চাঁদপুর, বৃহস্পতবিার ৩০ জানুয়ারি ২০২০, ১৬ মাঘ ১৪২৬, ৪ জমাদউিস সানি ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬৭-সূরা মুল্ক


৩০ আয়াত, ২ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


৬। যাহারা তাহাদের প্রতিপালককে অস্বীকার করে তাহাদের জন্য রহিয়াছে জাহান্নামের শাস্তি, উহা কত মন্দ প্রত্যাবর্তনস্থল।


 


 


assets/data_files/web

আমার নিজের সৃষ্টিকে আমি সবচেয়ে ভালোবাসি।


-ফার্গসান্স।


 


 


 


যে শিক্ষা গ্রহণ করে তার মৃত্যু নেই।


 


 


ফটো গ্যালারি
সাহিত্য একাডেমীর মাসিক সাহিত্য আসর ও 'জীবনের গান' গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন
'জীবনের গান' গ্রন্থটি বাস্তব জীবনেরই আলেখ্য
--ডাঃ সৈয়দা বদরুন নাহার চৌধুরী
চাঁদপুর কণ্ঠ রিপোর্ট
৩০ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


সাহিত্য একাডেমী চাঁদপুরের ৭৩তম মাসিক সাহিত্য আসর অনুষ্ঠিত হয়েছে। আসরে তৃপ্তি সাহার প্রথম গ্রন্থ 'জীবনের গান'-এর মোড়ক উন্মোচন করা হয়।



একাডেমীর মহাপরিচালক কাজী শাহাদাতের সভাপ্রধানে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ সৈয়দা বদরুন নাহার চৌধুরী। তৃপ্তি সাহার বই নিয়ে আলোচনা করেন কবি ও প্রাবন্ধিক পীযূষ কান্তি বড়ুয়া।



প্রধান অতিথির বক্তব্যে ডাঃ সৈয়দা বদরুন নাহার চৌধুরী বলেন, চাঁদপুর নানা সম্পদে সমৃদ্ধ। অনেক গুণীজন চাঁদপুরে জন্মেছেন। রবীন্দ্রনাথসহ অনেক গুণীজন চাঁদপুরে এসেছেন। আজ সাহিত্য একাডেমিতে সাহিত্যপ্রেমীদের মিলনমেলা বসেছে। এখানে এসে কিছু বলতে পেরে আমি আনন্দিত।



তিনি বলেন, তৃপ্তি সাহা 'জীবনের গান' গ্রন্থে জীবন ও সমাজের নানা বিষয় তুলে ধরেছেন। গ্রন্থটি বাস্তব জীবনের আলেখ্য। গ্রন্থে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে লেখা রয়েছে। এজন্যে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে আমি তাকে বিশেষ ধন্যবাদ জানাই।



আলোচকের বক্তব্যে পীযূষ কান্তি বড়ুয়া বলেন, 'জীবনের গান' তৃপ্তি সাহার জন্যে একটি মাইলফলক। এ গ্রন্থে সহজ ভাষায় লেখক তার অনুভব, চিন্তার প্রকাশ ঘটিয়েছেন। বইটির প্রচ্ছদ ও নামলিপি চমৎকার হয়েছে। গ্রন্থভুক্ত ৩৮টি রচনা ভিন্ন ভিন্ন স্বাদের। মানবিক দৃষ্টি নিয়ে জীবনের নানা ঘটনা তিনি লেখায় তুলে ধরেছেন। আমরা তৃপ্তি সাহাকে ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানাই।



লেখক তৃপ্তি সাহা বলেন, আজকে আমার গ্রন্থটির মোড়ক উন্মোচন করেছে সাহিত্য একাডেমী। আমি আনন্দিত হয়েছি। এজন্যে আমি সকলকে কৃতজ্ঞতা জানাই।



একাডেমীর মহাপরিচালক কাজী শাহাদাত বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষের ক্ষণগননা চলছে। লেখকরা তাদের সাহিত্যকর্মের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে অনুভূতি প্রকাশ করবেন। তাহলে মুজিববর্ষ উদ্যাপন তাৎপর্যপূর্ণ হবে।



তিনি বলেন, আমাদের সাহিত্য আসর প্রকৃতার্থেই প্রবীণ-নবীন লেখকদের মিলনমেলায়। তৃপ্তি সাহার 'জীবনের গান' গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন আজকের আসরকে আরো প্রাণবন্ত করেছে।



'জীবনের গান' নিয়ে কথা বলেন মাহমুদা খানম, মুক্তা পীযূষ, কাদের পলাশ, মুহাম্মদ ফরিদ হাসান, এইচএম জাকির ও ফাতেমা আক্তার শিল্পী। আসরে রবীন্দ্রসঙ্গীত ও নজরুলসঙ্গীত পরিবেশন করেন শিল্পী রিয়া চক্রবর্তী। গল্প পাঠ করেন ইয়াছিন দেওয়ান। কবিতা পাঠ করেন মাহবুবুর রহমান সেলিম, শরীফ উল্লাহ ও ফাতেমা আক্তার শিল্পী।



সাহিত্য আসরে উপস্থিত ছিলেন তছলিম হোসেন হাওলাদার, পরেশ সাহা, তাছলিমা মুনি্ন, শাহমুব জুয়েল, মিতু আক্তার, কবি আলিজা হোসেন, টিআইবির এরিয়া ম্যানেজার মোঃ মাসুদ রানা, বঙ্গবন্ধু লেখক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল হোসাইন, কবির হোসেন মিজি, ফেরারি প্রিন্স, ছায়া পোদ্দার, আনিস আরমান, আদিবা তাসনিম, সাদিয়া রহমান, সুমাইয়া রহমান সুখী, সাহেদ হোসেন, তাসনুভা রহমান তন্বী, মাহমুদা সাথী, আবদুল্লাহ আল মামুন, আনিকা প্রমুখ।


আজকের পাঠকসংখ্যা
২৫৮০৭৪
পুরোন সংখ্যা