চাঁদপুর, সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬, ২৩ মহররম ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৬ সূরা-ওয়াকি'আঃ


৯৬ আয়াত, ৩ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


৮৬। তোমরা যদি কর্তৃত্বাধীন না হও,


৮৭। তবে তোমরা উহা ফিরাও না কেনো? যদি তোমরা সত্যবাদী হও!


৮৮। যদি সে নৈকট্যপ্রাপ্তদের একজন হয়,


 


 


assets/data_files/web

সমাজতন্ত্রই শোষিত নির্যাতিত জনগণের মুক্তির একমাত্র পথ।


-লেনিন।


 


 


ন্যায়পরায়ণ বিজ্ঞ নরপতি আল্লাহর শ্রেষ্ঠ দান এবং অসৎ মূর্খ নরপতি তার নিকৃষ্ট দান।


 


 


 


ফটো গ্যালারি
জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাথে মতবিনিময়কালে পুলিশ সুপার মোঃ মাহবুবুর রহমান
উৎসব উদযাপনে নিরাপত্তার ক্ষেত্রে আমরা কোনোপ্রকার ফাঁক রাখবো না
বিমল চৌধুরী
২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


আসন্ন শারদীয় দুর্গোৎসব শান্তিপূর্ণভাবে উদযাপনের লক্ষ্যে, চাঁদপুর জেলা পুলিশ সুপারের আহ্বানে পূজা উদযাপন পরিষদসহ হিন্দু ধর্মাবলম্বী নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল ২২ সেপ্টেম্বর রোববার সকালে পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সভায় পুলিশ সুপার মোঃ মাহবুবুর রহমান পিপিএম (বার) শান্তিপূর্ণভাবে উৎসব উদ্যাপনের আহ্বান জানিয়ে বলেন, উৎসব আপনাদের হলেও আনন্দ আমাদের সকলের। আমরা সকলেই এ উৎসবে যোগ দিয়ে থাকি। তাই উৎসবের নিরাপত্তার ক্ষেত্রে কোনোপ্রকার ফাঁক রাখবো না। নিরাপত্তার ক্ষেত্রে যা যা করণীয় পুলিশ প্রশাসন তার সবটুকুই করবে। পাশাপাশি আপনারাও সচেতন থাকবেন। যাতে আমাদের মাঝে কেউ গুজব ছড়াতে না পারে। তিনি কোনোপ্রকার গুজবে কান না দেয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে ৯ অক্টোবর পর্যন্ত কঠোর নিরাপত্তার আওতায় থাকবে পূজা ম-পগুলো। সহসাই রেড দেয়া হবে ম্যাচ, বাসা বাড়ি, হোটেল, রেস্তোরাঁয়। গতিবিধি লক্ষ্য রাখা হবে অপরিচিত ব্যক্তিদের। ব্যাগ, বস্তা নিয়ে পূজা ম-পে ঢোকার ব্যাপারেও তিনি কঠোর নজরদারি দেয়ার উপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি। তিনি প্রতিটি পূজা ম-পে রেজিস্টার খাতা রাখার আহ্বান জানান। যাতে পুলিশ প্রশাসনের দায়িত্বরত সদস্যগণ তাদের উপস্থিতি রেজিস্টার খাতায় নিশ্চিত করতে পারেন। তিনি বিসর্জনের দিন যাতে প্রতিমাগুলো সন্ধ্যা ৭টার মধ্যে বিসর্জন স্থলে নিয়ে আসা হয় সেজন্যে পূজা আয়োজনকারীদের প্রতি অনুরোধ জানান এবং যে কোনো প্রয়োজনে প্রশাসনের সাথে যোগাযোগ করার আহ্বান জানান।



জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি সুভাষ চন্দ্র রায় ও সাধারণ সম্পাদক তমাল কুমার ঘোষ পূজা উদ্যাপনে প্রশাসনের সহযোগিতা কামনাসহ পূজা উদ্যাপনে করণীয় বিষয়ের উপর তাদের বক্তব্য প্রদান করেন। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান (পদোন্নতিপ্রাপ্ত এসপি) বিগত দিনের কার্যবিবরণী পাঠসহ তাঁর সভা পরিচালনায় আরো বক্তব্য রাখেন জেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি অ্যাডঃ বিনয় ভূষণ মজুমদার, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডঃ রনজিত রায় চৌধুরী, জেলা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি ডাঃ এসএম সহিদ উল্লাহ, পৌর কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সভাপতি শেখ মনিরুজ্জামান বাবুল, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক লক্ষ্মণ চন্দ্র সূত্রধর, জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন উপজেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদ নেতৃবৃন্দ। নেতৃবৃন্দ ট্রাফিক ব্যবস্থা জোরদারসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাগ্রহণের জন্যে পুলিশ সুপারকে অনুরোধ করেন এবং শারদীয় দুর্গোৎসবের কোনো একদিন পূজা ম-পগুলো পরিদর্শনের জন্যে বিশেষভাবে আমন্ত্রণ জানান।



সভায় সদ্য যোগদানকৃত পুলিশ সুপারকে জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদ, জেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ ও জেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ছাত্র ঐক্য পরিষদের নেতৃবৃন্দ পৃথক পৃথকভাবে ফুলেল শুভেচ্ছা প্রদান করেন।



 



 



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৫৮৫৭৯০
পুরোন সংখ্যা