চাঁদপুর। বুধবার ১৫ আগস্ট ২০১৮। ৩১ শ্রাবণ ১৪২৫। ৩ জিলহজ ১৪৩৯
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৪০-সূরা আল মু’মিন

৮৫ আয়াত, ৯ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

৪৫। অতঃপর আল্লাহ তাকে তাদের চক্রান্তের অনিষ্ট থেকে রক্ষা করলেন এবং ফেরাউন গোত্রকে শোচনীয় আযাব গ্রাস করলো।

৪৬। সকালে ও সন্ধ্যায় তাদেরকে আগুনের সামনে পেশ করা হয় এবং যেদিন কেয়ামত সংঘটিত হবে সেদিন আদেশ করা হবে, ফেরাউন গোত্রকে কঠিনতর আযাবে দাখিল কর।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন





 


কোনো মহৎ লোকের জীবনই বৃথা যায় না।

-ডব্লিউ এস ল্যান্ডার।


মজুরের গায়ের ঘাম শুকাবার আগেই তার মজুরি দিয়ে দাও।



 


ফটো গ্যালারি
কাতারে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয়েছে
ইউসুফ পাটোয়ারী লিংকন, কাতার
১৫ আগস্ট, ২০১৮ ১৩:১১:৫৮
প্রিন্টঅ-অ+


কাতারে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয়েছে।



১৫ই আগস্ট স্থানীয় সময় সকাল ৯টায় জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করার মধ্য দিয়ে দিবসের কার্যক্রম শুরু হয়। কর্মসূচির দ্বিতীয় পর্বে দূতাবাসে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদের সভাপতিত্বে ও প্রথম সচিব নাজমুল হাসান সোহাগের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে কুরআন তেলাওয়াত করেন অনুবাদক আব্দুল জলিল। এরপর রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করে শোনান দূতাবাসে কাউন্সিলরা।



সভায় ১৫ আগস্টে বঙ্গবন্ধুসহ নিহতদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন ও তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।



এছাড়াও রাষ্ট্রদূতের নেতৃত্বে দূতাবাসের পক্ষ থেকে ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, শ্রমিক লীগ, যুবলীগ, নবীন লীগ কাতার শাখার নেতৃবৃন্দ সারিবদ্ধভাবে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।



আলোচনা পর্বে বক্তারা বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও মুক্তিসংগ্রাম এবং বাঙালি জাতি গঠনে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্ব ও অবদানের কথা তুলে ধরেন।



বঙ্গবন্ধুর জীবনাদর্শ ও জনমানুষের জন্য ত্যাগ ও সংগ্রামের চেতনা বুকে ধারণ করে জাতীয় উন্নয়নে অবদান রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন প্রবাসী বক্তারা।



কাতারে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদ তার সমাপনী বক্তব্যে বঙ্গবন্ধুর স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করে বলেন, বঙ্গবন্ধুর দূরদর্শী ও সাহসী নেতৃত্বে বাংলাদেশ স্বাধীনতা ও মুক্তি অর্জন করেছে। তিনি বাঙালি জাতীয়তাবাদের বিকাশে এবং বাঙালি জাতি গঠনে বঙ্গবন্ধুর অবদানের কথা তুলে ধরেন। একটি গর্বিত জাতি স্বতন্ত্র পরিচয়ে পৃথিবীর বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়ানোর যে দুর্লভ সম্মান বাঙালি পেয়েছে, তার জন্য সমগ্র জাতি তার প্রতি চিরকৃতজ্ঞ- চিরঋণী বলে তিনি উল্লেখ করেন।


আজকের পাঠকসংখ্যা
৯৩৬৩৯৮
পুরোন সংখ্যা