চাঁদপুর, রোববার ১৮ অক্টোবর ২০২০, ২ কার্তিক ১৪২৭, ৩০ সফর ১৪৪২
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • --
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৭৯-সূরা নাযি 'আত


৪৬ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


৫। অতঃপর যাহারা সকল কর্ম নির্বাহ করে।


৬। সেই দিন প্রথম শিংগাধ্বনি প্রকম্পিত করিবে,


৭। উহাকে অনুসরণ করিবে পরবর্তী শিংগাধ্বনি,


৮। কত হৃদয় সেই দিন সন্ত্রস্ত হইবে,


 


 


assets/data_files/web

যারা কখনো ক্ষতিগ্রস্ত হতে চায় না, তারা কোনোদিন লাভবান হতে পারে না।


-ডেভিড জেফারসন।


 


 


 


 


কাউকে অভিশাপ দেওয়া সত্যপরায়ণ ব্যক্তির উচিত নয়।


 


 


ফটো গ্যালারি
শাহরাস্তিতে গৃহবধূকে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে স্বামী, শ্বশুর, শাশুড়ি ও ননদ আটক
মোঃ মঈনুল ইসলাম কাজল
১৮ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


শাহরাস্তি থেকে গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। ১৫ অক্টোবর রাতে শাহরাস্তি উপজেলার টামটা উত্তর ইউনিয়নের ইছাপুরা গ্রামের নলুয়া বাড়িতে থেকে গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। শুক্রবার সকালে মরদেহটি ময়না তদন্তের জন্য চাঁদপুর প্রেরণ করা হয়। ময়না তদন্ত শেষে মৃতদেহটি বিকেলে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এ ঘটনায় গৃহবধূর স্বামীসহ ৪ জনকে আটক করা হয়েছে। তারা হলেন স্বামী মহিউদ্দিন (২৬), শ্বশুর হারুনুর রশিদ (৫৫), শাশুড়ি আয়শা বেগম (৪৫) ও ননদ হাসনা আক্তার (১৭)।



পরিবারিক সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সালে কুমিল্লা জেলার চান্দিনা উপজেলার জোয়াগ ইউনিয়নের কৈলাইন গ্রামের পূর্ব গাজী বাড়ির আলী হাসানের একমাত্র কন্যা হাবিবা আক্তার রিয়া মনির (২০) বিয়ে দেয়া হয় চাঁদপুর জেলার শাহরাস্তি উপজেলার টামটা উত্তর ইউনিয়নের ইছাপুরা গ্রামের নলুয়া বাড়ির হারুনুর রশিদের পুত্র মহিউদ্দিনের সাথে। রিয়া মনির একমাত্র ভাই রিয়াদ আহম্মেদ জানান, আমার বোন সুন্দরী দেখে তার শ্বশুর পক্ষের লোকজন কিছু দাবি ছাড়াই আমাদের সাথে আত্মীয়তা করে। তারপরও আমরা তাকে প্রয়োজনীয় আসবাবপত্রসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র প্রদান করি। বিয়ের পর তাদের সাংসারিক জীবন ভালোভাবেই কাটছিলো। কিছু দিন অতিবাহিত হওয়ার পর আমার বোনকে তার স্বামী মহিউদ্দিন ঢাকার জিগাতলায় তার কর্মস্থলে নিয়ে যায়। ২০১৯ সালের ২৮ জুলাই তাদের সংসারে একটি কন্যা সন্তান জন্মগ্রহণ করে। সম্প্রতি করোনাকালীন সময়ে তার পরিবারের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে তার পরিবারকে তার স্বামী দেশের বাড়িতে রেখে যায়। সেই থেকে রিয়া মনি পরিবারের সদস্যদের সাথে বসবাস করে আসছিল। কিছুদিন যেতে না যেতে রিয়ার শ্বশুর পক্ষের লোকজন তাকে যৌতুকের টাকার জন্য চাপ প্রয়োগ করে। তারপর রিয়ার বাবা আলী হাসান তার মেয়ের সুখের জন্য রিয়ার শ্বশুর পক্ষকে দেড় লাখ টাকা দেন। তরপরও রিয়া মনিকে শ্বশুর পক্ষের লোকজন মানসিকভাবে নির্যাতন চালাতো বলে রিয়ার পরিবার জানায়। ঘটনার দিন সন্ধ্যায় রিয়ার শ্বশুর, শাশুড়ি, ননদ একটি হলুদ অনুষ্ঠানে যায়। সেখান থেকে ফিরে এসে তারা রিয়ার কোনো সাড়া শব্দ না পেয়ে ঘরের দরজা খুলে রিয়াকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায়। এ ঘটনায় আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগ এনে রিয়ার মা রেহেনা বেগম একটি মামলা দায়ের করেছেন। রাতেই শাহরস্তি থানা পুলিশ ৪ জনকে আটক করেছে। শাহরাস্তি থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শাহ আলম জানান, নিহতের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে একটি মামলা রুজু করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে আসলে পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। রিয়া ১৫ মাসের একটি অবুঝ সন্তান রেখে কেন আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে সেই গুঞ্জন এলাকাবাসীর মধ্যে। তবে কারো কারো দাবি, রিয়াকে হত্যা করে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে।



 



 


এই পাতার আরো খবর -
করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ৩,৮৭,২৯৫ ৩,৯৬,৩৮,১৮৮
সুস্থ ৩,০২,২৯৮ ২,৯৬,৭৮,৪৪৬
মৃত্যু ৫,৬৪৬ ১১,০৯,৮৩৮
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
২৯৮৬০
পুরোন সংখ্যা