চাঁদপুর। মঙ্গলবার ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮। ২৭ ভাদ্র ১৪২৫। ৩০ জিলহজ ১৪৩৯
redcricent
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • চাঁদপুর জেলা ন্যাপের সভাপতি, চাঁদপুর ডায়াবেটিক হাসপাতালের পরিচালনা পরিষদের সদস্য আলহাজ্ব আবুল কালাম পাটওয়ারী ঢাকাস্থ ল্যাব এইড হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ..... রাজেউন)। মরহুমের নামাজের জানাজা বাদ জোহর পৌর ঈদগা মাঠে অনুষ্ঠিত হবে।
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৪১-সূরা হা-মীম আস্সাজদাহ,


৫৪ আয়াত, ৬ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


১৮। আমি উদ্ধার করলাম তাদেরকে যারা ঈমান এনেছিল এবং যারা তাকওয়া অবলম্বন করতো।


১৯। যেদিন আল্লাহর শত্রুদেরকে জাহান্নাম অভিমুখে সমবেত করা হবে সেদিন তাদেরকে তাড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হবে বিভিন্ন দলে।


২০। পরিশেষে যখন তারা জাহান্নামের সনি্নকটে পেঁৗছবে তখন তাদের কর্ণ, চক্ষু ও ত্বক (চামড়া) তাদের কৃতকর্ম সম্বন্ধে সাক্ষ্য দিবে।


দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


 


 


চমৎকার একটা নাম জীবনে কৃতিত্ব বৃহন করে না।


-আব্রাহাম কাত্তলি।


 


 


ঝগড়াটে ব্যক্তি আল্লাহর নিকট অধিক ক্রোধের পাত্র।


 


 


 


 


ফটো গ্যালারি
ঢাকায় জুনিয়র অ্যাথলেটিঙ্ প্রতিযোগিতায় অংশ নেবে চাঁদপুর জেলা দল
ক্রীড়া প্রতিবেদক
১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


বাংলাদেশ অ্যাথলেটিঙ্ ফেডারেশন আয়োজিত ৩৪তম জাতীয় জুনিয়র অ্যাথলেটিঙ্ প্রতিযোগিতায় অংশ নেবে চাঁদপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থা দল। ঢাকার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে আগামী ২৮ ও ২৯ সেপ্টেম্বর এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে।



এ প্রতিযোগিতায় চাঁদপুর জেলা অংশ নেবে বলে দল গঠনের লক্ষ্যে চাঁদপুর জেলার সকল উপজেলার অ্যাথলেটদের নিয়ে আগামী ২০ সেপ্টেম্বর বিকেল ৩টায় বাছাই কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হবে। যারা এই বাছাই কার্যক্রমে অংশ নেবে তাদেরকে ওই দিন দুপুর আড়াইটার মধ্যে জেলা ক্রীড়া সংস্থার কর্মকর্তাদের কাছে রিপোর্ট করতে হবে। বাছাই কার্যক্রমে যারা উত্তীর্ণ হবে তাদেরকে জেলা ক্রীড়া সংস্থার মাধ্যমে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করে ঢাকায় প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার জন্যে পাঠানো হবে।



চাঁদপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার অ্যাথলেটিঙ্ উপ-কমিটির সভাপতি ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটওয়ারীর সাথে আলাপকালে তিনি জানান, আমরা ঢাকায় ৩৪তম জুনিয়র অ্যাথলেটিঙ্ প্রতিযোগিতায় অংশ নেবো। এ অংশগ্রহণ উপলক্ষে ইতিমধ্যে আমরা জেলা ও উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চিঠি পাঠিয়েছি। আশা করি অংশগ্রহণকারী প্রতিযোগীরা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে এসে রিপোর্ট জমা দেবেন এবং তাদের মাঝখান থেকেই অ্যাথলেট বাছাই করে ঢাকায় পাঠানো হবে।



জেলা পর্যায়ের কয়েকজন মহিলা অ্যাথলেটের সাথে এ বিষয়ে আলাপকালে তারা জানান, ভাই! মাঝে মাঝে মনে পড়লে জেলা ক্রীড়া সংস্থা এ ধরনের আয়োজন করে থাকে। তবে এ ধরনের আয়োজন যদি নিয়মিতভাবে করা হতো তাহলে এ জেলা থেকে অনেক ভালো মানের অ্যাথলেট ঢাকায় খেলার সুযোগ পেতো। এখানে যে কয়েকবারই অ্যাথেলেটিঙ্রে আয়োজন করা হয়, গুটি কয়েকজন কর্মকর্তাকে নিয়ে দিনের কিছু সময় এ বাছাই কার্যক্রম চলে। আমি দাবি করবো, জেলা ক্রীড়া সংস্থা যদি অ্যাথলেটিঙ্রে এ কার্যক্রমটি অব্যাহত রাখে নিয়মিতভাবে, তাহলে বর্তমান সময়ের অনেক স্কুল, মাদ্রাসা ও কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা অ্যাথলেটে অংশ নিবে।



 



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৫৪৩৭৫০
পুরোন সংখ্যা