিকে ডেঙ্গু সংক্রমণের ক্ষেত্রে জ্বর অনেক বেশি বাড়তে পারে। আবার ডেঙ্গু সংক্রমণের কারণে জ্বর ক্রমাগত বাড়ে। অন্যদিকে কোভিড-১৯ এর ক্ষেত্রে জ্বর ওঠানামা করে।

লক্ষণের উপর ভিত্তি করে চকিৎসকরা করোনা ও ডেঙ্গু নির্ণয়ের পরামর্শ দিতে পারেন। কিছু ক্ষেত্রে জ্বর, শরীরের ব্যথার মতো উপসর্গ ম্যালেরিয়া ও টাইফয়েডের কারণেও হতে পারে।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।

* চিকিৎসাঙ্গন বিভাগে লেখা পাঠানোর ই-মেইল : into.alamin@gmail.com

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়