চাঁদপুর, সোমবার ২০ জানুয়ারি ২০২০, ৬ মাঘ ১৪২৬, ২৩ জমাদউলি আউয়াল ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • মতলব উত্তরের আমিরাবাদ এলাকায় মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্পের মুল বেড়িবাঁধে মেঘনার আকস্মিক ভাঙ্গন শুরু
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬১-সূরা সাফ্ফ


১৪ আয়াত, ২ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


১৩। এবং তিনি দান করিবেন তোমাদের বাঞ্ছিত আরও একটি অনুগ্রহ : আল্লাহর সাহায্য ও আসন্ন বিজয়; মু'মিনদিগকে সুসংবাদ দাও।


 


 


 


 


প্রাচীন মহিলার দেহের গহনা অবশ্যই খাদবিহীন হবে।


-জুভেনাল।


 


 


কৃপণ ব্যক্তি খোদা হতে দূরে লোকসমাজে ঘৃণিত, দোজখের নিকটবর্তী।


 


ফটো গ্যালারি
শাহরাস্তিতে পিতাকে কুপিয়ে হত্যা করলো ছেলে
আহত মাকে হাসপাতালে ভর্তি
মোঃ মঈনুল ইসলাম কাজল
২০ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


শাহরাস্তি উপজেলার চিতোষী পশ্চিম ইউনিয়নের সেতি নারায়ণপুর গ্রামের বড় বাড়িতে নিজের সন্তানের হাতে খুন হয়েছেন বিএডিসির অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারী ছেরাগ আলী (৭৫)।



গতকাল রোববার সন্ধ্যা ৭টায় বসত ঘরেই এ ঘটনাটি ঘটে। খবর পেয়ে শাহরাস্তি থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পেঁৗছে আলামত সংগ্রহ করে।



ঘটনার বিবরণে জানা যায়, নিহত চেরাগ আলীর ৩ ছেলের মধ্যে ঘাতক আকবর আলী সবার বড়। বাড়ির লোকজন জানান, সে মানসিকভাবে অসুস্থ। ঘটনার সময় তার পিতার সাথে তর্ক করার এক পর্যায়ে ঘরে থাকা দা দিয়ে তার পিতাকে কুপিয়ে হত্যা করে। তার মা ফুলমতি ডাক-চিৎকার দিয়ে স্বামীকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে আকবর আলী তার মাকে মেরে আহত করে। বাড়ির লোকজন ছুটে আসলে আকবর আলী পালিয়ে যায়। চেরাগ আলী তার স্ত্রী ও বড় ছেলে আকবর আলীকে নিয়ে একত্রে বসবাস করে আসছিলেন। আকবর আলী পার্শ্ববর্তী জয়নগর এলাকায় বিয়ে করেন। তার স্ত্রী বর্তমানে বাবার বাড়িতে রয়েছেন। মেঝো ছেলে এমরান স্ত্রী-সন্তান নিয়ে আলাদা ঘরে বসবাস করছেন, ছোট ছেলে শোরসাকে কাজ করেন।



ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জোবায়ের কবির বাহাদুর জানান, সংবাদ পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে এসেছি। ঘাতক আকবর মানসিকভাবে ভারসাম্যহীন বলে শুনেছি, তবে আমি নিশ্চিত নই। শাহরাস্তি থানার ওসি শাহ আলম জানান, বাড়ির লোকজন থেকে জেনেছি ছেলেটি মানসিক ভারসাম্যহীন। তবে তদন্ত সাপেক্ষে সত্য জানা যাবে। বাবার সাথে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে এ ঘটনা ঘটে বলে ধারণা করা হচ্ছে।



 



 



 



 


করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ৩,৩৯,৩৩২ ২,৯২,০১,৬৮৫
সুস্থ ২,৪৩,১৫৫ ২,১০,৩৫,৯২৬
মৃত্যু ৪,৭৫৯ ৯,২৮,৬৮৬
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৫০১৮৩৮
পুরোন সংখ্যা