চাঁদপুর, বৃহস্পতবিার ৩০ জানুয়ারি ২০২০, ১৬ মাঘ ১৪২৬, ৪ জমাদউিস সানি ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • চাঁদপুরের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী লায়ন কাজী মাহাবুবুল হক স্কয়ার হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে আছেন, তার জন্য সকলের নিকট দোয়া চেয়েছেন পরিবারবর্গ
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৭৬-সূরা দাহ্র বা ইন্সান


৩১ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৬। এমন একটি প্রস্রবণ যাহা হইতে আল্লাহ্র বান্দাগণ পান করিবে, তাহারা এই প্রস্রবণকে যথা ইচ্ছা প্রবাহিত করিবে।


৭। তাহারা কর্তব্য পালন করে এবং সেই দিনের ভয় করে, যেই দিনের বিপত্তি হইবে ব্যাপক।


 


 


assets/data_files/web

অশিক্ষিত সন্তানের চেয়ে সন্তান না থাকাই ভালো।


-জন হে উড।


 


 


 


কবরের উপর বসিও না এবং উহার দিকে মুখ করিয়া নামাজ পড়িও না।


 


 


ফটো গ্যালারি
প্রশাসনের নজর দেয়া জরুরি
শ্রমিক ইউনিয়নের নামে চাঁদাবাজি
সোহাঈদ খান জিয়া
৩০ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুর পৌর এলাকায় শ্রমিক ইউনিয়নের নামে চলে আসছে চাঁদাবাজি। চাঁদাবাজি বন্ধে কাউকে এগিয়ে আসতে দেখা যায়নি। একটি চক্র গত ১ জানুয়ারি থেকে শ্রমিক ইউনিয়নের রিসিট দিয়ে সিএনজি অটোরিকশা চালকদের কাছ থেকে ১০ টাকা হারে চাঁদা আদায় করছে।



জানা যায়, শ্রমিক ইউনিয়নের নামে দুটি পক্ষ কাজ করে। এ নিয়ে মামলা পর্যন্ত হয়েছে এবং চাঁদপুরের সাবেক পুলিশ সুপার সামছুন্নাহার এ চাঁদা উত্তোলন বন্ধ করে দেন।



চলতি বছরের প্রথম দিন থেকে পুনরায় অপর পক্ষ চাঁদা উত্তোলন করে আসছে। চাঁদা উত্তোলন বন্ধে কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ রিপন পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ দেন। পরে মডেল থানার পুলিশ চাঁদা উত্তোলনকারী ক'জনকে আটক করে। কিন্তু চাঁদপুর টোলঘর ও বাবুরহাটে দুই ব্যক্তি এখনো চাঁদা উত্তোলন করে আসছে।



এ ব্যাপারে সিএনজি-অটোরিকশা চালকদের অনেকে জানান, ব্রিজ টোল এবং শ্রমিক ইউনিয়নের নামে চাঁদা দিয়ে শহরে প্রবেশ করতে হয়। এতে আমাদের অতিরিক্ত টাকা গুণতে হয়। শ্রমিক ইউনিয়নের টাকা না দিলে টাকা উত্তোলনকারীরা আমাদের সাথে ঝগড়া করে খারাপ আচরণ করে, আবার মারতেও আসে। তাই বাধ্য হয়ে টাকা দিয়ে থাকি। শ্রমিক ইউনিয়নের নামে নেয়া টাকা উত্তোলন বন্ধ করতে চাঁদপুরের পুলিশ সুপারের সহযোগিতা কামনা করেছেন ভুক্তভুগীরা।



 


করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ৩,৩৯,৩৩২ ২,৯২,০১,৬৮৫
সুস্থ ২,৪৩,১৫৫ ২,১০,৩৫,৯২৬
মৃত্যু ৪,৭৫৯ ৯,২৮,৬৮৬
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৫৭২৬৭৭
পুরোন সংখ্যা