চাঁদপুর , শুক্রবার ২৪ জানুয়ারি ২০২০, ১০ মাঘ ১৪২৬, ২৭ জমাদউিল আউয়াল ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬৭-সূরা মুল্ক


৩০ আয়াত, ২ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


৬। যাহারা তাহাদের প্রতিপালককে অস্বীকার করে তাহাদের জন্য রহিয়াছে জাহান্নামের শাস্তি, উহা কত মন্দ প্রত্যাবর্তনস্থল।


 


 


assets/data_files/web

আমার নিজের সৃষ্টিকে আমি সবচেয়ে ভালোবাসি।


-ফার্গসান্স।


 


 


 


যে শিক্ষা গ্রহণ করে তার মৃত্যু নেই।


 


 


ফটো গ্যালারি
চাঁদপুর জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন
সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ ৪ পদে বিএনপি ও ১১ পদে আওয়ামী লীগ প্রার্থী জয়ী
চৌধুরী ইয়াসিন ইকরাম
২৪ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুর জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন গতকাল বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ৪টি পদে বিএনপি সমমনা প্যানেলের প্রার্থীরা জয়ী হয়েছে। আর বাদ বাকি ১১টি পদে জয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ সমমনা প্যানেলের প্রার্থীরা।



গতকাল দুপুর ১২টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। সমিতির ২৯২ ভোটারদের মধ্যে ২৮৭জন ভোটার ভোট প্রদান করেন। ভোট গণনা শেষে রাত সাড়ে ১০টায় ফলাফল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার অ্যাডঃ শেখ জহিরুল ইসলাম। প্রাপ্ত ফলাফলে দেখা গেছে যে, সভাপতি পদে জয়ী হয়েছেন বিএনপি সমর্থিত প্যানেলের সভাপতি প্রার্থী আলহাজ্ব অ্যাডঃ ইব্রাহিম খলিল। তাঁর প্রাপ্ত ভোট ১৪৯। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্যানেলের সভাপতি প্রার্থী অ্যাডঃ রুহুল আমিন সরকার পেয়েছেন ১৩২ ভোট। সাধারণ সম্পাদক পদেও বিএনপি সমর্থিত প্যানেলের প্রার্থী অ্যাডঃ মোঃ এমরান হোসেন জয়ী হয়েছেন। তার প্রাপ্ত ভোট ১৪৫। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্যানেলের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী অ্যাডঃ মোঃ ইমদাদুল হক পাটওয়ারী পেয়েছেন ১৪০ ভোট।



এ নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলো আওয়ামী লীগ সমর্থিত সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ ও বিএনপি সমর্থিত সমমনা আইনজীবী ঐক্যফ্রন্টের দুটি পূর্ণাঙ্গ প্যানেল। ১৫টি পদের বিপরীতে দুই প্যানেলে ৩০জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করেছেন জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডঃ শেখ জহিরুল ইসলাম ও রিটার্নিং অফিসারের দায়িত্ব পালন করেছেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডঃ মোঃ শাহাদাত হোসেন।



নির্বাচনে বিজয়ী ও বিজিত প্রার্থীরা হচ্ছেন : সিনিয়র সহ-সভাপতি পদে অ্যাডঃ মোঃ মাইনুল আহছান (প্রাপ্ত ভোট ১৪২), প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী অ্যাডঃ সহিদুল হক খান পেয়েছেন ১৩৯ ভোট। জুনিয়র সহ-সভাপতি পদে তৌহিদুল ইসলাম তরুণ (প্রাপ্ত ভোট ১৪৬), প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী অ্যাডঃ এমএ হালিম পাটওয়ারী পেয়েছেন ১৩৬ ভোট। যুগ্ম সম্পাদক পদে অ্যাডঃ মোঃ বদরুল আলম চৌধুরী (প্রাপ্ত ভোট ১৭৫), প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী অ্যাডঃ মাসুদ প্রধানীয়া পেয়েছেন ১০৯ ভোট। সম্পাদক ফরমস্ পদে অ্যাডঃ রেজাউল করিম (প্রাপ্ত ভোট ১৪৬), প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী অ্যাডঃ মঞ্জুর আলম চৌধুরী পেয়েছেন ১৩৪ ভোট। সম্পাদক লাইব্রেরি পদে অ্যাডঃ দিরান মেহেবুবা ইনজেনা ইয়ারিন (প্রাপ্ত ভোট ১৪৭), প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী অ্যাডঃ কামাল হোসেন পেয়েছেন ১৩৬ ভোট। সম্পাদক সমাজকল্যাণ ও সেমিনার পদে অ্যাডঃ মোঃ ইমাম হোসেন টিটু (প্রাপ্ত ভোট ১৪৪), প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী অ্যাডঃ মুজাহিদুল ইসলাম মাসুম পেয়েছেন ১৩৭ ভোট। জেনারেল অডিটর পদে অ্যাডঃ মোহাম্মদ নূরুল আমিন খান (প্রাপ্ত ভোট ১৫৭), প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী অ্যাডঃ জাকির হোসেন পাটওয়ারী পেয়েছেন ১২০ ভোট। রানিং অডিটর পদে অ্যাডঃ মোঃ কামাল হোসেন (প্রাপ্ত ভোট ১৫৪), প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী অ্যাডঃ কামাল হোসেন পাটওয়ারী পেয়েছেন ১২৯ ভোট। চেয়ারম্যান রেজিস্ট্রারিং অথরিটি পদে অ্যাডঃ সাইফুল ইসলাম শাহিন (প্রাপ্ত ভোট ১৪৪), প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী অ্যাডঃ মাহবুবুল আলম পেয়েছেন ১৩৭ ভোট। সম্পাদক রেজিস্ট্রারিং অথরিটি পদে অ্যাডঃ আঃ কাদের খান (প্রাপ্ত ভোট ১৪০), প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী অ্যাডঃ প্রভাষ চন্দ্র সাহা পেয়েছেন ১৩৯ ভোট। রেজিস্ট্রারিং অথরিটি সদস্য পদে অ্যাডঃ মোঃ আজিজুল হক হিমেল (প্রাপ্ত ভোট ১৫৬), অ্যাডঃ সালমা আক্তার (প্রাপ্ত ভোট ১৫২), ও অ্যাডঃ মোঃ শিহাবুল আলম শিবলী (প্রাপ্ত ভোট ১৫৭)। এদের প্রতিদ্বন্দ্বী তিন প্রার্থী পেয়েছেন অ্যাডঃ মানচুর আহমেদ ১২১ ভোট, অ্যাডঃ ফারজানা আক্তার ১১৩ ও অ্যাডঃ নাদিম হোসেন ১১৩ ভোট।


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৩০৫০৫৫
পুরোন সংখ্যা