চাঁদপুর, বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৪ শাওয়াল ১৪৪৩  |   ৩২ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   আজ সাবেক এমপি এমএ মতিনের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী
  •   আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য হলেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম
  •   আজ দেশের শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক কাজী বজলুল হকের ১৯তম মৃত্যুবার্ষিকী
  •   অতিরিক্ত সচিব আব্দুস সবুর মন্ডলকে জনপ্রশাসনে বদলি
  •   আজ ড. এমএ সাত্তারের ৩০তম মৃত্যুবার্ষিকী

প্রকাশ : ১৭ জানুয়ারি ২০২২, ১৯:১৩

১৭ কোটি টাকার বিদেশি বিনিয়োগ পেলো টেন মিনিট স্কুল

অনলাইন ডেস্ক
১৭ কোটি টাকার বিদেশি বিনিয়োগ পেলো টেন মিনিট স্কুল

প্রথমবারের মতো প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ পেলো অনলাইনভিত্তিক শিক্ষা প্ল্যাটফর্ম টেন মিনিট স্কুল। প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ ভেঞ্চার ক্যাপিটাল কোম্পানি সেকইয়া ক্যাপিটাল ইন্ডিয়া-র ‘সার্জ’ প্রোগ্রামের আওতায় ১৭ কোটি টাকার (২ মিলিয়ন ইউএস ডলার সমমূল্যের) বিদেশি বিনিয়োগ পেয়েছে তারা। প্রতিষ্ঠানটি আরও বলছে, দেশের প্রথম এড-টেক কোম্পানি (শিক্ষা বিষয়ক প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান) হিসেবে তারা এ বিনিয়োগ পেলো।

রবিবার (১৬ জানুয়ারি) গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, এই বিনিয়োগ নতুন প্রোডাক্ট ও কন্টেন্ট তৈরি, প্রযুক্তিগত সক্ষমতা বৃদ্ধি এবং প্রতিষ্ঠানের বিস্তারে ব্যবহৃত হবে।

বিনিয়োগ প্রসঙ্গে টেন মিনিট স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা এবং পরিচালক আয়মান সাদিক বলেন, ‘২০২১ সালে টেন মিনিট স্কুল ব্যবসায়িকভাবে ১২ গুণ বড় হয় এবং আমাদের ইউজারদের কাছে টেন মিনিট স্কুল অ্যাপটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। সেকইয়া ক্যাপিটাল ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া এই বিনিয়োগ টেন মিনিট স্কুলের প্রোডাক্ট, টেকনোলজি, দক্ষ জনবল এবং কার্যক্রমের বিস্তার ঘটাতে বেশ সাহায্য করবে। আশা করি, আমরা নতুন বছরে এই বিনিয়োগের মাধ্যমে টেন মিনিট স্কুলের বিকাশ আরো ত্বরান্বিত করে আমাদের শিক্ষার্থীদের কাছে গুণগত শিক্ষা পৌঁছে দিতে পারবো।’ এছাড়াও মানসম্পন্ন কন্টেন্ট তৈরিতে এই বিনিয়োগ ভূমিকা রাখবে বলেও তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

তিনি জানান, ২০২০ এর শুরুর দিকে করোনা মহামারিতে দেশের স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রম যখন থমকে যায়, তখন অনলাইন শিক্ষাব্যবস্থা নতুন করে জনপ্রিয়তা পেতে শুরু করে। লকডাউনেও যাতে পড়াশোনা থেমে না থাকে এই চেষ্টায় নতুন নতুন কোর্স ও বই বের করে ই-লার্নিং প্রতিষ্ঠানগুলো। শুধু এই মহামারির সময় প্রায় ৯০ লাখ নতুন শিক্ষার্থী যুক্ত হয় টেন মিনিট স্কুলের সাথে। ১৭ হাজার নতুন ভিডিও লেকচার যুক্ত হয় তাদের শিক্ষা কার্যক্রমে।

প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালে আয়মান সাদিক ও আবদুল্লাহ আবইয়াদ রাইদের হাত ধরে টেন মিনিট স্কুলের যাত্রা শুরু হয়। ‘নেভার স্টপ লার্নিং’ মূলমন্ত্র নিয়ে শুরু হওয়া টেন মিনিট স্কুলের কার্যক্রম প্রথমে শুধুমাত্র ভর্তিপরীক্ষা প্রস্তুতি কেন্দ্রিক হলেও এখন তা আরো প্রসারিত হয়েছে। সারা দেশব্যাপী ভালো মানের শিক্ষামূলক অনলাইন কন্টেন্ট পৌছানোর জন্য কাজ করছে টেন মিনিট স্কুল। পড়াশোনার পাশাপাশি স্পোকেন ইংলিশ, পাওয়ারপয়েন্ট, ফ্রিল্যান্সিং, ফেসবুক মার্কেটিং, কোরআন শিক্ষাসহ আরও বিভিন্ন ধরনের কোর্স থাকার ফলে সাশ্রয়ী মূল্যে দক্ষতা বাড়ানোর লক্ষ্যে কাজ করছে টেন মিনিট স্কুল।

সূত্র : বাংলা ট্রিবিউন

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়