চাঁদপুর, শনিবার ২৩ মে ২০২০, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ২৯ রমজান ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • চাঁদপুরে আরো ১২ জনের করোনা শনাক্ত, মোট আক্রান্ত ১৫৯
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬৯-সূরা হাক্কা :


৫২ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


১৬। এবং আকাশ বিদীর্ণ হইয়া যাইবে আর সেই দিন উহা বিশ্লিষ্ট হইয়া পরিবে।


১৭। ফিরিশ্তাগণ আকাশের প্রান্তদেশে থাকিবে এবং সেই দিন আটজন ফিরিশ্তা তোমার প্রতিপালকের আরশকে ধারণ করিবে তাহাদের ঊধর্ে্ব।


 


বেদনা হচ্ছে পাপের শাস্তি।


-বুদ্ধদেব।


 


 


স্বভাবে নম্রতা অর্জন কর।


 


চাঁদপুরে করোনাভাইরাসে আরো ১২ জনসহ মোট আক্রান্ত ১৩০ জন
২৩ মে, ২০২০ ২৩:১৬:৫২
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুরে ২৩ মে সন্ধ্যায় আরো ৪৫ জনের রিপোর্ট এসেছে এর মধ্যে ১২ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। এদের মধ্যে ফরিদগঞ্জের ১ জন, চাঁদপুর সদরের ১১। এর মধ্যে চাঁদপুর শহরেই ১০ জন, বালিয়া ইউনিয়নে ১ জন।



এর আগে সকালে ৭জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে ২ জন পুলিশ সদস্য ও ২ জন ঔষধ কোম্পানীর প্রতিনিধি রয়েছেন। উপজেলাভিত্তিক নতুন আক্রান্তের সংখ্যা হলো : চাঁদপুর সদরে ৪ জন, কচুয়ায় ১জন, ফরিদগঞ্জে ১জন ও হাজীগঞ্জে ১জন।





এ নিয়ে জেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩০ জন। মৃতের সংখ্যা ১১ জন। সুস্থ হয়েছেন ২১ জন। চাঁদপুর সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে শনিবার দুপুরে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।



চাঁদপুর সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সাজেদা বেগম পলিন চাঁদপুর কণ্ঠকে জানান, শনিবার শনাক্তকৃত ৪ জনের মধ্যে রয়েছেন  পুলিশ লাইনে কর্মরত ১  পুলিশ সদস্য, ব্যাংক কলোনীর  ঔষধ কোম্পানীর প্রতিনিধি ১ জন, পুরাণবাজার ঘোষপাড়া এলাকার এক যুবক, গণি স্কুলের পেছনের ১ জন।



এ পর্যন্ত সারা জেলার ১৩০ জন করোনা রোগীর মধ্যে ৭৭ জন’ই চাঁদপুর সদর উপজেলার। শুধুমাত্র চাঁদপুর পৌর এলাকার রোগী সংখ্যা ৭০ জন। যা সারা জেলার মোট রোগীর অর্ধেকেরও বেশি। সদর উপজেলায় এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ৪জন।



সিভিল সার্জন অফিসে সূত্র আরো জানায়, সন্ধ্যায় ৪৫ জনের রিপোর্ট এসেছে তার মধ্যে ১২ জনের করোনা পজিটিভ। ২৩ মে শুক্রবার সকালে ৪৭ জনের নমুনা টেস্টের রিপোর্ট এসেছিলো। এর মধ্যে ৭ জন পজেটিভ ছিলো। আর বাকী ৪০জনের রিপোর্ট করোনা নেগেটিভ। চাঁদপুরে জেলায় বর্তমানে করোনায় আক্রান্ত ১৩০জনের উপজেলাভিত্তিক পরিসংখ্যান হলো : চাঁদপুর সদরে ৭৭, ফরিদগঞ্জে ১৬, মতলব উত্তরে ৬, হাজীগঞ্জে ৭, মতলব দক্ষিণ ৬, কচুয়ায় ৮, শাহরাস্তিতে ৮ ও হাইমচরে ২জন।



এদিকে কচুয়ায় আক্রান্ত ব্যক্তি কচুয়া থানায় কর্মরত একজন এসআই। অন্যদিকে ফরিদগঞ্জে আক্রান্ত ব্যক্তি একটি ঔষধ কোম্পানীর প্রতিনিধি (২৯)। তার বাড়ি অন্য জেলায় হলেও কর্মসূত্রে তিনি ফরিদগঞ্জে থাকেন। এছাড়া হাজীগঞ্জে আক্রান্ত ব্যক্তির তথ্য এখনো উপজেলায় পৌঁছায়নি বলে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা জানিয়েছেন।


আজকের পাঠকসংখ্যা
৫৬৯১৭৯৮
পুরোন সংখ্যা