চাঁদপুর, শনিবার ২৩ মে ২০২০, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ২৯ রমজান ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • মতলব উত্তরের আমিরাবাদ এলাকায় মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্পের মুল বেড়িবাঁধে মেঘনার আকস্মিক ভাঙ্গন শুরু
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬৯-সূরা হাক্কা :


৫২ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


১৬। এবং আকাশ বিদীর্ণ হইয়া যাইবে আর সেই দিন উহা বিশ্লিষ্ট হইয়া পরিবে।


১৭। ফিরিশ্তাগণ আকাশের প্রান্তদেশে থাকিবে এবং সেই দিন আটজন ফিরিশ্তা তোমার প্রতিপালকের আরশকে ধারণ করিবে তাহাদের ঊধর্ে্ব।


 


বেদনা হচ্ছে পাপের শাস্তি।


-বুদ্ধদেব।


 


 


স্বভাবে নম্রতা অর্জন কর।


 


ফটো গ্যালারি
ঈদের ছুটিতে চাঁদপুরের স্বাস্থ্য বিভাগের কার্যক্রম স্বাভাবিক থাকবে
-----------------সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ সাখাওয়াত উল্লাহ
চাঁদপুর কণ্ঠ রিপোর্ট
২৩ মে, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


বর্তমান করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে সারাদেশে স্বাস্থ্য বিভাগের কার্যক্রম যে অবস্থায় আছে ঈদের ছুটিতেও সে অবস্থায়ই থাকবে। সে ধারবাহিকতা চাঁদপুর জেলায়ও বজায় রাখা হবে। এমন স্বস্তির খবর জানালেন চাঁদপুরের সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ সাখাওয়াত উল্লাহ।



করোনাভাইরাসে চাঁদপুর জেলার পরিস্থিতি বর্তমানে খুব ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছে বলা যায়। প্রতিদিনই আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। এ অবস্থায় আসছে ঈদুল ফিতর। সরকারিভাবে ঈদের ছুটি থাকলেও স্বাস্থ্য বিভাগকে এর আওতার বাইরে রাখা হয়েছে। ঈদের ছুটিতে করোনা ভাইরাস নিয়ে চাঁদপুর জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের কী প্রস্তুতি থাকবে সে বিষয়ে কথা হয় সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ সাখাওয়াত উল্লাহর সাথে। তিনি জানান, বর্তমানে স্বাস্থ্য বিভাগের কার্যক্রম যে অবস্থায় আছে, ঈদের ছুটিতেও সে অবস্থায় থাকবে। এটি সরকারের নির্দেশনা। যেহেতু চাঁদপুর সহ সারাদেশে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বেড়েই চলছে সেজন্যে স্বাস্থ্য বিভাগে কোনো ধরনের ছুটি নেই। তারপরও যদি কোনো চিকিৎসক অনিবার্য কারণে ২/১ দিনের ছুটিতে যান, তার জায়গায় অন্য চিকিৎসককে দায়িত্ব দেয়া হবে। তাই জনগণকে এটি নিয়ে চিন্তিত না হওয়ার জন্যে সিভিল সার্জন অনুরোধ জানিয়েছেন। একই সাথে তিনি চাঁদপুর জেলাবাসীর প্রতি অনুরোধ জানিয়ে বলেন, চাঁদপুরের পরিস্থিতি ক্রমান্বয়ে ভয়াবহের দিকে যাচ্ছে। তাই সকলকে অবশ্যই স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার কোনো বিকল্প নেই।



 



 


এই পাতার আরো খবর -
করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ৩,৩৯,৩৩২ ২,৯২,০১,৬৮৫
সুস্থ ২,৪৩,১৫৫ ২,১০,৩৫,৯২৬
মৃত্যু ৪,৭৫৯ ৯,২৮,৬৮৬
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
১০৪৪০৪৩
পুরোন সংখ্যা