চাঁদপুর, শনিবার ৬ জুন ২০২০, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ১৩ শাওয়াল ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • --
মাফিয়া ডন দাউদ ইব্রাহিম সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্ত!
০৬ জুন, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


অপরাধ জগতের মুকুটহীন সম্রাট বলে কুখ্যাত দাউদ ইব্রাহিম সস্ত্রীক করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়েছেন বলে খবর ছড়িয়েছে। পাকিস্তান সরকারের 'ঊর্ধ্বতন সূত্রের' বরাত দিয়ে এ খবর ছড়িয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম।



শুক্রবার (৫ জুন) ভারতের বেশ ক'টি সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, ভারতের গোয়েন্দা সংস্থা ও কূটনীতির জাল এখন পর্যন্ত দাউদ ইব্রাহিমকে ছুঁতে না পারলেও করোনাভাইরাস তাকে কাবু করেছে। তার স্ত্রী মেহজাবিনও আক্রান্ত হয়েছেন করোনায়। পাশাপাশি এই মাফিয়া ডনের ব্যক্তিগত এক দেহরক্ষী এবং একজন কর্মীও ভাইরাসটির থাবায় পড়েছেন। যদিও পাকিস্তান সরকার এ বিষয়ে কিছু বলছে না।



১৯৯৩ সালের ১২ মার্চ ভারতে সবচেয়ে বড় নাশকতা ঘটে। সেদিন মুম্বাইয়ের বেশ কয়েকটি জায়গায় ধারাবাহিক বিস্ফোরণ ঘটানো হয়, যার মূল হোতা হিসেবে আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন দাউদ ইব্রাহিমের নাম উঠে আসে। ভারত মনে করে, মুম্বাইয়ে জন্ম নেয়া দাউদ ইব্রাহিম পাকিস্তানেই লুকিয়ে আছেন। যদিও বরাবরের মতোই পাকিস্তান এ অভিযোগ নাকচ করে দিয়ে আসছে।



ভারতের সংবাদমাধ্যম দাবি করছে, করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর করাচির সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে দাউদের। পাকিস্তান সরকারের বিভিন্ন পর্যায় তার খোঁজ-খবর রাখছে।



২০০৩ সালে দাউদ ইব্রাহিমকে 'বৈশি্বক সন্ত্রাসী' বলে আখ্যা দেয় ভারত। যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই দাউদ ইব্রাহিমকে বিশ্বের শীর্ষ ১০ পলাতক 'মোস্ট ওয়ান্টেড সন্ত্রাসী'র তালিকায় রেখেছে। নয়াদিলি্ল মনে করে, পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই দাউদ ইব্রাহিমকে বাঁচানোর ঢাল হয়ে দাঁড়িয়েছে বারবার। সূত্র : জাগো নিউজ।


হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬৯-সূরা হাক্কা :


৫২ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


৩৪। এবং অভাবগ্রস্তকে অন্নদানে উৎসাহিত করিত না,


৩৫। অতএব এইদিন সেথায় তাহার কোন সুহৃদ থাকিবে না,


৩৬। এবং কোন খাদ্য থাকিবে না ক্ষত নিঃসৃত স্রাব ব্যতীত,


 


 


 


অতিরিক্ত চাহিদাই মানুষের পতনকে ডেকে আনে।


-জন অলকৃট।


 


 


 


মানবতাই মানুষের শ্রেষ্ঠতম গুণ।


 


 


 


 


ফটো গ্যালারি
করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ৪,৩৬,৬৮৪ ৫,৫৪,২৮,৫৯৬
সুস্থ ৩,৫২,৮৯৫ ৩,৮৫,৭৮,৭০৩
মৃত্যু ৬,২৫৪ ১৩,৩৩,৭৭৮
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৪৬৪৬৭৬
পুরোন সংখ্যা