চাঁদপুর, বৃহস্পতিবার ১৫ আগস্ট ২০১৯, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৩ জিলহজ ১৪৪০
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • --
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬৪-সূরা তাগাবুন


১৮ আয়াত, ২ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


৬। উহা এইজন্য যে, উহাদের নিকট উহাদের রাসূলগণ স্পষ্ট নিদর্শনসহ আসিত তখন উহারা বলিত, 'মানুষই কি আমাদিগকে পথের সন্ধান দিবে? অতঃপর উহারা কুফরী করিল ও মুখ ফিরাইয়া লইল। কিন্তু ইহাতে আল্লাহর কিছু আসে যায় না; আল্লাহ অভাবমুক্ত, প্রশংসার্হ।


 


 


 


assets/data_files/web

মা-বাবাকে ভালোবাসা শ্রদ্ধা করা প্রকৃতির প্রথম আইন।


-ভ্যালিরিয়াস ম্যাঙ্য়িাম।


 


 


যে মুসলমান অবৈধ (হারাম) বস্তু হইতে দূরে থাকে ও ভিক্ষাবৃত্তি হইতে দূরে থাকে, যাহার শুধু একটি পরিবার (স্ত্রী), খোদাতায়ালা তাহাকেই ভালোবাসেন।


 


 


 


ফটো গ্যালারি
সুজিত রায় নন্দীর শ্রদ্ধাঞ্জলি
প্রেস বিজ্ঞপ্তি
১৫ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


আজ রক্তাক্ত ১৫ আগস্ট। সেই কলঙ্কিত কৃষ্ণ দিন। রক্তের অক্ষরে লেখা ধন্য সেই মহামানবের বিয়োগ ব্যথায় বিহ্বল হওয়ার শোকাবহ দিন। পঁচাত্তরের পনর আগস্ট গভীর রাতে সেই কৃষ্ণ মেঘ নিষ্ঠুরভাবে গ্রাস করেছিল রাজধানী ঢাকাকে। আর সেই কৃষ্ণ কালো রাতে রচিত হয় ইতিহাসের সবচাইতে নির্মম নিষ্ঠুর জঘন্যতম ঘৃণ্য কলঙ্কিত এক হত্যাযজ্ঞের। একাত্তরের পরাজিত শক্তির ঘৃণ্য সর্বনাশা চক্রান্তে একদল ঘাতক পৈশাচিকভাবে হত্যা করে বঙ্গবন্ধুকে। সেই দানবদের নিষ্ঠুর রক্তের হোলি খেলার বলি হয়েছিলেন বঙ্গবন্ধুর পরিবার-পরিজনও। হায়েনারা সেদিন রচনা করে ইতিহাসের সেই কলঙ্কিত অধ্যায়। ঘাতকচক্র সেদিন আমাদের জাতীয় ইতিহাসে যে কলঙ্কের কালিমা লেপন করেছিল, সে পথ ধরে জাতির জনকের নামটি মোছার অনেক অপচেষ্টা হয়। কিন্তু সেটি সম্ভব হয়নি। শুধু তাই নয়, মিথ্যার ধুম্রজাল সৃষ্টি হয় মহান স্বাধীনতার ঘোষণা নিয়ে। কিন্তু মিথ্যা দিয়ে কি ঢাকা যায় ইতিহাসের অমোঘ সত্যকে? তামাম বিশ্ব জানে বঙ্গবন্ধু মানেই বাংলাদেশ আর বাংলাদেশ মানেই বঙ্গবন্ধু। জাতির জনকই স্বাধীনতার স্বপ্নদ্রষ্টা। আজকের এই বেদনা বিধূর দিনে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধুসহ সেদিন যারা শহীদ হয়েছেন তাদের সকলের প্রতি জানাই শ্রদ্ধাঞ্জলি।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৮৫১৯২৯
পুরোন সংখ্যা