চাঁদপুর, বৃহস্পতবিার ৩০ জানুয়ারি ২০২০, ১৬ মাঘ ১৪২৬, ৪ জমাদউিস সানি ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৭৬-সূরা দাহ্র বা ইন্সান


৩১ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


২১। তাহাদের আবরণ হইবে সূক্ষ্ম সবুজ রেশম ও স্থুল রেশম, তাহারা অলংকৃত হইবে রৌপ্য নির্মিত কংকনে, আর তাহাদের প্রতিপালক তাহাদিগকে পান করাইবেন বিশুদ্ধ পানীয়।


২২। অবশ্য, ইহাই তোমাদের পুরস্কার এবং তোমাদের কর্মপ্রচেষ্টা স্বীকৃত।


 


assets/data_files/web

ভয়কে যারা মানে তারাই জাগিয়ে রাখে ভয়।


-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।


 


 


 


 


যে ব্যক্তি নীরবতা অবলম্বন করেছে সে মুক্তি লাভ করেছে।


 


ফটো গ্যালারি
বছরজুড়ে নানা অপরাধচিত্র
ফরিদগঞ্জে ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে মাদক
ইয়াবা ৩০ হাজার ৪৫৮ পিচ, গাঁজা ৭ কেজি ও অস্ত্র উদ্ধার ৬টি গ্রেফতার ১ হাজার ৮৯৩
নূরুল ইসলাম ফরহাদ
৩০ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


ফরিদগঞ্জে মাদক ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে মাদকের স্বর্গরাজ্য ফরিদগঞ্জ। জালের মতো তা ছড়িয়ে গেছে উপজেলার প্রায় প্রতিটি গ্রামে। ফরিদগঞ্জ থানা সূত্রে জানা যায়, গত এক বছর তথা ১ জানুয়ারি থেকে ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯ পর্যন্ত ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশ ৩০ হাজার ৪শ' ৫৮ পিচ ইয়াবা, প্রায় ৭ কেজি গাঁজা ও চোলাই মদ ৮ লিটার উদ্ধার করেছে। এছাড়া সেমি অটোমেটিক ৭.৬৫ বিদেশী পিস্তল ১টি, পাইপগান ১টি, চার রাউন্ড কার্তুজ ১টি, চাইনিজ কুড়াল ১টি, বাটযু্ক্ত রামদা ১টি ও চাপাতি ১টি উদ্ধার করে। চোরাই মালামালের মধ্যে মোটরসাইকেল ৩টি, সিএনজি স্কুটার ১টি, হারানো মোবাইল উদ্ধার ৩৫টি, ৫ ভরি ৩ আনা লুণ্ঠিত স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ ৪৫ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়। এক বছরে ওয়ারেন্ট তামিলসহ অন্যান্যভাবে গ্রেফতার করা হয়েছে ১ হাজার ৮শ' ৯৩ জনকে।



সূত্রে থেকে জানা যায়, গত বছর ১৬টি চুরি ও ডাকাতির ঘটনা ঘটে উপজেলাজুড়ে। চুরি ও ডাকাতির অভিযোগে ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশ ১২ জনকে আটক করে। এ সময় ডাকাতের অস্ত্রের আঘাতে ৩জন গুরুতর আহত হয়। এছাড়াও পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে ১ ডাকাত নিহত হয়।



গত এক বছরে ফরিদগঞ্জে ডাকাতির উল্লেখযোগ্য ঘটনা হলো, ১৬ ফেব্রুয়ারি উপজেলার ইসলামপুরে ডাকাত দল বাড়ির গৃহকর্তার হাত-পা বেঁধে নগদ ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা এবং আনুমানিক ১ লাখ টাকা মূল্যের স্বর্ণ নিয়ে যায়। ৯ এপ্রিল পুলিশ চোরাই মালামালসহ ৩ চোরকে আটক করে। ১৯ জুন উপজেলা সদরে প্রবাসীর বাসায় চুরি। নগদ ২০ হাজার টাকা এবং ১০ ভরি স্বর্ণ নিয়ে যায়। জুলাই মাসজুড়ে বহু চুরি ও ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ১ জুলাই চান্দ্রায় ফার্মেসী থেকে নগদ ৪৫ হাজার টাকা চুরি হয়। এছাড়াও এ সময় সাহাপুর গ্রামে প্রবাসীর বাড়িতে নগদ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার চুরি হয়। অল্প কয়েকদিনের ব্যবধানে কড়ৈতলীতে আবারও চুরি হয়। এ সময় ৫২ হাজার টাকা চুরি হয়। ৩০ জুলাই কালিরবাজারে ডাকাতি হয়। এ সময় ডাকাতের আঘাতে গৃহকর্তা আহত হয়। ২৩ আগস্ট রফিকুল ইসলাম (৩৭) ও সুমন হোসেন (৩০) নামে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের দু'জনকে আটক করে ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশ। ১০ অক্টোবর লোকজনকে অচেতন করে মালামাল লুটের ঘটনায় ১ জনকে আটক করে পুলিশ। ১৮ অক্টোবর গুপ্টি থেকে আন্তঃজেলা মোটরসাইকেল চোরাই চক্রের দুই সদস্যকে আটক করে পুলিশ। ১৯ অক্টোবর ঘড়িহানায় ১০জনকে অচেতন করে ২ পরিবারের সর্বোচ্চ লুণ্ঠন করে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। ২৯ অক্টোবর পুলিশের সাথে বন্দুক যুদ্ধে এক ডাকাত নিহত হয়। ২৬ নভেম্বর মোটরসাইকেল ছিনতাই করে পালিয়ে যাওয়ার সময় অস্ত্রসহ সাইমুম (২১) নামের একজনকে আটক করা হয়। ২৮ নভেম্বর সাহাপুরে ডাকাতি। নগদ ২ লাখ টাকা, ১৭ ভরি স্বর্ণ ও ৫টি স্মার্টফোন লুট এবং ২ জন গুরুতর আহত।



অপ্রতিরোধ্য মরণঘাতী নেশা ইয়াবা এখন নানা অপরাধের প্রধান নিয়ামক। এই ভয়াল মাদক তারুণ্য, মেধা, বিবেক, লেখাপড়া, মনুষ্যত্ব সবকিছু ধ্বংস করে দিচ্ছে। বিনষ্ট করে দিচ্ছে স্নেহ-মায়া, ভালোবাসা, পারিবারিক বন্ধন। ইয়াবায় আসক্ত সন্তানের হাতে বাবা-মা, ঘনিষ্ঠ স্বজন নির্মম অত্যাচারের শিকার হচ্ছে প্রতিনিয়ত। নেশাখোর মাদক সংগ্রহে ব্যর্থ হওয়ার ক্রোধে যেকোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারে।



গত এক বছরে ফরিদগঞ্জে মাদকের উল্লেখযোগ্য ঘটনা হলো, ২০ ফেব্রুয়ারি প্রায় ৯শ' পিচ ইয়াবাসহ আন্তঃজেলা ইয়াবা কারবারিসহ ৭ জনকে আটক করে পুলিশ। ২৭ ফেব্রুয়ারি একটি বিদেশী পিস্তল ও ইয়াবাসহ জহির (২৭) ও শাকিল (২৫) নামে দু'জনকে আটক করে পুলিশ। ৯ এপ্রিল উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ইয়াবাসহ ৬ জন মাদক কারবারিসহ ৭ জনকে আটক করা হয়। ২৮ মে সাজাপ্রাপ্ত আসামীসহ ১০ মাদক কারবারিকে আটক করে পুলিশ। ১৯ জুন সুমন সর্দার (৩৫) নামে ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামীকে মাদকসহ আটক করে পুলিশ। ৫ আগস্ট বালিথুবা থেকে পুলিশ গাঁজাসহ সোহাগ (৩০) নামে একজনকে আটক করে। ১ সেপ্টেম্বর উপজেলা সদর থেকে তিন মাদক কারবারিকে আটক করে পুলিশ। ১৮ সেপ্টেম্বর ১নং ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড মেম্বার কিরণকে ৬শ' পিচ ইয়াবাসহ আটক করে পুলিশ। ৩ নভেম্বর গাজীপুর থেকে আল আমিন (২২), নন্দলাল সূত্রধর (২৪), বিপ্লব খান (২৬) ও আখের হোসেন (২২) নামে ৪ মাদক কারবারিকে আটক করে পুলিশ। ১৯ নভেম্বর চরবসন্ত গ্রাম থেকে ৯শ' গ্রাম গাঁজাসহ ২ মাদক কারবারিকে আটক করে পুলিশ। ২৯ নভেম্বর বিষকাটালি থেকে ৫০ গ্রাম গাঁজাসহ এক নারী মাদক কারবারিকে আটক করা হয়। ২৩ ডিসেম্বর ৩শ' গ্রাম গাঁজা ও ১০ হাজার টাকাসহ আছিয়া বেগম (২৯) নামে এক মাদক কারবারিকে আটক করা হয়।



এছাড়াও ১৭ এপ্রিল জাল টাকাসহ ফাতেমা বেগম (৩০), শিল্পী বেগম (৩৫) ও তাছলিমা বেগম (২৭) কে আটক করে থানা পুলিশ। ৪ নভেম্বর পৃথক দু'টি অভিযানে ৯ জুয়াড়িকে আটক করে পুলিশ। এদিকে আশঙ্কাজনকভাবে ফরিদগঞ্জে মহিলা অপরাধীর সংখ্যা দিন দিন বেড়ে যাচ্ছে।



ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবদুর রকিব এ বিষয়ে বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। বিশেষ করে কিশোর তরুণদের বাবা-মাকে অনেক বেশী সচেতন হতে হবে। স্কুল, কলেজে গিয়ে মাদক বিরোধী ক্যাম্পেইন আমি করে যাচ্ছি। কারণ ভোক্তা কমাতে পারলেই এ আন্দোলনের সফলতা আসবে। সকল পেশাজীবী এবং সব শ্রেণির মানুষকে একযোগে মাদকের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে। যাকে যেভাবে বুঝানো যায়, বিশেষ করে মেডিকেল সায়েন্স এবং ধর্মীয় বিষয়গুলোও মাদকসেবী এবং কারবারীদের সামনে নিয়ে আসতে হবে। আমি ঠিক সেভাবেই এগুচ্ছি।



 


করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ৩,৩৯,৩৩২ ২,৯২,০১,৬৮৫
সুস্থ ২,৪৩,১৫৫ ২,১০,৩৫,৯২৬
মৃত্যু ৪,৭৫৯ ৯,২৮,৬৮৬
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৩২০৫০৮
পুরোন সংখ্যা