চাঁদপুর, রোববার ৭ জুন ২০২০, ২৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ১৪ শাওয়াল ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৭১-সূরা নূহ্


২৮ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


১৭। তিনি তোমাদিগকে উদ্ভূত করিয়াছেন মৃত্তিকা হইতে।


১৮। অতঃপর উহাতে তিনি তোমাদিগকে প্রত্যাবৃত্ত করিবেন ও পরে পুনরুত্থিত করিবেন,


১৯। এবং আল্লাহ তোমাদের জন্য ভূমিকে করিয়াছেন বিস্তৃত


 


assets/data_files/web

যুগ যতই নূতন হোক পুরাতনের অভিজ্ঞতা ছাড়া তা অচল।-ডেফে।


 


 


যিনি বিশ্বমানবের কল্যাণ সাধন করেন, তিনিই সর্বশ্রেষ্ঠ মানুষ।


 


 


ফটো গ্যালারি
ফেসবুকে গুজব ছড়ানোর দায়ে
হাজীগঞ্জে র‌্যাব কর্তৃক একজন গ্রেফতার
প্রেস বিজ্ঞপ্তি
০৭ জুন, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


র‌্যাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সমাজের বিভিন্ন অপরাধের উৎস উদ্ঘাটন, অপরাধীদের গ্রেফতারসহ আইনশৃঙ্খলার সামগ্রিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বিভিন্ন অপরাধীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার জন্য র‌্যাব ফোর্সেস নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে থাকে। সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন কুচক্রী মহল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ধর্মীয় সম্প্রীতি নষ্ট করার অপচেষ্টা এবং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন গুজব ছড়িয়ে দেশের আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করার চেষ্টা চালিয়ে আসছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব রটানো সম্পর্কিত অপরাধ দমনের লক্ষ্যে র‌্যাব অত্যন্ত পেশাদারিত্বের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেফতার ও আইনের আওতায় আনার জন্য নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় গোপন তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-১১-এর একটি আভিযানিক দল গত ৫ জুন গভীর রাতে হাজীগঞ্জ থানাধীন মোসামুরা এলাকায় একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে। উক্ত অভিযানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ধর্মীয় সম্প্রীতি নষ্ট করার অপচেষ্টা এবং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বিরুদ্ধে গুজব ছড়িয়ে দেশের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করার অপচেষ্টা চালানোর দায়ে একজনকে আটক করা হয়। আটককৃত ব্যক্তি হাজীগঞ্জ থানার মোসামুরা গ্রামের মোঃ ইমান হোসেনের ছেলে মোঃ জুলহাস হোসেন (১৮)। এ সময় তার হেফাজত হতে ১টি খঅঠঅ অহফৎড়রফ মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। উক্ত মোবাইল ফোনে ধৃত আসামী মোঃ জুলহাস হোসেন (১৮) ৯ থেকে ১০টি ফেসবুক আইডি পরিচালনা করে। এছাড়া বেশ কয়েকটি ফেসবুক পেজের এডমিন/মডারেটর সে। ধৃত আসামী মোঃ জুলহাস হোসেন (১৮) মানব সমাজ নামের একটি ফেসবুক পেজের এডমিন/মডারেটর। উক্ত পেইজ থেকে বিভিন্ন সময় ধর্র্মীয় সম্প্রীতি নষ্ট করে দেশকে অস্থীতিশীল করার জন্যে বিভিন্ন উস্কানিমূলক পোস্ট দেয়।



উল্লেখ্য যে, উক্ত ফেসবুক পেইজের পূর্বের নাম ছিল 'জা-মা-য়া-ত'। এছাড়াও তার অন্যান্য ফেসবুক পেইজ থেকেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ধর্মীয় সম্প্রীতি নষ্ট করার অপচেষ্টা চালানোসহ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার সম্পর্কে বিভিন্ন মিথ্যা, বিভ্রান্তিকর গুজব ও মানহানিকর অপপ্রচার চালানোর প্রমাণ পাওয়া যায়। গ্রেফতারকৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদ ও প্রাথমিক অনুসন্ধানে সে উপরে বর্ণিত অপরাধ করেছে বলে স্বীকার করে। গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে হাজীগঞ্জ থানায় আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
২৭৯৫০
পুরোন সংখ্যা