চাঁদপুর, শনিবার ৯ নভেম্বর ২০১৯, ২৪ কার্তিক ১৪২৬, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৭-সূরা হাদীদ


২৯ আয়াত, ৪ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


২৪। যাহারা কার্পণ্য করে ও মানুষকে কার্পণ্যের নির্দেশ দেয় এবং যে মুখ ফিরাইয়া লয় সে জানিয়া রাখুক আল্লাহ তো অভাবমুক্ত, প্রশংসার্হ।


 


 


 


 


 


আমরা বই পড়ে মানুষ চিনতে পারি না। -ডিজরেইলি।


 


 


ঝগড়াটে ব্যক্তি আল্লাহর নিকট অধিক ক্রোধের পাত্র।


 


 


 


 


ফটো গ্যালারি
মোলহেডে নদীকেন্দ্রিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান
মিজানুর রহমান
০৯ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


মেঘনা-ডাকাতিয়া নদীকে ঘিরে ইলিশের বাড়ি চাঁদপুর। এই দুই নদীর সাথে মিশে আছে পদ্মা নদীর বিশাল জলরাশি। তিন নদীর মিলনস্থল চাঁদপুর জেলা শহরের বড় স্টেশন মোলহেড। শহর রক্ষাবাঁধ আর নদীর প্রাকৃতিক সৌন্দর্যময় স্থানটি এ জেলার প্রধান পর্যটন এলাকা হিসেবে বেশ পরিচিতি পেয়েছে। সেখানে ৭ নভেম্বর বৃহস্পতিবার বিকেলে হয়ে গেলো নদীভিত্তিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।



ভরাট, দখল আর দূষণে হারিয়ে যাচ্ছে নদীমাতৃক বাংলাদেশের নদ-নদী। অথচ বাংলার সভ্যতা ও সংস্কৃতির বিকাশ ঘটেছে নদীকে ঘিরে। এমন পরিস্থিতিতে 'তেরোশ নদী শুধায় আমাকে' কবি শামসুল হকের কবিতার এই চরণকে উপজীব্য করে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির ভাবনায় দেশজুড়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে 'নদীকেন্দ্রিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান'।



জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় চাঁদপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয় এই সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। নদীর তীর ঘেঁষে গড়ে ওঠা আবহমান বাংলার সভ্যতা, সংস্কৃতিকে তুলে ধরতেই এই আয়োজন।



প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা শিল্পকলা একাডেমির সভাপতি ও জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান। তিনি বলেন, আমাদের প্রয়োজনেই নদীগুলোকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে, সংরক্ষণ করতে হবে। এই সচেতনতার লক্ষ্যেই এই নদীকেন্দ্রিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করাই হচ্ছে এর মূল উদ্দেশ্য। চাঁদপুর জেলা কালচারাল অফিসার সৈয়দ আয়াজ মাবুদের পরিকল্পনা ও সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ সামিউল ইসলাম, মুক্তিযোদ্ধা প্রকৌশলী মোঃ দেলোয়ার হোসেন, বর্ণচোরা নাট্য গোষ্ঠীর সাধারণ সম্পাদক শরীফ চৌধুরী, মেঘনা থিয়েটারের সভাপতি তবিবুর রহমান রিংকু, স্বরলিপি নাট্যগোষ্ঠীর প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি এমআর ইসলাম বাবু, সংবাদকর্মী মিজানুর রহমানসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। এ সময় অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন মৃনাল সরকার, বাউল শিল্পী রবিউল, ওমর ফারুক, অনিতা নন্দী, দীপা রায় চৈতি, মেধা, নাবিলা, কাবিশাসহ অন্যরা। যন্ত্র সংগীতে ছিলেন খোকন দাস, শুভ্র রক্ষিত, এমএইচ বাতেন, রাজিব চৌধুরী, মানিকসহ অন্যরা।



 



 


করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ২,৫৫,১১৩ ১,৯৫,৬২,২৩৮
সুস্থ ১,৪৬,৬০৪ ১,২৫,৫৮,৪১২
মৃত্যু ৩৩৬৫ ৭,২৪,৩৯৪
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৫৮৭৮১৪
পুরোন সংখ্যা