চাঁদপুর, সোমবার ২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৮ ভাদ্র ১৪২৬, ২ মহররম ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৫-সূরা রাহ্মান


৭৮ আয়াত, ৩ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


 


assets/data_files/web

বাণিজ্যই হলো বিভিন্ন জাতির সাম্য সংস্থাপক। -গ্লাডস্টোন।


 


 


যখন কোনো দলের ইমামতি কর, তখন তাদের নামাজকে সহজ কর।


 


 


 


ফটো গ্যালারি
গ্রিন টি-র গুণাগুণ
জাওয়াদ রাব্বী
০২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+

শারীরিক অনেক সমস্যা সমাধান করার জন্যে, অনেকেই একটি বিশেষ রকমের চা পান করে থাকে এবং সেটি হচ্ছে গ্রিন টি। প্রায় ৪ হাজার বছর ধরে চীনে এই গ্রিন টি বা সবুজ চা ঔষধ হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে।

গ্রিন টি-এর জনপ্রিয়তা দিন দিন বেড়েই চলেছে। বিশেষ করে স্বাস্থ্যসচেতন মানুষদের কাছে এটি বিশেষ মূল্য রাখে। সাধারণ চা এবং গ্রিন টি-এর মধ্যে মূল পার্থক্য হচ্ছে এদের রাসায়ানিক পদার্থগুলোর গঠনে। সাধারণত আমরা যে চা খেয়ে থাকি, সেটির তুলনায় গ্রিনটিতে অঙ্েিডন্ট এবং ক্যাফেইনের পরিমাণ অনেক বেশি। বিজ্ঞানীদের এক গবেষণায় বলা হয়েছে, দিনে অন্তত ৫ কাপ সবুজ চা পান করলে শারীরিক অনেক প্রতিবন্ধকতা কাটিয়ে দৈনন্দিন কাজে গতিশীল ও চটপটে স্বভাবের হয়ে ওঠা যায়।

নিয়মিত গ্রিন টি পান করলে ক্যান্সারের মতো জটিল রোগসহ আরও অনেক রোগের ঝুঁকিও কমিয়ে আনা সম্ভব অনেকাংশে।

* ওজন কমানো :

সবুজ চায়ের ভেতরে থাকা পলিফেনল শরীরের ফ্যাট অঙ্েিডশন প্রক্রিয়াকে আরও কার্যকর করে তোলে। এর ফলে দেহে অতিরিক্ত চর্বি জমতে পারে না। একটি গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে গ্রিন টি পান করলে দিনে ৭০ ক্যালরি পর্যন্ত ফ্যাট বার্ন করা যায়। তার মানে বছরে ৭ পাউন্ড পর্যন্ত ওজন কমানো সম্ভব শুধু গ্রিন টি পান করে।

* ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ :

রক্তের গ্লুকোজের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে গ্রিন টি। খাওয়ার পরে রক্তে শর্করার মাত্রা বাড়ে, যা প্রত্যক্ষভাবে নিয়ন্ত্রণ করে গ্রিন টি।

* কোলেস্টেরল এবং রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ :

শরীরের ক্ষতিকর কলেস্টেরলের মাত্রা হ্রাস করতে এবং প্রয়োজনীয় কোলেস্টেরলের পরিমাণ বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। এছাড়া বিশেষজ্ঞরা মনে করে থাকেন, নিয়মিত গ্রিন টি পান করলে উচ্চরক্তচাপের ঝুঁকি কমে।

* মুখের দুর্গন্ধ নিয়ন্ত্রণ : গ্রিন টি ওরালব্যাক্টেরিয়া ধ্বংস করে এবং ডেন্টাল ক্যাভিটি প্রতিরোধ করে। এর ফলে নিয়মিত গ্রিন টি পান মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে কার্যকর ভূমিকা পালন করে।

* ময়েশ্চারাইজিং মাস্ক : ১ চা-চামচ গ্রিন টি, অর্ধেক কলা, ১ চা-চামচ মধু এবং ১ চা-চামচ টকদই ভালোমতো মিশিয়ে মুখে লাগান। এটি শুষ্ক ত্বকের জন্যে খুব ভালো ময়েশ্চারাইজিং মাস্ক হিসেবে কাজ করে।

* ডার্ক সার্কেল অপসারণ : গ্রিন টি-এর দুটি টি-ব্যাগ ২ ঘণ্টা ফ্রিজে ঠা-া করে বন্ধ চোখের উপর ১০ মিনিট রাখুন। চোখের ফোলাভাব এবং চোখের নিচের ডাকর্ সার্কেল কমে যাবে।

* ডিপ্রেশন দূর করে : 'থিয়ানিন' নামের এক অ্যামাইনো এসিড চা পাতায় থাকার কারণে গ্রিন টি দুশ্চিন্তা ও হতাশা কমাতে সাহায্য করে।

* চুলের মান উন্নত করে : ৩-৪ টি গ্রিন টি ব্যাগ ১ লিটার পানিতে এক ঘণ্টা ফুটিয়ে ঠা-া করে নিন। চুল শ্যাম্পু এবং কন্ডিশন করার পর সেই পানি দিয়ে চুল ধুলে চুল শক্ত ও মজবুত হয়ে উঠবে এবং চুল পড়া কমে যাবে।

সূত্র : অনন্যা।

আজকের পাঠকসংখ্যা
৮৮৬৮৭৮
পুরোন সংখ্যা