চাঁদপুর, শুক্রবার ২২ নভেম্বর ২০১৯, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৮-সূরা মুজাদালা


২২ আয়াত, ৩ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


 


 


 


 


আনন্দ এমন একটা ফল যা অনুন্নত দেশে দুষ্প্রাপ্য। -জন কেনড্রিক।


 


 


 


 


প্রত্যেক কওমের জন্য একটি পরীক্ষা আছে আর আমার উম্মতদের পরীক্ষা তাদের ধন-দৌলত।


 


 


ফটো গ্যালারি
বাণী
২২ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


প্রিন্সিপাল লেঃ কর্নেল (অবঃ)



এম আতাউর রহমান পীর



রোটারি জেলা গভর্নর (২০১৯-২০১০)



রোটারি আন্তর্জাতিক জেলা ৩২৮২, বাংলাদেশ।



প্রতিবছর ১ জুলাই থেকে বিশ্বজুড়ে রোটারি ক্লাবের সকল পর্যায়ে নেতৃত্বের পরিবর্তন ঘটে। এটা চিরাচরিত প্রথা। এ নতুন নেতৃত্বকে বরণ করাসহ সমাজ হিতৈষী ব্যক্তিদের রোটারি কর্মকা- সম্পর্কে অবহিত করে রোটারির কল্যাণমূলক কাজে তাদেরকে সম্পৃক্ত করার ইচ্ছে নিয়ে প্রতিটি ক্লাবই আনুষ্ঠানিক ভাবে আয়োজন করে অভিষেক অনুষ্ঠানের। আপনাদের ক্লাবও এর ব্যতিক্রম নয়। আজকের এই শুভদিনে বিগত বছরের ভাল কাজের জন্য সভাপতিসহ তার সহযোগিদের জানাই ধন্যবাদ আর অগ্রিম অভিনন্দন জানাই বর্তমান সভাপতিসহ তার নেতৃত্বাধীন পুরো টিমকে। কেননা আমি আশাবাদী, আপনারা বিগত বছরসমূহের যত ভাল কাজ আছে তাকে ছাড়িয়ে গিয়ে সেবা ও বন্ধুত্বের নতুন মাইলফলক অর্জন করতে সক্ষম হবেন।



বন্ধুরা, রোটারির প্রধান অগ্রাধিকার হচ্ছে নতুন সদস্য সংগ্রহ এবং একই সঙ্গে পুরাতন সদস্যদের রোটারি কর্মকা-ে সম্পৃক্তকরণের মাধ্যমে ঝরে পড়া রোধ করণ- কেননা সদস্য নেইতো ক্লাব নেই- ক্লাব নেইতো সেবা নেই। তাই প্রতিদিনই নতুন সদস্য সংগ্রহ আমাদের লক্ষ্য। ২০১৯-২০২০ বর্ষের রোটারি আন্তর্জাতিক প্রেসিডেন্ট মার্ক মেলোনি যে বিষয়গুলোকে অগ্রাধিকার দিয়েছেন সেগুলো হচ্ছে - সদস্য সংখ্যা, ক্লাব সংখ্যা ও সেবার পরিধি বৃদ্ধিসহ যুবপ্রজন্ম এবং পরিবারের সদস্যদের রোটারি কর্মকা-ে সম্পৃক্তকরণ। তার বিশ্বাস এর মাধ্যমে অদূর ভবিষ্যতে রোটারি সমৃদ্ধ হবে এবং জনসমক্ষে রোটারির ভাবমূর্তি বৃদ্ধি পাবে।



বন্ধুরা, এই রোটাবর্ষে আমাদের প্রতিটি জোনে একটি করে রোটারি এম্বুলেন্স, একাধিক রোটারি সেন্টার, কমপক্ষে তিনটি কমিউনিটি ক্লিনিক এবং একটি রোটারি অরফানেজ স্থাপনের পরিকল্পনা রয়েছে আমার। এটা আমার স্বপ্ন। আপনাদের সহযোগিতা না থাকলে এগুলো স্বপ্নই থেকে যাবে, কখনও বাস্তবরূপ লাভ করবে না। কিন্তু আমি বিশ্বাস করি আমার স্বপ্নকে বাস্তবরূপ দিতে আপনারা এগিয়ে আসবেন, কেননা আমাদের প্রতিটি রোটারিয়ান এক একজন 'পিপুল অব একশন' বা সক্রিয় কর্মীবাহিনী।



রোটারির অর্থনৈতিক ইঞ্জিন হচ্ছে 'দ্য রোটারি ফাউন্ডেশন'। এই ফাউন্ডেশন শত বছরের বেশি সময় ধরে কাজ করছে মানুষের কল্যাণে। এর তহবিল সমৃদ্ধ হয়েছে আমার, আপনার আর দানশীল ব্যক্তিদের অনুদানের মাধ্যমে। এর কর্মতৎপরতা একইভাবে চালু রাখতে হলে আমাদের অনুদানের হাতকে আরো প্রসারিত করতে হবে। আমার প্রত্যাশা আপনারা এব্যাপারে অতীতকে অতিক্রম করে নতুন রেকর্ড সৃষ্টি করবেন।



আমাদের এবছরের প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে 'রোটারির মেলবন্ধন বিশ্ব জুড়ে'। তাই আসুন, একে বাস্তব রূপ দিতে আমরা সকল রোটারিয়ান স্ব-স্ব অবস্থান থেকে সময়ের সদ্ব্যবহার করে এ পৃথিবীকে ক্ষুধা, দারিদ্র্য, অশিক্ষা, কুশিক্ষা, রোগ, অভাবসহ যাবতীয় অমঙ্গল মুক্ত সৌহাদ্র্যের স্থান হিসেবে গড়ে তুলি।



আমার বিশ্বাস, আমরা যদি আমাদের অন্তরের শুভ্রতাকে জাগিয়ে তুলতে পারি তাহলেই সমাজ আলোকিত হবে, এবং গড়ে উঠবে আমাদের প্রত্যাশিত সেই শান্তিময় বিশ্ব।



আল্লাহ আমাদের সকলের সহায় হোন।



 



প্রিন্সিপাল লেঃ কর্নেল (অবঃ) এম আতাউর রহমান পীর



 



 



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
১১৩০
পুরোন সংখ্যা