চাঁদপুর, শনিবার ১৭ আগস্ট ২০১৯, ২ ভাদ্র ১৪২৬, ১৫ জিলহজ ১৪৪০
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৫-সূরা রাহ্মান


৭৮ আয়াত, ৩ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


৭৫। সুতরাং তোমরা উভয়ে তোমাদের প্রতিপালকের কোন্ অনুগ্রহ অস্বীকার করিবে?


৭৬। উহারা হেলান দিয়া বসিবে সবুজ তাকিয়ায় ও সুন্দর গালিচার উপরে।


৭৭। সুতরাং তোমরা উভয়ে তোমাদের প্রতিপালকের কোন্ অনুগ্রহ অস্বীকার করিবে?


৭৮। কত মহান তোমার প্রতিপালকের নাম যিনি মহিমময় ও মহানুভব!


 


 


 


 


assets/data_files/web

বাণিজ্যই হলো বিভিন্ন জাতির সাম্য সংস্থাপক। -গ্লাডস্টোন।


 


 


কাহারো উপর অত্যাচার করা হইলে সে যদি সবর করিয়া চুপ থাকিতে পারে, আল্লাহ তাহার সম্মান বৃদ্ধি করিয়া দেন।


 


ফটো গ্যালারি
মতলব উত্তরে বঙ্গবন্ধুর শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন
বঙ্গবন্ধু ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখেছিলেন
------------অ্যাডঃ নূরুল আমিন রুহুল এমপি
মাহবুব আলম লাভলু
১৭ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


মতলব উত্তর উপজেলায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুলেল শ্রদ্ধা, শোক র‌্যালি, চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।



উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন অ্যাডঃ নূরুল আমিন রুহুল এমপি। তিনি বলেন, ১৯৭৫-এর ১৫ আগস্ট বিশ্বের ইতিহাসে নির্মমতার এক কালো অধ্যায়। ঘাতকরা এদিন শুধু জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যাই করেনি, হত্যা করেছিল বাঙালি জাতির মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, অগ্রযাত্রা, সমৃদ্ধি ও সুন্দর আগামীর স্বপ্নকে। বঙ্গবন্ধু ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলা নির্মাণের স্বপ্ন দেখেছিলেন। তাই এখন আর শোকে কাঁদলে চলবে না, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে শোককে শক্তিতে রূপান্তর করতে হবে।



উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারের সঞ্চালনায় এবং উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার মাহফুজ মিয়ার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এমএ কুদ্দুস, সহকারী কমিশনার (ভূমি) শুভাশীষ ঘোষ, মতলব উত্তর থানার অফিসার ইনচার্জ মিজানুর রহমান, উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী গাজী প্রমুখ।



পরে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে উপজেলার ১৪টি ইউনিয়ন ও ছেংগারচর পৌরসভায় আলোচনা সভা, মিলাদ-দোয়া ও গণভোজ অনুষ্ঠিত হয়।



ফতেপুর পশ্চিম ইউনিয়নের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় নাউরী আহম্মদিয়া উচ্চ বিদ্যালয় সভাকক্ষে। বক্তব্য রাখেন অ্যাডঃ নূরুল আমিন রুহুল এমপি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুসসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।



চাঁদপুর-২ নির্বাচনী আসনের সংসদ সদস্য ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান উপজেলার ১৪টি ইউনিয়ন এবং ছেংগারচর পৌরসভায় উপজেলার সকল স্পটেই বক্তব্য রাখেন।



 



ফরাজীকান্দি ইউনিয়নের আনন্দ বাজারে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বশির প্রধানের সভাপতিত্বে এবং সাবেক সাধারণ সম্পাদক হেলাল উদ্দিন সরকারের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শহীদ উল্যাহ প্রধান, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিঃ রেজাউল করিমসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। জহিরাবাদ ইউনিয়নের পাঁচানী চৌরামতা বাজারে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।



এখলাছপুর ইউনিয়নের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় এখলাছপুর উচ্চ বিদ্যালয় অডিটোরিয়ামে। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রেহান উদ্দিন নেতার সভাপতিত্বে ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডঃ জসিম উদ্দিনের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন নেতৃবৃন্দ। মোহনপুর স্কুল মাঠে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাইয়ের সভাপতিত্বে এবং উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা কাজী মিজানুর রহমানের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের আইন সম্পাদক অ্যাডঃ মনোয়ারুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য রাধেশ্যাম, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী শরীফ, আওয়ামী লীগ নেতা হাসান মিয়া, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন হাওলাদার, ঢাকা মহানগরের সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আমিনুল ইমলাম তপাদার।



কলাকান্দা ইউনিয়ন পরিষদ মাঠে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক গোলাম কাদির মোল্লার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোতাহার হোসেন খান সুফল, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ইঞ্জিঃ জামাল হোসেন নাহিদ প্রমুখ।



ছেংগারচর পৌর আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মনির হোসেনের সভাপতিত্বে এবং উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক অ্যাডঃ মহসীন মিয়া মানিকের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন নেতৃবৃন্দ।



এছাড়া অ্যাডঃ নূরুল আমিন রুহুল এমপি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুসসহ নেতৃবৃন্দ ষাটনল ইউনিয়ন, সাদুল্যাপুর, দুর্গাপুর, ইসলামাবাদ, সুলতানাবাদ, ফতেপুর পূর্ব, পশ্চিম ও গজরা ইউনিয়নে আলোচনা সভায় যোগ দেন।



এছাড়াও উপজেলার ১৮০টি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৫৭টি মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়।



 



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৬২৮০
পুরোন সংখ্যা