চাঁদপুর, শুক্রবার ৫ মার্চ ২০২১, ২০ ফাল্গুন ১৪২৭, ২০ রজব ১৪৪২
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
চাঁদপুরে বিএফএফ-সমকাল জাতীয় স্কুল বিজ্ঞান বিতর্ক উৎসব সম্পন্ন
এই বিতর্ক শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞানমনস্ক করে তুলতে সহায়ক হবে
--------------জেলা প্রশাসক
চাঁদপুর কণ্ঠ রিপোর্ট
০৫ মার্চ, ২০২১ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


'বিতর্ক মানেই যুক্তি, বিজ্ঞানে মুক্তি' এই সস্নোগানে চাঁদপুরে উৎসবমুখর ও আনন্দঘন পরিবেশে সমকাল-বিএফএফ জাতীয় স্কুল বিজ্ঞান বিতর্ক উৎসব-২০২১ সম্পন্ন হয়েছে। গতকাল ৪ মার্চ বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চাঁদপুর প্রেসক্লাবে জেলার ৮ স্কুলের বিতার্কিকদের প্রাণবন্ত যুক্তিতর্ক এবং উপস্থিতিতে এই উৎসব সম্পন্ন হয়। সকাল সাড়ে ৯টায় বিতর্ক উৎসবের প্রথম পর্বের প্রধান অতিথি হিসেবে উদ্বোধন করেন চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ। বিকেলে সমাপনী পর্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে চ্যাম্পিয়ন ও রানারআপ দলের হাতে পুরস্কার তুলে দেন চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র মোঃ জিল্লুর রহমান জুয়েল।



এই প্রাণবন্ত বিতর্কে চাঁদপুর আল-আমিন একাডেমী স্কুল এন্ড কলেজ মাতৃপীঠ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়কে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হবার গৌরব অর্জন করে। সেরা বক্তা হিসেবে নির্বাচিত হয় আল-আমিন একাডেমী স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থী ফাহমিদা আক্তার নিমু।



বিতর্কে অংশ নেয়া স্কুলগুলো হচ্ছে : বাবুরহাট স্কুল এন্ড কলেজ, আল-আমিন একাডেমী স্কুল এন্ড কলেজ, মাতৃপীঠ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, হাসান আলী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, লেডী দেহলভী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, হামানকর্দ্দি পলি্লমঙ্গল উচ্চ বিদ্যালয়, পুরাণবাজার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এবং গণি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়।



উদ্বোধনপর্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ বলেন, 'বিতর্ক মানেই যুক্তি, বিজ্ঞানে মুক্তি' এই শ্লোগানকে সামনে রেখে সমকাল-বিএফএফ জাতীয় স্কুল বিজ্ঞান বিতর্ক উৎসব চাঁদপুরসহ সারাদেশে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এটি সময়োপয়োগী একটি আয়োজন। আমি আয়োজকদের ধন্যবাদ জানাই। বিজ্ঞানভিত্তিক এই বিতর্ক প্রতিযোগিতা শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞানমনস্ক করে তুলতে সহায়ক ভূমিকা রাখবে। আমাদের সন্তানদের পুঁথিগত শিক্ষার পাশাপাশি নৈতিক শিক্ষা অর্জনে এই ধরনের আয়োজন বিশেষ ভূমিকা রাখবে।



শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে জেলা প্রশাসক বলেন, তোমরা সবসময় তোমাদের বাবা-মায়ের কথা শুনবে এবং যে কোনো বিষয় বাবা-মায়ের পরামর্শ নিবে। আমি নিজেও শিক্ষাজীবনে আমার বাবা-মায়ের পরামর্শ নিয়েছি। এমনকি আমি কোন্ বিষয়ে পড়বো সেটিও আমার বাবা নির্ধারণ করে দিয়েছেন। নিজেদের কেবল শিক্ষিত নয়, সুশিক্ষা এবং নৈতিক শিক্ষায় শিক্ষিত করে তুলবে। আজকের দিনে চলতে হলে যুক্তি দিয়েই যৌক্তিক অবস্থানে যেতে হয়। আর সেটা বিতর্কের মাধ্যমে সম্ভব। যা তোমরা করে যাচ্ছো।



বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র জিল্লুর রহমান জুয়েল বলেন, যুক্তি ছাড়া মুক্তি নেই। অন্ধ বিশ্বাসের কোনো কিছু সুন্দর সমাধান হয় না। যুক্তি দিয়েই সমাধানে যেতে হয়। সমকাল এমন একটি আয়োজন করায় তাদের ধন্যবাদ জানাই। আগামীতে এমন আয়োজন চাঁদপুরে আরও বেশি করে হবে বলে আমি আশা রাখি। এক্ষেত্রে পৌরসভার পক্ষ থেকে প্রয়োজনে সহযোগিতা করা হবে।



উদ্বোধনী ও সমাপনী অনুষ্ঠানে সমকাল সুহৃদ সমাবেশ চাঁদপুর জেলা শাখার সভাপতি ডাঃ পীযূষ কান্তি বড়ুয়ার সভাপ্রধানে ও সমকাল জেলা প্রতিনিধি ইকবাল হোসেন পাটোয়ারীর পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর অসিত বরণ দাশ, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি কাজী শাহাদাত, সাধারণ সম্পাদক রহিম বাদশা, চাঁদপুর সরকারি কলেজের পদার্থবিদ্যা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন বাহার, বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সাইদুজ্জামান, শিল্পচূড়ার আহ্বায়ক মাহবুবুর রহমান সেলিম, সুহৃদ সমাবেশের সহ-সভাপতি আবু সায়েম, সাধারণ সম্পাদক মোঃ খায়রুল আহছান সুফিয়ান প্রমুখ।



বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন চাঁদপুর সরকারি কলেজের পদার্থবিদ্যা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন বাহার, চাঁদপুর বিতর্ক একাডেমির অধ্যক্ষ ডাঃ পীযূষ কান্তি বড়ুয়া ও বাবুরহাট কলেজের প্রভাষক মাসুদুর রহমান। মডারেটরের দায়িত্ব পালন করেন রাজন চন্দ্র দে, শিক্ষক আবু সালেহ রণি এবং জায়েদুর রহমান নিরব।



বিতর্ক উৎসবের সমন্বয়কারী ছিলেন সমকালের চাঁদপুর জেলা প্রতিনিধি ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী। সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন সুহৃদ সমাবেশের সহ-সভাপতি আবু সায়েম ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ খায়রুল আহছান সুফিয়ান। এর আগে সমবেত স্বরে জাতীয় সংঙ্গীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে এই বিতর্ক উৎসবের শুভ সূচনা করা হয়। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়া বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক প্রতিনিধি, অভিভাবকসহ সাংবাদিক ও সুধীজন।



 


হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২-সূরা বাকারা


২৮৬ আয়াত, ৪০ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


২০। বিদ্যুৎ চমক তাহাদের দৃষ্টিশক্তি প্রায় কাড়িয়া লয়। যখনই বিদ্যুতালোক তাহাদের সম্মুখে উদ্ভাসিত হয় তাহারা তখনই পথ চলিতে থাকে এবং যখন অন্ধকারাচ্ছন্ন হয় তখন তাহারা থমকিয়া দাঁড়ায়। আল্লাহ ইচ্ছা করিলে তাহাদের শ্রবণ ও দৃষ্টিশক্তি হরণ করিতেন। আল্লাহ সর্ববিষয়ে সর্বশক্তিমান।


 


 


assets/data_files/web

নত হই ছোট নাহি হই কোনমতে।


_রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর/কণিকা।


ডান হাত যা দান করে বাম হাত তা জানতে পারে না-এমন দানই সর্বোৎকৃষ্ট দান।


 


 


 


 


করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ৬,৪৪,৪৩৯ ১৩,২১,৯৪,৪৪৭
সুস্থ ৫,৫৫,৪১৪ ১০,৬৪,২৬,৮২২
মৃত্যু ৯,৩১৮ ২৮,৬৯,৩৬৯
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৬৪১৭০৭
পুরোন সংখ্যা