সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ২ কার্তিক ১৪২৮, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩  |   ২৭ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   হাজীগঞ্জের পৃথক দুটি তদন্ত চলছে : পরিস্থিতি স্বাভাবিক : ১৪৪ ধারা প্রত্যাহার

প্রকাশ : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:১০

বাবুরহাট স্কুলের সামনের অটোস্ট্যান্ড অপসারণ

জেলা প্রশাসক ও মেয়র বরাবর শিক্ষার্থীদের অভিযোগ

অনলাইন ডেস্ক
জেলা প্রশাসক ও মেয়র বরাবর শিক্ষার্থীদের অভিযোগ

চাঁদপুর সদর উপজেলার ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ বাবুরহাট উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের সামনে থেকে অটো স্ট্যান্ড অপসারণে জেলা প্রশাসক ও মেয়র বরাবর অভিযোগ করেছেন বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। ১৯ সেপ্টেম্বর রবিবার জেলা প্রশাসক ও চাঁদপুর পৌর কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে শিক্ষার্থীরা এ অভিযোগ জমা দিয়েছেন বলে জানা যায়।

উক্ত অভিযোগে উল্লেখ করা হয় বিদ্যালয়ের সামনে থেকে অটো স্ট্যান্ড বসিয়ে যাত্রী ওঠানামা করা হচ্ছে। অটো স্ট্যান্ডকে কেন্দ্র করে প্রতিনিয়ত সেখানে মাদকসেবী ও বখাটেদের আড্ডা জমে। এবং এ আড্ডা থেকে বিদ্যালয়ের ছাত্রীরা ইভটিজিং ও অপহরণের শিকার হচ্ছেন বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়। বিষয়টি নিয়ে প্রতিদিনই বিব্রতকর পরিস্থিতির মুখে পড়েছেন বলে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা জানান।

এর আগে করোনাকালীন সময়ের পূর্বে স্থানীয় কয়েকজন উদ্যোগ নিলেও সরাতে পারেনি এই অটোষ্ট্যান্ডটি।জানা যায় এই অটোষ্ট্যান্ডটি ছাত্রলীগের ছত্রছায়ায় পরিচালিত হয়। ছাত্রলীগের বিভিন্ন নেতাকর্মীরা প্রতি অটো থেকে ৩০ থেকে ৪০ টাকা দিনপ্রতি আদায় করে বলে জানা যায়।

এ বিষয়টি নিয়ে ২০১৯ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর "বাবুরহাট স্কুলের সামনে অটোস্ট্যান্ড বসিয়ে ছাত্রলীগের চাঁদাবাজি ইভটিজিংয়ের শিকার ছাত্রীরা" এই শিরোনামে দৈনিক চাঁদপুর কণ্ঠে সংবাদও প্রকাশিত হয়।

ওই সংবাদেও এই অটোষ্ট্যান্ডকে কেন্দ্র কিশোর গ্যাং সহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড ঘটছে বলে উল্লেখ করা হয়। এই কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরাই বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন জায়গায় নানা রকম বিশৃংখল কাজে জড়িয়ে পড়ছে ও বিদ্যালয় আগত ছাত্রীদের এবং এই সড়কে চলাচলকারী কিশোরীদের উত্তক্ত করছে বলে জানা যায়।

এ বিষয়ে বাবুরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ মোশারফ হোসেন জানান, আমরা পূর্বে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সদস্যগন প্রাথমিকভাবে তাদেরকে কয়েকবার নিষেধ করেছি এখানে অটোষ্টন্ড না করার জন্য।। তারা আমাদের কথায় কর্ণপাত করেনি পরবর্তীতে আমরা পুলিশ সুপার মহোদয় এবং মডেল থানার অফিসার বরাবর চিঠি দিয়েছি। এবিষয়ে গতকাল বিদ্যালয়ের কয়েকজন ছাত্র ছাত্রী এবিষয়ে আমার কাছে আসেন এবং জেলা প্রশাসক ও মেয়র বরাবর দরখাস্ত করবেন বলে আমাকে জানান।

এ বিষয়টি নিয়ে বাবুরহাট এলাকায় সমাজ সচেতন ব্যক্তিবর্গ ও অভিভাবকগণ অনেকটাই উদ্বিগ্ন রয়েছেন।

এদিকে একটি বিশ্বস্ত সূত্র থেকে জানা যায়, এই অটো স্ট্যান্ডে প্রতিদিন সন্ধ্যা পেরুলেই মাদক কারবারীদের বিকিকিনি চলতে থাকে।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়