চাঁদপুর, শুক্রবার ৭ মে ২০২১, ২৪ বৈশাখ ১৪২৮, ২৪ রমজান ১৪৪২
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
স্বাধীনতা সুবর্ণজয়ন্তী : প্রবাসীদের ভাবনা-২২
অন্তর থেকেই দেশকে ভালোবাসতে হবে
----------------আবদুল্লাহ আল মামুন
০৭ মে, ২০২১ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


আবদুল্লাহ আল মামুন সৌদি প্রবাসী। তিনি দীর্ঘ ১২ বছর রিয়াদে বাংলাদেশী মেডিকেল সেন্টারের ম্যানেজিং ডিরেক্টর হিসেবে কর্মরত। তিনি লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা। সম্প্রতি 'স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী : প্রবাসীদের ভাবনা' শীর্ষক চাঁদপুর কণ্ঠের বিশেষ সাক্ষাৎকার পর্বের মুখোমুখি হন তিনি। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন চাঁদপুর কণ্ঠের সৌদি আরব প্রতিনিধি জাহাঙ্গীর আলম হৃদয়।



চাঁদপুর কণ্ঠ : প্রবাসে কতোদিন আছেন, কী করছেন, কেমন কাটছে সময়?



আবদুল্লাহ আল মামুন : ১২ বছর রিয়াদে আছি। বাংলাদেশী ঢাকা মেডিকেল সেন্টারের ম্যানেজিং ডিরেক্টর হিসেবে দায়িত্ব পালন করছি। আলহামদুলিল্লাহ, ভালো আছি।



চাঁদপুর কণ্ঠ : বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে আপনার অনুভূতি কেমন?



আবদুল্লাহ আল মামুন : বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ সকল বীর শহীদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা নিবেদন করছি। স্বাধীন দেশের নাগরিক হিসেবে একটি পাসপোর্ট পেয়েছি, সেই পাসপোর্ট থাকার কারণে বিদেশে আসতে পেরেছি, দেশ স্বাধীন না হলে তা সম্ভব হতো না। সেজন্যে গর্ববোধ করছি।



চাঁদপুর কণ্ঠ : আপনার দৃষ্টিতে স্বদেশের উন্নতি-অগ্রগতি কতোটুকু হয়েছে?



আবদুল্লাহ আল মামুন : ৫০ বছরে বাংলাদেশ_ ভাবতেই আনন্দ লাগে। দীর্ঘ ৯ মাস যুদ্ধ করে এই দেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছে। যেটুকুন উন্নয়ন-অগ্রগতি হয়েছে তা দৃশ্যমান, আগামীতে এই ধারা অব্যাহত থাকবে বলে আশা করছি।



চাঁদপুর কণ্ঠ : দেশকে নিয়ে আপনার কোনো কষ্ট-বেদনা-অতৃপ্তি আছে কি?



আবদুল্লাহ আল মামুন : যখন দেখি কিছু সংখ্যক লোকের কারণে দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রে অরাজকতা, তখন খুব কষ্ট লাগে। তখন ভাবি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশের কী হবে? দেশের মানুষের কল্যাণে যেটুকুন উন্নয়ন-অগ্রগতি হওয়ার কথা তা ১০০ ভাগ বাস্তবায়ন করতে সবাইকে আন্তরিক হতে হবে, অন্তর থেকেই দেশকে ভালোবাসতে হবে।



চাঁদপুর কণ্ঠ : সকলের উদ্দেশ্যে আপনার পছন্দের কিছু কথা বলুন।



আবদুল্লাহ আল মামুন : সরকারের কাছে আমার অনুরোধ, বিদেশের মাটিতে পাঠানোর আগে লোকজনকে নিজ দেশের মর্যাদার স্বার্থে যেন কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়। তাহলে একজন বাংলাদেশী প্রবাসে এসে কর্মহীন হয়ে জীবনযাপন করা লাগবে না। সম্মানের সাথেই কাজ করতে পারবে, সচল থাকবে রেমিট্যান্সের চাকা। উন্নয়ন হবে দেশের। প্রতিটি পরিবারের উচিত সন্তানকে বিদেশে পাঠানোর আগে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার পাশাপাশি কারিগরি শিক্ষায় দক্ষ শ্রমিক বানিয়ে বিদেশ পাঠানো।



 



 


এই পাতার আরো খবর -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২-সূরা বাকারা


২৮৬ আয়াত, ৪০ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


৪০। হে বনী ইস্রাঈল! আমার সেই অনুগ্রহকে তোমরা স্মরণ কর যদ্বারা আমি তোমাদিগকে অনগৃহীত করিয়াছি এবং আমার সঙ্গে তোমাদের অঙ্গীকার পূর্ণ কর, আমিও তোমাদের সঙ্গে আমার অঙ্গীকার পূর্ণ করিব। আর তোমরা শুধু আমাকেই ভয় কর।


 


 


রাষ্ট্রদূতেরা রাষ্ট্রের চক্ষু ও কর্ণস্বরূপ।


_গুই ফেরডিনি।


 


নিশ্চয় খোদা তার বিশ্বাসী বান্দাকে তওবা দ্বারা পরীক্ষা করতে ভালোবাসেন।


 


 


ফটো গ্যালারি
করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ৭,৫১,৬৫৯ ১৬,৮০,১৩,৪১৫
সুস্থ ৭,৩২,৮১০ ১৪,৯৩,৫৬,৭৪৮
মৃত্যু ১২,৪৪১ ৩৪,৮৮,২৩৭
দেশ ২০০ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৭৬৪৯১৪
পুরোন সংখ্যা