চাঁদপুর, বুধবার ২২ জানুয়ারি ২০২০, ৮ মাঘ ১৪২৬, ২৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • --
কাদের পলাশ ও মুহাম্মদ ফরিদ হাসানের সম্পাদনায়
সওগাত সম্পাদককে নিয়ে প্রকাশিত হলো 'বিরুদ্ধ স্রোতের মোহাম্মদ নাসিরউদ্দীন'
সংকলনটি গুরুত্ববহ : ড. আনিসুজ্জামান
চাঁদপুর কণ্ঠ রিপোর্ট
২২ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুরের জন্ম নেয়া সওগাত সম্পাদক মোহাম্মদ নাসিরউদ্দীন বাংলা ভাষা ও সাহিত্যে কেবল একটি নাম নয়, তিনি নিজেই একটি যুগের স্রষ্টা, একটি ইতিহাস। তাঁর কর্ম, অপরিসীম সাহস, নিবেদিত নিরলস প্রচেষ্টা চিন্তাশীল মানুষের কাছে এখনো বিস্ময় জাগানিয়া। সমাজের কুসংস্কার, অশিক্ষা, ধর্মান্ধতার বিরুদ্ধে তাঁর লড়াই ছিল আমৃত্যু। সম্প্রতি তাঁকে নিয়ে প্রকাশিত হলো 'বিরুদ্ধ স্রোতের মোহাম্মদ নাসিরউদ্দীন'। গ্রন্থটি সম্পাদনা করেছেন গল্পকার কাদের পলাশ ও মুহাম্মদ ফরিদ হাসান। চলতি মাসে বইটি প্রকাশ করেছে পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স।



বইটির শুরুতে সংক্ষিপ্ত ভূমিকা লিখেছেন জাতীয় অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান। তিনি লিখেছেন, "আমাদের সমাজ, সাহিত্য ও সাংবাদিকতার জগতে মোহাম্মদ নাসিরউদ্দীনের নাম চিরস্মরণীয়। সমাজে বিদ্যমান কুসংস্কারের বিরুদ্ধে, নারীমুক্তির জন্যে এবং মুক্তবুদ্ধিকে উৎসাহিত করতে তাঁর ভূমিকা শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণীয়। মোহাম্মদ নাসিরউদ্দীন, তাঁর সম্পাদিত 'সওগাত' পত্রিকা, বেগম রোকেয়া ও নজরুল ইসলামের সঙ্গে তাঁর সাহচর্য প্রভৃতি সম্পর্কে গুণীজনদের আলোচনা নিয়ে কাদের পলাশ ও মুহাম্মদ ফরিদ হাসানের সম্পাদনায় 'বিরুদ্ধ স্রোতের নাসিরউদ্দীন' গ্রন্থটি প্রকাশ পেতে যাচ্ছে। সংকলনটি গুরুত্ববহ।"



লেখকদের ভূমিকায় কাদের পলাশ ও মুহাম্মদ ফরিদ হাসান লিখেছেন : আমাদের সমাজ, ভাষা, সাহিত্য, নারী অধিকার নিয়ে মোহাম্মদ নাসিরউদ্দীনের কর্ম কালজয়ী হলেও তাঁকে নিয়ে আমাদের দেশে ওই অর্থে কোনো গবেষণা হয়নি। আমাদের জানা মতে, এ পর্যন্ত তাঁর সমগ্র জীবন ও কর্ম নিয়ে কোনো একক গ্রন্থ প্রকাশিত হয়নি। এ সীমাবদ্ধতা অনুধাবন করেই 'বিরুদ্ধ স্রোতের মোহাম্মদ নাসিরউদ্দীন' গ্রন্থের প্রয়াস। আমাদের চেষ্টা ছিল, এ গ্রন্থে সামগ্রিক নাসিরউদ্দীনকে তুলে ধরা এবং তাঁর জীবন ও কর্ম সম্পর্কে পাঠককে একটি পরিচ্ছন্ন ধারণা দেয়া।



'বিরুদ্ধ স্রোতের মোহাম্মদ নাসিরউদ্দীন'-এর প্রচ্ছদ করেছেন জি জি। ২৪০ পৃষ্ঠার মূল্য রাখা হয়েছে ৪৫০ টাকা। পাওয়া যাবে পাঞ্জেরী বুকশপ, রকমারি ডটকমসহ দেশের অভিজাত বুকস্টলগুলোতে। চাঁদপুরে বইটি পাওয়া যাবে চিত্রলেখার ন্যাশনাল লাইব্রেরিতে।



উল্লেখ্য, কাদের পলাশের জন্ম ১৯৮৬ সালের ১৫ নভেম্বর। পৈত্রিক বাড়ি চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার বাসাবাড়িয়া গ্রামে। সাপ্তাহিক 'শপথ' পত্রিকা সম্পাদনাসহ বেশ কয়েকটি গণমাধ্যমে তিনি সংবাদিকতা করছেন। তিনি গল্প ও কবিতা লিখতে পছন্দ করেন। লিটলম্যাগ 'ত্রিনদী' সম্পাদনা করেন। প্রকাশিত গল্পগ্রন্থ 'দীর্ঘশ্বাসের শব্দ' ও 'ইচ্ছেরা উড়ে গেছে'। সাহিত্য চর্চা ও সাংবাদিকতায় অবদানের জন্যে কাদের পলাশ ইতোমধ্যে বিভিন্ন পুরস্কার ও সম্মাননা লাভ করেছেন।



মুহাম্মদ ফরিদ হাসানের জন্ম ১৯৯২ সালে, চাঁদপুরের হাইমচর উপজেলায়। জাতীয় প্রায় সব দৈনিকে তিনি কবিতা, গল্প, প্রবন্ধ, কলাম লিখেন নিয়মিত। এ পর্যন্ত বিভিন্ন দৈনিক ও ম্যাগাজিনে তার দুশতাধিক লেখা প্রকাশিত হয়েছে। লেখালেখির পাশাপাশি সম্পাদনা করছেন গল্পের কাগজ 'বাঁক' এবং লিটলম্যাগ 'মৃত্তিকা'। তার প্রথম গ্রন্থ 'সাহিত্যের অনুষঙ্গ ও অন্যান্য প্রবন্ধ'। সম্পাদিত গ্রন্থ : যাপনে উদযাপনে ইলিশ (২০১৮), কিশোরদের জন্যে কালজয়ী কবিতা (২০২০)। লেখালেখির স্বীকৃতিস্বরূপ তিনি 'দেশজ জাতীয় পা-ুলিপি পুরস্কার-২০১৭' ও 'সাহিত্য একাডেমী চাঁদপুর পুরস্কার-২০১৪' লাভ করেন।



 



 



 


হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬২-সূরা জুমু 'আ


১১ আয়াত, ২ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


১। আকাশমন্ডলী ও পৃথিবীতে যাহা কিছু আছে সমস্তই পবিত্রতা ও মহিমা ঘোষণা করে আল্লাহর, যিনি অধিপতি, মহাপবিত্র, পরাক্রমশালী, প্রজ্ঞাময়।


 


 


মনে প্রশান্তি থাকলেই বিশ্রাম সুখময় হয়। -রবার্ট ডাব্লিউ সারভিস।


 


 


রসূলুল্লাহ (দঃ) বলেছেন, নামাজ আমার নয়নের মণি।


 


ফটো গ্যালারি
করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ৪,৩৬,৬৮৪ ৫,৫৪,২৮,৫৯৬
সুস্থ ৩,৫২,৮৯৫ ৩,৮৫,৭৮,৭০৩
মৃত্যু ৬,২৫৪ ১৩,৩৩,৭৭৮
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৫০৪৯১৭
পুরোন সংখ্যা