চাঁদপুর। বুধবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮। ২৮ ভাদ্র ১৪২৫। ১ মহররম ১৪৪০
redcricent
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • চাঁদপুর জেলা ন্যাপের সভাপতি, চাঁদপুর ডায়াবেটিক হাসপাতালের পরিচালনা পরিষদের সদস্য আলহাজ্ব আবুল কালাম পাটওয়ারী ঢাকাস্থ ল্যাব এইড হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ..... রাজেউন)। মরহুমের নামাজের জানাজা বাদ জোহর পৌর ঈদগা মাঠে অনুষ্ঠিত হবে।
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৪১-সূরা হা-মীম আস্সাজদাহ,

৫৪ আয়াত, ৬ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

২১। জাহান্নামীরা তাদের ত্বককে জিজ্ঞেস করবে : তোমরা আমাদের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিচ্ছ কেন? উত্তরে তাা বলবে : আল্লাহ, যিনি সবকিছুকে বাকশক্তি দিয়েছেন তিনি আমাদেরকেও বাকশক্তি দিয়েছেন। তিনি তোমাদেরকে সৃষ্টি করেছেন প্রথমবার এবং তাঁরই নিকট তোমরা প্রত্যাবর্তিত হবে।

২২। তোমরা কিছু গোপন করতে না এই বিশ^াসে যে, তোমাদের কর্ণ, চক্ষু এবং ত্বক তোমাদের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিবে না- উপরন্তু তোমরা মনে করতে যে, তোমরা যা করতে তার অনেক কিছুই আল্লাহ জানেন না।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন



 


মহৎ আত্মাগুলি নীরবতায় ভোগে বেশি।                    

-বেন জনসন।


রাসূলুল্লাহ (দঃ) বলেছেন, নামাজ আমার নয়নের মনি।



 


ফটো গ্যালারি
চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠনের আয়োজনে শুরু হতে যাচ্ছে ৮ দিনব্যাপী ১০ম ইলিশ উৎসব
চাঁদপুর কণ্ঠ রিপোর্ট
১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠন ২০০৬ সালে ২৪ বছর পদার্পন উৎসব, ২০০৭ সালে দুই যুগপূর্তি এবং ২০০৮ সালে আড়াই দশক পূর্তি উৎসব করার পর ২০০৯ সালে চতুরঙ্গের মহাসচিব হারুন-আল-রশীদ ইলিশ উৎসব করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেন। সেই থেকে চাঁদপুরের ঐতিহ্য ইলিশ সম্পদকে নিয়ে ইলিশ উৎসবের রূপকার হারুন আল-রশীদ ইলিশ উৎসব আয়োজনের কাজ শুরু করেন। ২০১৮ সালে জেগে উঠো মাটির টানে, প্রাণ ফুটিকস্ ১০ম চতুরঙ্গ ইলিশ উৎসব অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এ বছর ইলিশ উৎসব ৮ দিনব্যাপী করা হচ্ছে। আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর সোমবার থেকে ১ অক্টোবর সোমবার পর্যন্ত এ উৎসব চলবে।



বিগত বছরের ন্যায় গুণী ১২ জন ব্যক্তিকে এ বছরও চতুরঙ্গ পদক প্রদান করা হবে ইলিশ উৎসবে। এছাড়া ১১ জনকে বিশেষ সম্মাননা পদক প্রদান করা হবে। ১০ম ইলিশ উৎসবে চতুরঙ্গ পদক পাচ্ছেন যারা তারা হলেন : আগরতলা ত্রিপুরার সাংস্কৃতিক সংগঠক অমিত ভৌমিক, চাঁদপুরের কৃতী সন্তান আগরতলার জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী ড. উত্তম সাহা সাগর, বাফার সভাপতি হাসানুর রহমান বাচ্চু, আগরতলা ত্রিপুরার আবৃত্তি শিল্পী শাওলী রায়, আগরতলা ত্রিপুরার কণ্ঠশিল্পী সর্বানী দাশ দত্ত, সনাক চট্টগ্রামের সভাপতি প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মির্জা জাকির, জেলা সংবাদপত্র সম্পাদক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রোকনুজ্জামান রোকন, মুক্তিযোদ্ধা শাহাবুদ্দিন মজুমদার, জাতীয় নৃত্য প্রশিক্ষক আমিরুল ইসলাম মনি, দৈনিক ইলশেপাড়ের প্রধান সম্পাদক রোটাঃ মাহবুবুর রহমান সুমন ও জাতীয় নৃত্য প্রশিক্ষক নূরে আলম চন্দন। বিশেষ সম্মাননা পাচ্ছেন মৎস্যজীবী নেতা আব্দুল মালেক দেওয়ান, মানিক দেওয়ান, মৎস্য রপ্তানীকারক রোটাঃ মোঃ শবেবরাত, মৎসজীবী নেতা শাহআলম মলি্লক, তছলিম বেপারী, মেহেদী উৎসবের প্রণেতা অ্যাডঃ আবুল কালাম সরকার, বিতর্ক সংগঠক রাজন চন্দ্র দে, ঈদ আনন্দ উৎসবের প্রণেতা এমআর ইসলাম বাবু, চতুরঙ্গের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য জাহাঙ্গীর ভূঁইয়া, পরিবেশ আন্দোলনের কর্মী আশিক খান, সাংস্কৃতিক সংগঠক জাহাঙ্গীর আলম হৃদয়।



২৪ সেপ্টেম্বর বিকেল সাড়ে ৩টায় জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে ইলিশ উৎসবের শোভাযাত্রা বের করা হবে। পরে সেরা ও ক্ষুদে গানবাজদের অডিশন পর্ব, প্রীতি বিতর্ক, সম্মাননা। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করবে বাংলাদেশ শিশু একাডেমি চাঁদপুর ও রংধনু সৃজনশীল নৃত্য সংগঠন চাঁদপুর।



২৫ সেপ্টেম্বর বিকেল সাড়ে ৩টায় সেরা ও ক্ষুদে নাচিয়েদের অডিশন পর্ব। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করবে সুরধ্বনি সংগীত একাডেমি, চাঁদপুর ও সপ্তরূপা নৃত্য শিক্ষালয়, চাঁদপুর। ২৬ সেপ্টেম্বর বিকেল সাড়ে ৩টায় ইলিশ নিয়ে সেরা ৭টি কবিতার দলগত পরিবেশনা ও প্রীতি বিতর্ক। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করবে স্বপ্নকুড়ি সাংস্কৃতিক সংগঠন ও ঢাকার নৃত্যের তালে তালে। ২৭ সেপ্টেম্বর বিকেল সাড়ে ৩টায় মেহেদীর রঙে গ্রাম্যবধূর প্রতিযোগিতা, প্রীতি বিতর্ক ও সম্মাননা প্রদান। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করবে বাংলাদেশ হাওয়াইন গীটার শিল্পী পরিষদ, ঢাকা, অগি্নবীনা সাংস্কৃতিক সংগঠন ও নৃত্যাঞ্জলি পারফর্মিং আর্টস্ একাডেমির নৃত্যানুষ্ঠান। ২৮ সেপ্টেম্বর বিকেল সাড়ে ৩টায় বড় স্টেশন মোলহেডে ইলিশ গুড্ডি প্রদর্শন, শিশুদের ছড়াগান, ইলিশ রান্না প্রদর্শন, প্রীতি বিতর্ক ও সম্মাননা। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করবে রঙের ঢোল, নৃত্যাঙ্গন সাংস্কৃতিক সংগঠন ও ঢাকা গাজীপুর বকুল নৃত্যালয়। ২৯ সেপ্টেম্বর বিকেল সাড়ে ৩টায় সেরা ও ক্ষুদে নাচিয়েদের ফাইনাল রাউন্ড, প্রীতি বিতর্ক ও সম্মাননা। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করবে পরশমনি কলাকেন্দ্র ঢাকা ও নোয়াখালীর অলিপুর যুব সংঘ ও একাডেমির সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। ৩০ সেপ্টেম্বর বিকেল সাড়ে ৩টায় সেরা ও ক্ষুদে গানরাজদের ফাইনাল রাউন্ড ও সম্মাননা অনুষ্ঠান। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করবে নৃত্যধারা সাংস্কৃতিক সংগঠন, সিলেট মৌলভীবাজার রূপকথা, নতুনকুড়ি সাংস্কৃতিক সংগঠন ও তারকা শিল্পীদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। ১ অক্টোবর বিকেল সাড়ে ৩টায় ইলিশ নিয়ে সেরা নাচিয়ে ও সেরা গানবাজদের পুরস্কার ও পরিবেশনা, প্রীতি বিতর্ক ও সম্মাননা। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করবে আগরতলা ত্রিপুরার শিল্পী ও প্রাণ ফুটিকস্ এর সৌজন্যে তারকা শিল্পীদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।



৮ দিনব্যাপী আলোচনা সভার উদ্বোধনী দিন প্রধান আলোচক থাকবেন জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান। চতুরঙ্গের চেয়ারম্যান অ্যাডঃ বিনয় ভূষণ মজুমদারের সভাপতিত্বে আলোচক হিসেবে আরও থাকবেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোঃ মাইনুল হাসান, যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ও জেলা কমান্ডার এমএ ওয়াদুদ, প্রাণ আরএফএল গ্রুপের কর্মকর্তা সাকিব অপূর্ব। ২য় দিন প্রধান আলোচক থাকবেন চাঁদপুরের নবাগত পুলিশ সুপার মোঃ জিহাদুল কবির পিপিএম। ইলিশ উৎসবের আহ্বায়ক কাজী শাহাদাতের সভাপতিত্বে আলোচক থাকবেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) মোঃ মিজানুর রহমান, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী। ৩য় দিন প্রধান আলোচক থাকবেন চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আলহাজ্ব নাছির উদ্দিন আহমেদ। চতুরঙ্গের উপদেষ্টা রোটাঃ ডাঃ মিজানুর রহমান খানের সভাপতিত্বে আলোচক হিসেবে থাকবেন চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইব্রাহিম খলিল, হাইমচর থানার অফিসার ইনচার্জ রণজিত রায়। ৪র্থ দিন প্রধান আলোচক থাকবেন জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক প্রকৌশলী মোহাম্মদ হোসাইন। চতুরঙ্গের উপদেষ্টা অ্যাডঃ ইকবাল-বিন-বাশারের সভাপতিত্বে আলোচক হিসেবে থাকবেন জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ আসাদুল বাকী ও জেলা সংবাদপত্র সম্পাদক পরিষদের সভাপতি আব্দুর রহমান। ৫ম দিন প্রধান আলোচক থাকবেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সুজিত রায় নন্দী। চতুরঙ্গের উপদেষ্টা মুক্তিযোদ্ধা অজিত সাহার সভাপতিত্বে আলোচক থাকবেন চরসেনসাস ই্উনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ জিতু মিয়া বেপারী ও চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রহিম বাদশা। ৬ষ্ঠ দিনে প্রধান আলোচক থাকবেন আন্তর্জাতিক মৎস্য রপ্তানীকারক লায়ন দিলীপ কুমার ঘোষ (এম.জে.এফ)। চতুরঙ্গের উপদেষ্টা মহসিন পাঠানের সভাপতিত্বে আলোচক থাকবেন চাঁদপুর কেন্দ্রীয় মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির সভাপতি হাজী মোঃ আনোয়ার হোসেন গাজী ও ত্রিপুরা আদিবাসী ফোরাম চাঁদপুর জেলা কমিটির সভাপতি গীত্ত রঞ্জন ত্রিপুরা। ৭ম দিন প্রধান আলোচক থাকবেন চাঁদপুর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ওচমান গণি পাটওয়ারী। চতুরঙ্গের উপদেষ্টা মোঃ জসিম উদ্দিন শেখের সভাপতিত্বে আলোচক থাকবেন কোস্টগার্ড চাঁদপুর স্টেশন কমান্ডার লেঃ এম এনায়েত উল্লাহ, চাঁদপুর সাংস্কৃতিক চর্চা কেন্দ্রের সভাপতি শহীদ পাটোয়ারী। সমাপনী দিন ১ অক্টোবর প্রধান অতিথি থাকবেন সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব ডাঃ দীপু মনি এমপি। দশম ইলিশ উৎসবের প্রধান উপদেষ্টা ও রাজনীতিবিদ আবু নঈম পাটওয়ারী দুলালের সভাপতিত্বে আলোচক থাকবেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ চাঁদপুর জেলা শাখার সহ-সভাপতি ডাঃ জেআর ওয়াদুদ টিপু, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ চাঁদপুর জেলা শাখার সাবেক সভাপতি ও যুবনেতা অ্যাডঃ জাহিদুল ইসলাম রোমান।



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৫৪৩৫৬৬
পুরোন সংখ্যা