চাঁদপুর, সোমবার ৬ জুলাই ২০২০, ২২ আষাঢ় ১৪২৭, ১৪ জিলকদ ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৭১-সূরা নূহ্


২৮ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


১৫। তোমরা কি লক্ষ্য কর নাই আল্লাহ কিভাবে সৃষ্টি করিয়াছেন সপ্তস্তরে বিন্যস্ত আকাশম-লী?


১৬। এবং সেথায় চন্দ্রকে স্থাপন করিয়াছেন আলোরূপে ও সূর্যকে স্থাপন করিয়াছেন প্রদীপরূপে;


 


মহৎ মানুষেরা বিধাতার কল্পনার চমৎকার ফসল।


-পি জে বেইলি।


 


 


 


প্রত্যেক কওমের জন্য একটি পরীক্ষা আছে এবং আমার উম্মতদের পরীক্ষা তাদের ধন-দৌলত।


 


 


যে ভুলে করোনাভাইরাসের ঝুঁকি বাড়ে
০৬ জুলাই, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


বেশিরভাগ মানুষই এখন বাড়ির বাইরে বের হচ্ছেন। নানা কাজে, নানা প্রয়োজনে। আগের মতো নিশ্চিন্ত মনে নয়, মনের ভেতর নানা আতঙ্ক নিয়ে বের হতে হচ্ছে তাদের। সবচেয়ে বড় আতঙ্কের নাম এখন করোনাভাইরাস। অদৃশ্য এই শত্রুর বিরুদ্ধে সব রকম সতর্কতা মেনে তবেই বাইরে পা রাখতে হচ্ছে। যেহেতু এখন অনেকেই বাইরে বের হচ্ছেন, তাই একান্ত প্রয়োজন না হলে বাইরে বের না হওয়াই ভালো।



টাইমস অব ইন্ডিয়া জানাচ্ছে ৫টি ভুলের কথা, যার মাধ্যমে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ার ঝুঁকি আরও বেড়ে যেতে পারে। পরবর্তী সময়ে বাইরে বের হওয়ার সময় খেয়াল করে দেখুন তো, এই ভুলগুলো আপনিও করছেন কি-না?



 



মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার এবং টিস্যু ছাড়াই বাইরে যাচ্ছেন



অনেকেই আছেন, যারা অল্প সময়ের জন্য বাইরে গেলে মাস্ক পরে যাচ্ছেন না। বাসার নিচ থেকে সবজি বা সদাইপাতি কিনতে যাচ্ছেন বলে মাস্কের ব্যাপারে তেমন গুরুত্ব দিচ্ছেন না। আপনি কতটা সময়ের জন্য বাইরে গেলেন সেটি দেখার বিষয় নয়, যখনই বাড়ির বাইরে পা রাখছেন, তখনই মাস্ক পরা জরুরি। করোনাভাইরাস এখনও বিদায় নেয়নি, এবং আপনি যেকোনো জায়গায়ই সংক্রমিত হতে পারেন। সিডিসির পরামর্শ অনুযায়ী, বাইরে বের হওয়ার আগে অবশ্যই হ্যান্ড স্যানিটাইজার এর টিস্যু পেপার সঙ্গে রাখবেন। আর মাস্ক তো অবশ্যই পরবেন।



 



আপনি ধরে নিচ্ছেন ভাইরাস চলে গেছে



বিভিন্ন জায়গায় লকডাউন তুলে নেয়া হলেও এর মানে কিন্তু এই নয় যে ভাইরাসটি আর সংক্রমণ ছড়াবে না। তাই সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা এবং বাসা থেকে বের হওয়ার সময় সবরকম স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা জরুরি। সেইসঙ্গে বাসায় ফিরেও মেনে চলতে হবে সঠিক নিয়ম।



 



দোকান খোলার সাথে সাথে আপনি একটি শপিং করতে চলেছেন



মহামারীর কারণে বিশ্বব্যাপী অর্থনীতি মুখ থুবড়ে পড়েছে এবং আমাদের দেশেও এর ব্যতিক্রম নয়। আপনার অনেককিছুই কেনার প্রয়োজন হতে পারে বা কিনতে ইচ্ছা হতে পারে, তবে এক্ষেত্রে সংযম ধরে রাখুন। মহামারী চলাকালীন সবার আগে গুরুত্ব দেয়া উচিত আর্থিক বিষয়টি। যেন জরুরি হলে আপনি চিকিৎসার ক্ষেত্রে তা ব্যয় করতে পারেন। তাই এই সময়ে অতিরিক্ত খরচ কোনোভাবেই কাম্য নয়। বড় সব ধরনের ব্যয়ের কথা মাথায় রেখে খরচ করা উচিত। সঠিক চিকিৎসা না পেলে তা আপনার স্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁকিকর। তাই আর্থিক নিরাপত্তাও নিশ্চিত করুন।



 



বাইরের জিনিস স্পর্শ করার সময় সতর্ক নন



বাইরে বের হওয়ার উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার পর থেকে স্বাভাবিকভাবেই বাইরে বের হওয়ার পরিমাণ বেড়েছে। মানুষেরা স্বাভাবিক জীবনে ফেরার চেষ্টা করছেন। বাইরে বের হয়ে কী স্পর্শ করছেন কিংবা কীসের সংস্পর্শে আসছেন, সেদিকেও নজর দেয়া জরুরি। বাইরে যে পরিমাণ মানুষ তাতে করে যেকোনোকিছু স্পর্শ করার আগে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকতে হবে। নয়তো সংক্রমিত হওয়ার ভয় উড়িয়ে দেয়া যায় না।



 



আপনি করোনাভাইরাস সংক্রন্ত খবর পড়া বন্ধ করেছেন



করোনাভাইরাস সংক্রমণ ক্রমেই বেড়ে চলেছে। বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও। নিয়মিত এসব খবর দেখতে বা পড়তে থাকলে তা মানসিক চাপের জন্য যথেষ্ট। এসব থেকে রেহাই পেতে তাই অনেকেই করোনাভাইরাস সংক্রান্ত খবর এড়িয়ে চলা শুরু করেছেন। এটিও ঠিক নয়। কারণ কোন এলাকাগুলোতে ভাইরাসের সংক্রমণ বেশি, কোথায় এখনও লকডাউন চলছে, সেদিকে নজর রাখাও জরুরি। তাই সারাক্ষণ খবর দেখার দরকার নেই, দিনের মধ্যে অল্প কিছু সময় আপডেট জানার কাজে ব্যয় করুন। নয়তো নিজেকে ঝুঁকিমুক্ত রাখা সম্ভব নাও হতে পারে।



সূত্র : জাগো নিউজ।



 



 


করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ২,২৩,৪৫৩ ১,৬২,২০,৯০০
সুস্থ ১,২৩,৮৮২ ৯৯,২৩,৬৪৩
মৃত্যু ২,৯২৮ ৬,৪৮,৭৫৪
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৪৮৯২০০১
পুরোন সংখ্যা