চাঁদপুর, মঙ্গলবার ২৮ জানুয়ারি ২০২০, ১৪ মাঘ ১৪২৬, ২ জমাদউিস সানি ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬২-সূরা জুমু 'আ


১১ আয়াত, ২ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


৮। বল, 'তোমরা যে মৃত্যু হইতে পলায়ন কর, সেই মৃত্যু তোমাদের সহিত অবশ্যই সাক্ষাৎ করিবে। অতঃপর তোমরা প্রত্যানীত হইবে অদৃশ্য ও দৃশ্যের পরিজ্ঞাতা আল্লাহর নিকট এবং তোমাদিগকে জানাইয়া দেওয়া হইবে যাহা তোমরা করিতে।'


 


সময় একটা বৃত্তের মতো আমাদের চারিদিকে ঘোরে। -জন হে উড।


 


 


যারা শিক্ষা লাভ করে এবং তদানুযায়ী কাজ করে, তারাই প্রকৃত বিদ্বান।


 


ফটো গ্যালারি
প্রমিলা ফুটবলারদেরকে ট্রাকসুট দিলেন কাতার প্রবাসী মনির হোসেন
চৌধুরী ইয়াসিন ইকরাম
২৮ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুর জেলার অনুশীলনরত প্রমীলা ফুটবলারদেরকে ট্রাকসুট দিয়েছেন কাতার প্রবাসী ক্রীড়া সংগঠক মনির হোসেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরেই চাঁদপুর জেলা শহরের নতুনবাজার ও পুরাণবাজার সহ বিভিন্ন ক্লাবের খেলোয়াড়দেরকে খেলার সরঞ্জাম সহ আর্থিক সহযোগীতা করে যাচ্ছেন। তিনি পুরানবাজারস্থ দোকানঘর এলাকার বাসিন্দা হলেও ক্রীড়াক্ষেত্রে জেলা শহরের অনেক ক্লাব কর্মকর্তার সাথেই তার সখ্যতা রয়েছে। বর্তমানে ২ ছেলে ও স্ত্রী সহ শহরের স্টেডিয়াম রোড এলাকায় বসবাস করছেন। যখনই প্রবাস থেকে নিজ জণ্মভূমিতে মনির ফিরে আসেন, দেশে এসেই সুযোগ পেলে ছুটে আসেন পুরাণবাজার মধুসূদন মাঠ, আউটার স্টেডিয়াম সহ চাঁদপুর স্টেডিয়ামে। মাঠে এসেই খোঁজ-খবর নেন খেলোয়াড়দের।



চাঁদপুর স্টেডিয়ামে অনেক দিন ধরেই কিশোর ফুটবল একাডেমির অনুশীলন চলছে। একাডেমীর প্রধান কোচ ও সাবেক ফুটবলার ইউছুফ বকাউল একাডেমীর অনুশীলনরত ছেলে ও মেয়েদের কে সকাল ও বিকেল এ দুবেলা অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছেন। এই একাডেমিতে শহরের বিভিন্ন এলাকা সহ বিভিন্ন উপজেলার এবং বাবুরহাট সরকারি শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের বিভিন্ন শিক্ষার্থীরা অনুশীলন করে যাচ্ছে। এই প্রমীলা ফুটবলারদের মধ্যে বেশীরভাগ রয়েছে খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটি ও চট্টগ্রামের বিভিন্ন পাহাড়ি এলাকার।



ক্রীড়া সংগঠক ও কাতার প্রবাসী মনির হোসেন রোববার সকালে প্রমীলা ফুটবলার দের মাঝে ট্রাউজার ও ট্রাকসুট তুলে দেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কোচ ইউছুফ বকাউল, একাডেমীর সহ-সভাপতি ও ক্রীড়া সংগঠক নুর হোসেন নুরু, তাইজঊদ্দিন তাজু বকাউল, সাবেক ফুটবলার বাদল।



চাঁদপুর কিশোর ফুটবল একাডেমীর প্রমীলা ফুটবলারদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন-সালমা, দঃহলচিং, সিমা, এম্যাওয়াই, এম্যাপ্রু, প্রুমা, ডম্যাউ, শৈখ্যাইউ, সালমা-২, ইসরাত, সামিয়া, ফেরদৌসি, মিতু, জুই, সুরাইয়া, মাহিমা, লাকি, নাদিয়াও কুলসুমা।



চাঁদপুর কিশোর ফুটবল একাডেমীর সভাপতি ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সদস্য আবু নাসের বাচ্চু পাটওয়ারী ও সাধারন সস্পাদক চাঁদপুর পৌরসভার কাউন্সিলর নাছির চোকদারের সাথে মুঠোফোনে আলাপকালে তারা বলেন, আমাদের একাডেমির মাধ্যমে আমরা শহরের বিভিন্ন ষ্কুলের শিক্ষার্থীদের নিয়ে সকাল - বিকাল দু'বেলা অনুশীলন করানো হচ্ছে। একাডেমী চালাতে তো অনেক অর্থের প্রয়োজন। আমাদের একার পক্ষে তো অনেক কিছু করা সম্ভব হয়না। কাতার প্রবাসী মনির হোসেন আমাদের একাডেমীর খেলোয়াড়দেরকে প্রায়ই সহযোগীতা করে যাচ্ছেন। তার এই সহযোগিতায় আমাদের খেলোয়াড়দের অনেক উপকার হয়। আমরা সবসময়ই এই ধরনের ক্রীড়ামনা ব্যক্তি বিশেষের সহযোগিতা প্রত্যাশা করি।



কাতার প্রবাসী ও ক্রীড়া সংগঠক মনির হোসেনের সাথে এ প্রতিবেদকের আলাপকালে তিনি বলেন, আমি সবসময়ই ভালো কাজের সাথে জড়িত থাকার চেষ্টা করি। এ জেলায় একসময় ফুটবলের অনেক জনপ্রিয়তা ছিলো। আমাদের দেশে এখন অনেক জেলাই প্রমীলা ফুটবলার সৃষ্টি হয়েছে। আমি চাই আমার চাঁদপুর জেলা থেকেও ভালো মানের ফুটবলার ও প্রমীলা ফুটবলার সৃষ্টি হয়ে এ জেলার সুনাম ছড়িয়ে দেবে। আমি ব্যাক্তিগতভাবে সবসময়ই চেষ্টা করে যাবো খেলাধূলার ক্ষেত্রে সংগঠনসহ ক্রীড়াবিদ দের সহযোগিতা করার জন্য। এজন্য আমি সকলের দোয়া ও সমর্থন প্রত্যাশা করি।



 



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৯২৪৯৭৪
পুরোন সংখ্যা