চাঁদপুর, বৃহস্পতবিার ২৩ জানুয়ারি ২০২০, ৯ মাঘ ১৪২৬, ২৬ জমাদউিল আউয়াল ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • --
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬৪-সূরা তাগাবুন


১৮ আয়াত, ২ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


৮। অতএব তোমরা আল্লাহ, তাঁহার রাসূল ও যে জ্যোতি আমি অবতীর্ণ করিয়াছি তাহাতে বিশ্বাস স্থাপন কর। তোমাদের কৃতকর্ম সম্পর্কে আল্লাহ সবিশেষ অবহিত।


 


assets/data_files/web

গণমানুষকে জাগিয়ে তোলার জন্য কবিতা অস্ত্রস্বরূপ।


-কাজী নজরুল ইসলাম।


 


 


প্রত্যেক কওমের জন্য একটি পরীক্ষা আছে এবং আমার উম্মতদের পরীক্ষা তাদের ধন-দৌলত।


 


ফটো গ্যালারি
চাঁদপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি
পরিচালক পদে প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিলের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা
এমকে মানিক পাঠান
২৩ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২-এর আওতায় এলাকা নং-৩-এর পরিচালক পদে নির্বাচন করতে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছিলেন জাকির হোসেন পাটওয়ারী। কিন্তু মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাইয়ে জাকির হোসেনের মনোনয়ন অবৈধ ঘোষণা করেন নির্বাচন কমিশন। তবে কী কারণে সেটি অবৈধ করা হলো তা সুনির্দিষ্টভাবে তাকে জানানো হয়নি অভিযোগ এনে নির্বাচন স্থগিত এবং একক প্রার্থী হিসেবে নূরনবী পাটওয়ারীকে নির্বাচিত ঘোষণা না দেয়ার জন্যে ২১ জানুয়ারি চাঁদপুরের বিজ্ঞ আদালতে পিটিশন মামলা দায়ের করেছেন। বিজ্ঞ আদালত ওই অভিযোগ আমলে নিয়ে চাঁদপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২-এর নির্বাচন কমিশন ও সহকারী নির্বাচন কমিশনারকে আগামী ৭ দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদান করেছে।



আদালতে দায়েরকৃত অভিযোগ ও প্রার্থী জাকির হোসেন থেকে জানা যায়, চাঁদপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-০২-এর আওতায় এলাকা নং-৩-এর পরিচালক পদে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন রিটার্নিং অফিসার ও নির্বাচন কমিশন প্রধান। সেমতে ৩ ও ৪ ডিসেম্বর মনোনয়ন ক্রয়ের তারিখ নির্ধারণ করেন। ৫ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ তারিখ নির্ধারণ ছিলো। তারই প্রেক্ষিতে পরিচালক পদে প্রার্থী মোঃ জাকির হোসেন (পিতা মোঃ ওয়াজিদ উল্যাহ পাটওয়ারী সাং কাওনিয়া) ও মোঃ নুরুন নবী পাটওয়ারী (পিতা মৃত জয়নাল আবেদিন পাটওয়ারী সাং পশ্চিম বড়ালী) এ দু'জন যথাসময়ে যথা নিয়মে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করে সম্পূর্ণ নিয়মকানুন মেনে জমা প্রদান করেন। গত ১০ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ের দিন নির্ধারণ ছিলো। প্রার্থীদ্বয়ের উপস্থিতিতে মনোনয়ন যাচাই-বাছাইয়ের ফলাফল প্রকাশ করে নির্বাচন কমিশন। ঘোষিত ফলাফলে দেখা যায়, জাকির হোসেনের মনোনয়ন অবৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। কিন্তু কী কারণে কেনো মনোনয়নটি অবৈধ ঘোষণা করা হলো সেটা জাকির হোসেন নির্বাচন কমিশনের কাছে জানতে চাইলে রহস্যজনক কারণে লিখিত বা মৌখিক কোনো কারণ জানানো হয়নি এবং এক পর্যায়ে অপারগতা স্বীকার করা হয়।



এ বিষয়ে মোঃ জাকির হোসেনের সাথে কথা হলে তিনি জানান, আমি নিরূপায় হয়ে সুবিচারের জন্য আদালতের শরণাপন্ন হয়েছি। আমি আশা করি নির্বাচন কমিশন আদালতের দেয়া আদেশের প্রতি সম্মান জানিয়ে আমার বিষয়গুলো আদালতের মাধ্যমে আমাকে অবহিত করবেন।


আজকের পাঠকসংখ্যা
১১২৪৫৯৩
পুরোন সংখ্যা