চাঁদপুর, মঙ্গলবার, ৪ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯, ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪  |   ২৮ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   নদীতে যৌথ অভিযান হবে এবং যথাযথ শক্তভাবে হবে : জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান
  •   শেখ ফরিদ আহমেদ মানিকের সুস্থতা কামনায় মসজিদে দোয়া
  •   হাসপাতাল হলো ময়লার ভাগাড়
  •   মায়ের বুকে শিশুর মৃত্যু?
  •   পানিতে ডুবে ৫ম শ্রেণীর ছাত্রের মৃত্যু

প্রকাশ : ০৫ জুলাই ২০২২, ০০:৪১

বাংলাদেশে ইতালীয় বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ

জমির হোসেন, ইতালি থেকে
বাংলাদেশে ইতালীয় বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ

বাংলাদেশে বিনিয়োগে বহুমুখী সুবিধা নিয়ে ইতালীয় বিশিষ্ট ব্যবসায়ীদের সাথে সেমিনার করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রোমের হোটেল সিনা বার্নিনি ব্রিস্টলে পররাষ্ট্রমন্ত্রনালয়ের অর্থনৈতিক কুটনৈতিক সপ্তাহের অংশ হিসেবে এ সেমিনার করা হয়।

এরপরে ১ জুলাই শুক্রবার স্থানীয় সময় বিকাল চারটায় বিনিয়োগ বিষয় নিয়ে রোম দূতাবাসে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশে ইতালীয় উচ্চ পর্যায়ের বিনিয়োগকারীদের আগ্রহের কথা জানান,ইতালিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোঃ শামীম আহসান। এসময় রাষ্ট্রদূত, বলেন,ইটালীয় ব্যবসায়ীদের প্রবল আগ্রহের কথা প্রকাশ করেছেন। আমরাও বিভিন্ন সুযোগ সুবিধার কথা জানিয়েছি। এতে তারা ভীষণ আগ্রহ প্রকাশ করেছেন বিনিয়োগের জন্য। আবার অনেক ব্যবসায়ী ইতোমধ্যে বাংলাদেশ সফরও করেছেন। রাষ্ট্রদূত বলেন,এই ইভেন্টের মাধ্যমে আমাদের অন্যরকম একটা সফলতা এসেছে এবং সফল হয়েছি।

সংবাদ সম্মেলনে রাষ্ট্রদূতের বক্তব্যের এক পর্যায়ে বিনিয়োগে আগ্রহীদের নিয়ে দূতাবাসের ইকোনমিক কাউন্সেলর মানস মিত্র বলেন,অনেক সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। ইতালীয় ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি বাংলাদেশের ওয়াল্টন এ দেশে ব্যবসা শুরু করতে পরিকল্পনা হাতে নিয়ে কাজও শুরু করে দিয়েছেন। খুব শীঘ্রই ওয়াল্টনের আশি জন কর্মী ইতালিতে আসবে। এবং অনেকে এখন ট্রেনিং নিচ্ছেন ইতালিতে। তিনি বলেন,অনেক খাতে ইতালীয়রা ব্যবসা শুরু করবেন বলে তাদের পরিকল্পনার কথা জানান। তিনি আরও বলেন,কিছু প্রডাক্ট ইতোমধ্যে লন্ডন ও বেলজিয়ামসহ অন্যান্যা দেশে রয়েছে কিন্তু ইতালিতে এখনও আসেনি এরমধ্যে  উল্লেখযোগ্য হল বাইসাইকেল। এরকম একটা ব্যবসা নিয়ে বাংলাদেশ আসতে পারে। এছাড়াও জুট এন্ড জুট ব্রাসেলসে এসেছে ইতালি আসেনি অথচ ইতালির মার্কেটে এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। আরেকটি নতুন সম্ভাবনা তা হল অটো মোটিভ সেক্টরে এর ফলে বাংলাদেশ -ইতালির মধ্যে কোলাবোরেশান হতে পারে। এমন আরও অনেক সম্ভাবণা রয়েছে বলে তিনি সংবাদ সম্মেলনে উল্লেখ  করেন। 

সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ ও ইতালির অনেক গণমাধ্যমকর্মীরা অংশগ্রহণ করেন। এসময় তারা বিনিয়োগ বিষয় নিয়ে প্রশ্ন করলে রাষ্ট্রদূত শামীম 

আহসান ও ইকোনমিক কাউন্সের প্রশ্নের জবাব দেন। সংবাদ সম্মেলনে রোমের সংবাদকর্মীদের সাথে দূতাবাসের বিভিন্ন শাখার কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও জুম অনলাইনে ইতালির বিভিন্ন শহর থেকে একাধিক সংবাদকর্মীরা অংশগ্রহণ করেন। 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়