চাঁদপুর, শনিবার ২৪ অক্টোবর ২০২০, ৮ কার্তিক ১৪২৭, ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • --
মেয়র জিল্লুর রহমান জুয়েলের ক'জন সহপাঠী বন্ধুর সাথে একান্ত আলাপচারিতা
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৩ বছরের ইতিহাসে এমন জনপ্রিয় নেতা আসেনি
----------প্রফেসর এবিএম আবু নোমান, ডীন আইন অনুষদ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়
এএইচএম আহসান উল্লাহ
২৪ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুর পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র অ্যাডঃ জিল্লুর রহমান জুয়েলের জনপ্রিয়তা অর্জনের পেছনে কী জাদুর রহস্য থাকতে পারে তা এই নির্বাচনের সময় চাঁদপুরবাসী কিছুটা ধারণা পেয়েছে। তাঁর সহপাঠী বন্ধুদের থেকে যেমনটি ধারণা পাওয়া গেছে, তেমনিই কিছু গুণাগুণ তাঁর মাঝে দেখা গেছে গত ১০ অক্টোবর অনুষ্ঠিত চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনের সময়। প্রথমতঃ তাঁর মাঝে হিংসাত্মক মনোভাব নেই এবং তিনি প্রতিহিংসাপরায়ণ নন। আরেকটি গুণ হচ্ছে- তিনি চরম শত্রুকেও আপন করে নিতে পারেন। তাঁর ক'জন বন্ধু তাঁর সম্পর্কে এই দুটি গুণের পাশাপাশি আরেকটি কথা বললেন। সেটি হলো- 'জুয়েলের চেহারার মধ্যে একটা মায়াবী ছাপ আছে। দেখেন, তার চেহারার দিকে তাকিয়ে দেখেন, যে কোনো লোকের মায়া চলে আসবে তার দিকে তাকালে'।



এভাবেই জুয়েলকে নিয়ে প্রশংসার বন্দনা করলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের তাঁর তিন সহপাঠী বন্ধু প্রফেসর এবিএম আবু নোমান, অ্যাডঃ প্রতীক কুমার দেব এবং অ্যাডঃ ইয়াছিন খোকন। এঁদের মধ্যে এবিএম আবু নোমান চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুষদের ডীন এবং বিভাগের চেয়ারম্যান, প্রতীক কুমার দেব চট্টগ্রাম জজ কোর্টের অ্যাডিশনাল পিপি ও ইয়াছিন খোকন হচ্ছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী। এই তিন বন্ধু গতকাল শুক্রবার চাঁদপুর এসেছেন তাঁদের বন্ধু চাঁদপুর পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র অ্যাডঃ জিল্লুর রহমান জুয়েলের সাথে সাক্ষাৎ করতে। ঘটনাক্রমে দুপুরের খানিকটা পর হোটেল গ্র্যান্ড হিলশায় এই প্রতিবেদকের সাক্ষাৎ হয় জিল্লুর রহমান জুয়েলসহ তাঁর তিন সহপাঠী বন্ধুর সাথে। সাথে আরো ছিলেন চাঁদপুর জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মাহফুজুর রহমান টুটুল, সদস্য আব্দুল গণি গাজী, আনোয়ার হোসেন আনু, সঞ্জীত পোদ্দার এবং আলহাজ ফারুক আহমেদ কাকন।



জিল্লুর রহমান জুয়েলের সহপাঠী বন্ধুদের সাথে কিছুক্ষণ আড্ডা হয় হোটেল গ্র্যান্ড হিলশার বলরুমে। আড্ডার বেশি সময়ই কথা হয় জিল্লুর রহমান জুয়েলের প্রসঙ্গে। বন্ধুদের মধ্যে প্রফেসর এবিএম আবু নোমান এই প্রতিবেদককে উদ্দেশ্য করে বললেন, ভাই আপনারা ভাগ্যবান। জুয়েলের মতো এমন একজন অসম্ভব জনপ্রিয় এবং ভালো একজন নেতা আপনারা পেয়েছেন। তাও এখন পৌর মেয়র। তখন তাঁর কাছে এই প্রতিবেদক জানতে চাইলেন জুয়েলের এই জনপ্রিয়তার পেছনে রহস্য কী? জবাবে প্রফেসর নোমান ধারাবাহিকভাবে জুয়েলের কয়েকটি গুণের কথা বললেন। তিনি বললেন, জুয়েলের মধ্যে প্রধান যে গুণটি রয়েছে সেটি হচ্ছে- তার মাঝে হিংসাত্মক মনোভাব এবং প্রতিহিংসা জিনিসটি নেই। আরেকটি হচ্ছে- চরম শত্রুকেও জুয়েল আপন করে নিতে পারেন। দেখা গেছে যে, শত্রু আসছে তার ক্ষতি করার জন্যে, আর সে শত্রুকেই জুয়েল বুকে টেনে নিয়ে বললো- তোমার কোনো ক্ষতি আমি করবো না। এভাবেই দেখা গেছে যে, চরম শত্রুও তার আপন হয়ে গেছে। আরেকটি কথা প্রফেসর নোমানসহ অন্যরা বললেন, 'তার চেহারার মধ্যে একটা মায়াবী ছাপ আছে। দেখেন তাকিয়ে দেখেন। তার চেহারার দিকে তাকালেই যে কারো মায়া চলে আসবে এবং তার ভক্ত হয়ে যাবে'। তখন কিছুটা হাস্যরস সৃষ্টি হয়।



জিল্লুর রহমান জুয়েলের এই তিন বন্ধু আরো বললেন, আমরা কাউকে খাটো করছি না। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৩ বছরের ইতিহাসে জুয়েলের মতো এতোটা জনপ্রিয় নেতা আসে নি। জুয়েল এখনো যদি ক্যাম্পাসে যায়, তাকে একনজর দেখার জন্য ভিড় লেগে যায়। কথোপকথনের পুরো সময়টাতে জুয়েল চুপ থাকলেও এ সময়ে একটু করে বললেন, আমার নির্বাচনের সময় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এলাকার রিঙ্া চালকরা ফোন করে আমাকে বলেছে, ভাই আমরা আপনার নির্বাচনে কাজ করার জন্য কি চাঁদপুরে আসবো? আমি তাদেরকে নিষেধ করেছি।



জুয়েলের বন্ধুরা আরো বললেন, রাজনীতিতে জুয়েল যে জায়গায় ছিলো, ইচ্ছা করলে সে শত কোটি টাকার মালিক হতে পারতো। কিন্তু ওই দিকে সে লোভ করে নি। তাকে যখন আমরা বলতাম, কী দোস্ত তুমি এমন কেনো? তুমি ক্ষমতায় থেকে কিছু করছ না কেনো? তখন সে বলতো, দোস্ত ওয়েট এন্ড সি। অপেক্ষা করো, নিশ্চয়ই আল্লাহর পক্ষ থেকে এমন কিছু একটা পাবো।



সত্যিই, জিল্লুর রহমান জুয়েল আল্লাহর পক্ষ থেকেই পেয়েছেন। তাঁর জীবনের প্রথম নির্বাচন চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র পদে নির্বাচন। প্রথম চাওয়াতেই ক্ষমতাসীন দলের তথা আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে গেলেন। নৌকা মনোনয়ন নিয়ে জীবনের প্রথম নির্বাচনেই তিনি চমক দেখালেন। বিপুল ভোটে তো জয়লাভ করেছেনই, এমনকি পৌরসভার সব ক'টি কেন্দ্রে তথা ৫২টি কেন্দ্রেই তিনি বিজয়ী হয়ে তাঁর জনপ্রিয়তার প্রমাণ তিনি দেখিয়েছেন।



উল্লেখ্য, জিল্লুর রহমান জুয়েলদের ব্যাচটা হচ্ছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ল' বিভাগের প্রথম ব্যাচ। এই ব্যাচের শিক্ষার্থীরা দেশে এবং বিদেশে অনেক উচ্চ পর্যায়ে আছেন। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় আইন অনুষদ অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি হচ্ছেন জিল্লুর রহমান জুয়েল, আর সেক্রেটারী হচ্ছেন প্রফেসর এবিএম আবু নোমান।



 


হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৭৯-সূরা নাযি 'আত


৪৬ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


৫। অতঃপর যাহারা সকল কর্ম নির্বাহ করে।


৬। সেই দিন প্রথম শিংগাধ্বনি প্রকম্পিত করিবে,


৭। উহাকে অনুসরণ করিবে পরবর্তী শিংগাধ্বনি,


৮। কত হৃদয় সেই দিন সন্ত্রস্ত হইবে,


 


 


যারা কখনো ক্ষতিগ্রস্ত হতে চায় না, তারা কোনোদিন লাভবান হতে পারে না।


-ডেভিড জেফারসন।


 


 


কাউকে অভিশাপ দেওয়া সত্যপরায়ণ ব্যক্তির উচিত নয়।


 


 


ফটো গ্যালারি
করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ৪,৩৬,৬৮৪ ৫,৫৪,২৮,৫৯৬
সুস্থ ৩,৫২,৮৯৫ ৩,৮৫,৭৮,৭০৩
মৃত্যু ৬,২৫৪ ১৩,৩৩,৭৭৮
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৬০৮৬২৪
পুরোন সংখ্যা