চাঁদপুর, বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩  |   ৩৩ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   হাজীগঞ্জের শিশু আরাফ হত্যায় তিন আসামীর মৃত্যুদণ্ড
  •   কল্যাণপুর ইউপির জেলে চাল আত্মসাৎ, দুই গুদাম সিলগালা
  •   মা আর স্ত্রীকে বুঝিয়ে দেয়া হলো দুই ভাইয়ের লাশ
  •   বাকিলা উচ্চ বিদ্যালয়ে ভিম ধ্বসে ৩ ছাত্রী গুরুতর আহত
  •   আশিকাটিতে খাটের নিচে গৃহবধূর লাশ ॥ স্বামী পলাতক

প্রকাশ : ২২ জানুয়ারি ২০২২, ১৩:০৬

সংবাদ সম্মেলনে চেয়ারম্যানসহ তিন প্রার্থীর অভিযোগ

ফরিদগঞ্জের চরদুঃখিয়া পুর্ব ইউনিয়নের নির্বাচনে ফলাফল জালিয়াতি করে চেয়ারম্যানসহ অন্য প্রার্থীদের বিজয় নিশ্চিত করা হয়

ফরিদগঞ্জ ব্যুরো
সংবাদ সম্মেলনে চেয়ারম্যানসহ তিন প্রার্থীর অভিযোগ

গত ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ১১নং চর দুঃখিয়া পুর্ব ইউনিয়নে অনিয়ম ও জালিয়াতির অভিযোগ করে সংবাদ সম্মেলন করেছেন বিজিত চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ তিন প্রার্থী । এ সময় তারা ওই ইউনিয়নের গেজেট প্রকাশ স্থগিত ও রেখে পুনঃ নির্বাচনের দাবী করেন।

প্রেসক্লাব সভাপতি মোঃ কামরুজ্জামানের সভাপতিত্বে শনিবার ২২ জানুয়ারি সকালে ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত ওই সংবাদ সম্মেলনে তিন বিজিত প্রার্থীর পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ওই ইউনিয়নের নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক বাছির আহমেদ। এসময় অপর দুই প্রার্থী সংরক্ষিত ১নং ওয়ার্ডের প্রার্থী মর্জিনা আক্তার আঁখি এবং সাধারণ ১নং ওয়ার্ডের সদস্য প্রার্থী আমিন খান।

লিখিত বক্তব্যে প্রার্থীরা বলেন, গত ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ১১নং চর দু:খিয়া পুর্ব ইউনিয়নের ১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ডের তিনটি কেন্দ্রে সীমাহীন অনিয়ম ও জালিয়াতির আশ্রয় নেয়া হয়েছে। তিনটি কেন্দ্র থেকে ব্যালট, ব্যালটের মুড়ি ও সিল ছিনতাই করে কেন্দ্রের বাইরে ও ভেতরে ওই ব্যালটে সিলমারা, অবৈধভাবে সিলমারা ওই ব্যালট ভোটের বাক্সে ফেলা, প্রার্থীর এজেন্ট বের করে দেওয়া, প্রতিদ্বন্দ্বী অন্যান্য চেয়ারম্যান প্রার্থীর পক্ষের সিলমারা ব্যালট নৌকার পক্ষে গণনা এবং একইভাবে ১, ২ ও ৩ নং কেন্দ্রে ভোট জালিয়াতির মাধ্যমে প্রতিদ্বন্দ্বী একাধিক সাধারণ সদস্য ও একজন সংরক্ষিত সদস্য প্রার্থীর পক্ষের ফলাফল পাল্টে দিয়ে অপর সদস্যখ্যাকে অবৈধভাবে নির্বাচিত ঘোষনা করা হয়।

ওই ইউনিয়নরে চেয়ারম্যান প্রার্থীদের ভোটের সংখ্যার সাথে সাধারণ সদস্য, সংরক্ষিত সদস্যগণের ভোটের সংখ্যার মিল নেই। ১নং কেন্দ্রে মোট ভোটার সংখ্যা ২৬১৩টি। চেয়ারম্যান প্রার্থীদের ফলাফল শিটে মোট কাল্টিং ভোটের সংখ্যা ১৭১৭টি। সংরক্ষিত সদস্যদের মোট কাস্টিং ভোটের সংখ্যা ১৫৭৮, সাধারণ সদস্যদের মোট কাস্টিং ভোটের সংখ্যা ১৬১৩টি।

নির্বাচনের কয়েকদিন পর গত ৮ জানুয়ারী পুর্ব সন্তোষপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের পার্শ্ববর্তী বাগানে বেশ কিছু সিলমারা ও সিলছাড়া ব্যালট পেপার, মুড়ি ও সিল পরিত্যক্ত অবস্থা থেকে উদ্ধার করে থানা পুলিশ। ওইদিনই রাতে ঘটনা উল্লেখ করে প্রতিদ্বন্দ্বী চেয়ারম্যান প্রার্থী বাছির আহমেদ লিখিত অভিযোগ করেন। এছাড়া অনিয়ম, জালিয়াতির বিষয়ে রির্টানিং অফিসারকে জানানো হলেও তিনি কোন ব্যবস্থা নেন নি। ফলে বাধ্য হয়ে সংবাদ সম্মেলন করছি।

তাই সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে অনিয়ম ও জালিয়াতির মাধ্যমে অবৈধ চেয়ারম্যান এবং সদস্যদের পক্ষে গেজেট প্রকাশ ও শপথ গ্রহণ স্থগিত রেখে পুনঃ নির্বাচন-এর দাবী করেন তারা। উল্লেখ্য, গত ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে চরদুঃখিয়া পুর্ব ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী মাহমুদুল হাসান মিরাজ নৌকা প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হন।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়