চাঁদপুর, শুক্রবার ৫ মার্চ ২০২১, ২০ ফাল্গুন ১৪২৭, ২০ রজব ১৪৪২
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
পূর্ণয়-এর পুঁথি সরণী
ফুটপাতজুড়ে বই আর বই : বিনামূল্যে বই বিতরণ উৎসবে বইপ্রেমীদের মিলনমেলা
তিন ঘণ্টায় আড়াই সহস্রাধিক বই বিতরণ
চাঁদপুর কণ্ঠ রিপোর্ট
০৫ মার্চ, ২০২১ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুরে ইতিহাস সৃষ্টি করলো মাধ্যমিকে পড়া শিশু-কিশোর শিক্ষার্থীরা। কোনো ধরনের ঢাক-ঢোল পেটানো ছাড়া, তেমন কোনো আগাম প্রচারণা ছাড়াই 'পুঁথি সরণী' নামে বিনামূল্যে বই প্রদান উৎসবে হাজার হাজার বইপ্রেমীর মিলনমেলা ঘটলো। আর এই মিলনমেলা ঘটালো 'পূর্ণয়' নামে একঝাঁক স্কুল শিক্ষার্থীদের সংগঠন। সহযোগিতায় ছিলো এনসিটিএফ।



গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে চাঁদপুর শহরের কবি নজরুল ইসলাম সড়কের একপাশে ফুটপাতজুড়ে ছিলো হাজার হাজার বইয়ের সমাহার। এ যেনো বইময় সড়ক। সাথে বইপ্রেমীদের মিলনমেলা। বিনামূল্যে বই নিতে হাজার হাজার বইপ্রেমী চলে আসে কবি নজরুল সড়কে। সিয়াম, তাওহিদ আর আকসারা দেখিয়ে দিলো আগামীর বাংলাদেশ হতাশার নয়। আগামীর বাংলাদেশ সম্ভাবনার, বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবার। সারাদেশের মাঝে চাঁদপুর জেলাকে নতুন আঙ্গিকে তুলে ধরার লক্ষ্যে মাধ্যমিকে পড়া এই শহরের উদীয়মান সাহিত্যপ্রেমী একঝাঁক তরুণ-তরুণী লিটারেচার ভার্সেস ট্রাপিকের আদলে এই পুঁথি সরণী উৎসবের আয়োজন করে। সকালে বিনামূল্যে এই বই বিতরণ উৎসব উদ্বোধন করেন চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র অ্যাডঃ জিল্লুর রহমান জুয়েল। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি এএইচএম আহসান উল্লাহ।



স্কুল শিক্ষার্থীদের অত্যন্ত প্রশংসনীয় এমন ব্যতিক্রমী আয়োজনে দারুণভাবে উচ্ছ্বসিত হয়ে মেয়র জিল্লুর রহমান জুয়েল তাঁর বক্তব্যে বলেন, আজকের আয়োজন আমাদের চোখ খুলে দিলো। এটি সমাজের জন্য দৃষ্টান্ত। বই পড়ার প্রতি আগ্রহ সৃষ্টি ও সুযোগ করে দেয়ার লক্ষ্যে শিশু-কিশোর শিক্ষার্থীদের এমন আয়োজন আমাদের সন্তান এবং প্রজন্মের জন্য অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত। আমি তাদের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। তাদের এ ধরনের ভালো কাজে আমার সকল ধরনের সহযোগিতা থাকবে।



চাঁদপুর আল-আমিন একাডেমির প্রধান ক্যাম্পাস বাউন্ডারির পূর্ব প্রান্ত থেকে শুরু করে পশ্চিম দিকে উদয়ন স্কুলের সম্মুখ পর্যন্ত ফুটপাত জুড়ে ছিলো হাজার হাজার বই। আয়োজকদের তথ্য মতে চার সহস্রাধিক বই ছিলো এখানে। কবিতা, ছড়া, গল্প, উপন্যাস ও সাহিত্যের বই, বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় নেতাসহ জাতীয় বীর, মনীষী এবং কবি সাহিত্যিকদের জীবনী, শিশুদের উপযোগী নানা বই, বিভিন্ন শ্রেণীর বোর্ডের বই, গ্রামার, ব্যাকরণ বই, বাংলা, ইংরেজি অভিধান, ধর্মীয় বিভিন্ন বই, ক্রীড়া, সংস্কৃতি, বাণিজ্য, আইন, রান্নাসহ কয়েকশ' আইটেমের চার সহস্রাধিক বইয়ের সমাহার ছিলো দীর্ঘ এই ফুটপাতজুড়ে। আর এখানেই ঘটে বইপ্রেমীদের মিলনমেলা।



সকাল ১০টায় শুরু হয় অনুষ্ঠান। দুপুর একটার মধ্যে আড়াই হাজারের মতো বই বিতরণ হয়ে গেছে বলে আয়োজকরা জানায়। অনুষ্ঠানের শুরু থেকেই বইপ্রেমীদের উপচেপড়া ভিড় ছিল লক্ষণীয়। মুহূর্তে বইপ্রেমীদের মিলনমেলা ঘটে কবি নজরুল সড়কজুড়ে। ছোট্ট শিশু থেকে শুরু করে নানা বয়সী নারী-পুরুষ চলে আসেন এই বই বিতরণ উৎসবে। যার যার পছন্দ ও চাহিদা মতো বই নিয়ে নেন। আয়োজকদের সাঁটানো ফেস্টুনে যে নিয়ম লিখা ছিলো তা হচ্ছে : 'সবাই পছন্দ মতো যে কোনো দুটি বই নিঃশর্তে নিতে পারবেন। শুধুমাত্র একটি বই বিনিময় করে আরেকটি বই নিতে পারবেন'।



এই বই বিতরণ উৎসবজুড়ে সত্তরজন ভলান্টিয়ার নিয়োজিত ছিলেন। তারা বই নিতে আগ্রহীদের হাতে বই তুলে দেন এবং তা রেজিস্টারে লিপিবদ্ধ করেন। একইসাথে সড়কে যানবাহন চলাচলে শৃঙ্খলা বজায় রাখার দায়িত্বও পালন করে স্বেচ্ছাসেবীরা।



পূর্ণয় সংগঠনের ব্যানারে শতাধিক সদস্যের মধ্যে যারা মুখ্য ভূমিকা রেখে এই পুঁথি সরণী তথা বিনামূল্যে বই বিতরণ উৎসবকে শতভাগ সফল করেছে তাদের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে : চাঁদপুর ভলান্টিয়ারের সভাপতি সিয়াম পাটওয়ারী, সাধারণ সম্পাদক তানজিলুল হাকিম, এনসিটিএফ'র সভাপতি আঞ্জুমান আরা আকসা, সহ-সভাপতি মোহাম্মদ তারেক, মেহবুবা শারমিন প্রমুখ।



পূর্ণয়ের সভাপতি সিয়াম পাটোয়ারী বলেন, আমাদের মূল লক্ষ্য হলো মানুষের হাতে শর্তহীন বিনামূল্য বই তুলে দেয়া এবং সকলকে বই পড়ার সুযোগ করে দেয়া। সংগঠনের সহ-সভাপতি তানজিলুল হামিম বলেন, বই মানুষের অন্যতম ভালো বন্ধু। বই ব্যক্তিকে আলোকিত করে। তাই বইয়ের সাথে মানুষের সম্পর্ক গাঢ় করতেই আমাদের এ আয়োজন। স্মার্টার টিচিং ফর অল-এর প্রতিষ্ঠাতা মোঃ তাওহিদুল ইসলাম বলেন, সারাদেশের মানুষের মাঝে চাঁদপুর জেলাকে নতুন আঙ্গিকে তুলে ধরার লক্ষ্যে এ আয়োজন। যারা আমাদের বই দিয়ে সহযোগিতা করেছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। এনসিটিএফ চাঁদপুর-এর সভাপতি আঞ্জুমান আরা আফসা বলেন, এখান থেকে পাঠকের হাতে শর্তহীন বিনামূল্য বই তুলে দেয়া এবং সকলকে বই পড়ার সুযোগ করে দেয়ার লক্ষ্যে আমাদের এ আয়োজন। আমাদের এ আয়োজনে মেয়র মহোদয়সহ যাঁরা সহযোগিতা করেছেন তাঁদের প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা।



 


হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২-সূরা বাকারা


২৮৬ আয়াত, ৪০ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


২০। বিদ্যুৎ চমক তাহাদের দৃষ্টিশক্তি প্রায় কাড়িয়া লয়। যখনই বিদ্যুতালোক তাহাদের সম্মুখে উদ্ভাসিত হয় তাহারা তখনই পথ চলিতে থাকে এবং যখন অন্ধকারাচ্ছন্ন হয় তখন তাহারা থমকিয়া দাঁড়ায়। আল্লাহ ইচ্ছা করিলে তাহাদের শ্রবণ ও দৃষ্টিশক্তি হরণ করিতেন। আল্লাহ সর্ববিষয়ে সর্বশক্তিমান।


 


 


assets/data_files/web

নত হই ছোট নাহি হই কোনমতে।


_রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর/কণিকা।


ডান হাত যা দান করে বাম হাত তা জানতে পারে না-এমন দানই সর্বোৎকৃষ্ট দান।


 


 


 


 


করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ৬,৪৪,৪৩৯ ১৩,২১,৯৪,৪৪৭
সুস্থ ৫,৫৫,৪১৪ ১০,৬৪,২৬,৮২২
মৃত্যু ৯,৩১৮ ২৮,৬৯,৩৬৯
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৬৪৫৪৪৯
পুরোন সংখ্যা