চাঁদপুর, বুধবার ২১ আগস্ট ২০১৯, ৬ ভাদ্র ১৪২৬, ১৯ জিলহজ ১৪৪০
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৪-সূরা কামার


৫৫ আয়াত, ৩ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৪৩। তোমাদের মধ্যকার কাফিরগণ কি উহাদের অপেক্ষা শ্রেষ্ঠ? না কি তোমাদের অব্যাহতির কোন সনদ রহিয়াছে পূর্ববর্তী কিতাবে?


৪৪। ইহারা কি বলে, 'আমরা এক সংঘবদ্ধ অপরাজেয় দল?


৪৫। এই দল তো শীঘ্রই পরাজিত হইবে এবং পৃষ্ঠ প্রদর্শন করিবে,


 


 


assets/data_files/web

বাণিজ্যই হলো বিভিন্ন জাতির সাম্য সংস্থাপক। -গ্লাডস্টোন।


 


 


যখন কোনো দলের ইমামতি কর, তখন তাদের নামাজকে সহজ কর।


 


 


 


ফটো গ্যালারি
মোটা হওয়ার ঝুঁকি বাড়ায় স্মার্টফোন
২১ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


স্মার্টফোন এখন প্রায় সকলেরই প্রিয় অনুষঙ্গ। সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে চলতে এক মুহূর্তের জন্যেও মুঠোফোনকে হাতছাড়া করতে চান না অনেকেই। শিক্ষার্থীদের মধ্যে এ প্রবণতা আরো বেশি। পড়াশোনা শিকেয় তুলে অনেকেই ব্যস্ত থাকেন স্মার্টফোন নিয়ে।



তবে এবার গবেষকেরা জানালেন, শিক্ষার্থীদের মধ্যে যারা দিনে পাঁচ ঘণ্টা বা তার বেশি সময় ধরে স্মার্টফোন ব্যবহার করেন, তাদের মুটিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। গবেষকদের বর্ণিত অন্যান্য উপসর্গগুলো থাকলে একজন শিক্ষার্থী হৃদরোগেও ভুগতে পারেন।



হিন্দুস্তান টাইমস্রে প্রতিবেদন জানাচ্ছে, গবেষকেরা কলম্বিয়ার ১ হাজার ৬০ জন শিক্ষার্থীর ওপর গবেষণা পরিচালনা করেন। শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৭শ' জন মেয়ে ও ৩শ' ৬০ জন ছেলে ছিলো। তাদের প্রত্যেকের বয়স ছিলো ১৯ থেকে ২০ বছরের মধ্যে।



কলম্বিয়ার সিমন বলিভার ইউনিভার্সিটির শিক্ষক, গবেষণা-নিবন্ধের প্রধান লেখক মিরারি মন্টিলা-মরন বলেছেন, এটি সর্বসাধারণের জানা উচিত ও সচেতন হওয়া দরকার যে, সহজে বহনযোগ্য, অবিরাম সেবা, তথ্য ও বিনোদনের উৎসসহ নানাবিধ উদ্দেশ্যে ব্যবহারের জন্যে নিঃসন্দেহে মুঠোফোন আকর্ষণীয় হওয়া সত্ত্বেও স্বাস্থ্যকর আচরণ ও অভ্যাস উন্নয়নে মুঠোফোন প্রযুক্তি ব্যবহার হওয়া উচিত।



নিবন্ধে বলা হয়, দিনে পাঁচ ঘণ্টা বা তার বেশি স্মার্টফোন ব্যবহারের ফলে মুটিয়ে যাওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যায় ৪৩ শতাংশ। গবেষণায় অংশগ্রহণকারীরা অবশ্য এর সঙ্গে চিনিযুক্ত পানীয়, ফাস্ট ফুড, মিষ্টি, সস্ন্যাকস গ্রহণ করেন এবং কম শরীরচর্চা করেন।



গবেষকেরা জানান, অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে যারা দিনে পাঁচ ঘণ্টা বা তার বেশি সময় ধরে স্মার্টফোন ব্যবহার করেন, তাদের ২৬ শতাংশের ওজন অতিরিক্ত ও ৪.৬ শতাংশ স্থুলকায়।



নিবন্ধে আরো বলা হয়েছে, অতিরিক্ত স্মার্টফোন ব্যবহার কর্মবিমুখ করে তোলে, তাতে শারীরিক কর্মকা-ের মাত্রা কমে যায়, যা অকালমৃত্যু, ডায়বেটিস, হৃদরোগ ও বিভিন্ন ধরনের ক্যানসারের কারণ হতে পারে।



দিলি্লর নিকটবর্তী শহর নয়ডার জয়পি হাসপাতালের সার্জিক্যাল গ্যাস্ট্রোএন্টারোলজি বিভাগের ডাঃ রাজেশ কাপুর বলেন, স্মার্টফোন ব্যবহার এখন আর বিলাসিতা নয়, প্রয়োজনীয়তা। কিন্তু এর অতিরিক্ত ব্যবহার স্বাস্থ্যকর জীবনকে ঝুঁকিতে ফেলতে পারে।



বার্তা সংস্থা আইএএনএসকে রাজেশ বলেন, মুঠোফোন ব্যবহারের সময় কমিয়ে আনতে নিজেকে উৎসাহিত করা উচিত, সেইসঙ্গে যোগব্যায়াম বা অন্যান্য শারীরিক ব্যায়ামে নিজেকে সম্পৃক্ত করা উচিত।



বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পাঁচ ঘণ্টা বা কী পরিমাণ সময় স্মার্টফোনে ব্যয় হলো সে প্রশ্ন নয়, প্রশ্ন হচ্ছে একজন ব্যক্তি কতটুকু সময় শারীরিকভাবে সক্রিয়। অতিমাত্রায় মুঠোফোন ব্যবহার শরীরচর্চা থেকে দূরে রাখে। তাই মুটিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনাও বেড়ে যায়।



 



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৯০২৭৬২
পুরোন সংখ্যা