চাঁদপুর। বুধবার ১৫ নভেম্বর ২০১৭। ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৪। ২৫ সফর ১৪৩৯

বিজ্ঞাপন দিন

বিজ্ঞাপন দিন

সর্বশেষ খবর :

  • ---------
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৩২- সূরা সেজদাহ

৩০ আয়াত, ৪ রুকু, ‘মক্কী’

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

১। আলিফ-লাম-মীম

২। এই কিতাবের অবতরণ বিশ্ব পালনকর্তার নিকট থেকে, এতে কোনো সন্দেহ নাই।

৩। তারা কি বলে,  এটা আপনি মিথ্যা রচনা করেছেন? বরং এটা আপনার পালনকর্তার তরফ থেকে সত্য, যাতে আপনি এমন এক সম্প্রদায়কে সতর্ক করেন, যাদের কাছে আপনার পূর্বে কোনো সতর্ককারী আসেনি। আশা করা যায় এরা সুপথপ্রাপ্ত হবে।

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


সফলতা কখনো অন্ধ হয় না।


-টমাস হাডি।


মানবতাই মানুষের শ্রেষ্ঠতম গুণ।

 


মিয়ানমারের নাগরিকদের নিরাপত্তা ও মর্যাদার সাথে নিজ ভূমিতে ফেরৎ নিতে জাতিসংঘে জোর দাবি জানালেন ডাঃ দীপু মনি
প্রেস রিলিজ
১৫ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


গত ২৩ অক্টোবর জাতিসংঘ সদর দপ্তরে জাতিসংঘের রাজনৈতিক বিভাগের আন্ডারসেক্রেটারি জেনারেল জেফ্রি ফেল্টম্যান, সংঘাতময় পরিস্থিতিতে যৌন সহিংসতা বিষয়ক জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ দূত মিস প্রমীলা প্যাটেন এবং বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনে জেনেভা ভিত্তিক মানবাধিকার কাউন্সিলের মিয়ানমার বিষয়ক স্পেশাল র‌্যাপোর্টিয়ার প্রফেসর ইয়াং হী লী-এর সাথে বৈঠক করেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ডাঃ দীপু মনি এমপি।



বৈঠকগুলোতে মিয়ানমার প্রশ্নে ডাঃ দীপু মনি এমপি দৃঢ়তার সাথে বলেন, "জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের মিয়ানমারকে বুঝাতে হবে যে, জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত রাখাইন প্রদেশের প্রায় এক মিলিয়ন নাগরিকের নিরাপত্তা ও মর্যাদার সাথে তাদের নিজভূমিতে অবশ্যই ফেরৎ নিতে হবে, যার কোনো বিকল্প নেই।



বৈঠকসমূহে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ঘনবসতিপূর্ণ বাংলাদেশে এই উদ্বাস্তু সঙ্কটের প্রভাবের কথা তুলে ধরে ডাঃ দীপু মনি এমপি আরও বলেন, "জাতিসংঘসহ সকল আন্তর্জাতিক মহলকে এ সমস্যা সমাধানে জোর ভূমিকা রাখতে হবে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় রাখাইন রাজ্যের বিপুল সংখ্যক এই বাস্তুচ্যুত মানুষকে আর আশাহত করতে পারে না।"



বৈঠককালে জাতিসংঘের আন্ডারসেক্রেটারি জেনারেল জেফ্রি ফেল্টম্যান তাঁর সাম্প্রতিক মিয়ানমার সফরের বিভিন্ন দিক সম্বন্ধে ডাঃ দীপু মনি এমপিকে অবহিত করেন। তাঁর সফরকালে এ সঙ্কটের সমাধানে মিয়ানমারের করণীয় বিষয়ে জাতিসংঘের বিবেচ্য দিকগুলো নিয়ে তিনি মিয়ানমার নেতৃত্বের সাথে আলোচনা করেন মর্মে ডাঃ দীপু মনিকে জানান।



এর আগে ওইদিন সকালে জাতিসংঘ সদর দপ্তরে 'সংঘাতময় পরিস্থিতিতে যৌন সহিংসতা বিষয়ক' জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ দূত মিস প্রমীলা প্যাটেনের সাথে বৈঠক করেন ডাঃ দীপু মনি এমপি। মিস প্যাটেন গত মাসে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে প্রদত্ত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভাষণে মিয়ানমার সঙ্কটের সমাধানে যে অ্যাকশান প্ল্যানের কথা তুলে ধরা হয়েছে তার প্রশংসা করেন।



মিস্ প্রমীলা প্যাটেন বলেন, সম্পদ ও সামর্থ্যের সীমাবদ্ধতা সত্ত্বেও বাংলাদেশ যেভাবে মিয়ানমার থেকে জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত মানুষদের স্বাগত জানিয়েছে, আশ্রয় দিয়েছে, তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়। তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের এই অবদান বিশ্ব আজীবন স্মরণ রাখবে। সম্প্রতি জাতিসংঘের ভিকটিম সাপোর্ট ফান্ডে এক লক্ষ ডলার প্রদান করায় তিনি বাংলাদেশ সরকারকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।



আলাপকালে মিস্ প্যাটেন জানান, নভেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহে তিনি বাংলাদেশ সফরে যাচ্ছেন। প্যাটেন আরও জানান, মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশ থেকে জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত নাগরিকদের বিশেষ করে নারীদের উপর যৌন নির্যাতন বিষয়ে তিনি সম্পূর্ণ ওয়াকিবহাল। বাংলাদেশ সফরকালে তিনি এ সকল নির্যাতিত নারীদের সাথে সরাসরি কথা বলবেন।



কঙ্বাজারে বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিকদের ক্যাম্প পরিদর্শনকালে নারীর প্রতি সহিংস যৌন নির্যাতনের যে ভয়াবহ বাস্তবচিত্র ডাঃ দীপু মনি এমপি দেখেছেন তা তিনি মিস্ প্যাটেনের সামনে তুলে ধরেন। ডাঃ দীপু মনি এমপি বলেন, যৌন সহিংসতার ক্ষেত্রে যে বিচারহীনতার সংস্কৃতি রয়েছে তা বন্ধ করতে হবে।



ওইদিন বিকেলে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনে আসেন মানবাধিকার কাউন্সিলের মিয়ানমার বিষয়ক স্পেশাল র‌্যাপোর্টিয়ার প্রফেসর ইয়াং হী লী। তিনি বৈঠককালে ডাঃ দীপু মনি এমপিকে জানান যে, তার পরবর্তী রিপোর্টে তিনি চলমান রোহিঙ্গা সঙ্কটের বিষয়টি আরও বিস্তারিত ও গুরুত্বের সাথে তুলে ধরবেন।



বৈঠককালে এ সকল আন্তর্জাতিক ব্যক্তিত্বদের বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানান ডাঃ দীপু মনি। অত্যন্ত সৌহার্দ্যপূর্ণ এ সকল বৈঠকে ডাঃ দীপু মনি এমপির সাথে উপস্থিত ছিলেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন ও স্থায়ী মিশনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ।



একইদিন বিকেল চারটায় জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অর্থনৈতিক ও সামাজিক বিষয়াবলি সম্পর্কিত কমিটিতে ফিলিস্তিন পরিস্থিতির উপর আয়োজিত একটি সভায় বক্তৃতা দেন ডাঃ দীপু মনি এমপি। এ সভায় ফিলিস্তিনীদের সার্বভৌমত্বের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃঢ় মনোভাবের কথা উল্লেখ করে ডাঃ দীপু মনি এমপি বলেন, আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ সরকার ও জনগণ সর্বদাই পূর্ব জেরুজালেমকে রাজধানী করে দুই রাষ্ট্র সমাধান কাঠামোর (Two state solution framework) ভিত্তিতে একটি স্বাধীন, টেকসই, সুসংহত ও সার্বভৌম প্যালেস্টাইন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার অধিকারসহ ফিলিস্তিনী জনগণের আত্মনিয়ন্ত্রণ অধিকার আদায়ের ন্যায়সঙ্গত সংগ্রামে পূর্ণ সমর্থন দিয়ে যাচ্ছে।



উল্লেখ্য, বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ডাঃ দীপু মনি এমপি নিউইয়র্কে সরকারি সফর করেন।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৩৭৭৩৪৭
পুরোন সংখ্যা