চাঁদপুর, শুক্রবার ১২ জুলাই ২০১৯, ২৮ আষাঢ় ১৪২৬, ৮ জিলকদ ১৪৪০
jibon dip
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৫৩-সূরা নাজম


৬২ আয়াত, ৩ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


 


assets/data_files/web

মনের যাতনা দেহের যাতনার চেয়ে বেশি। -উইলিয়াম হ্যাজলিট।


 


ন্যায়পরায়ণ বিজ্ঞ নরপতি আল্লাহর শ্রেষ্ঠ দান এবং অসৎ মূর্খ নরপতি তার নিকৃষ্ট দান।


 


ফটো গ্যালারি
উল্টো রথযাত্রার মধ্য দিয়ে শেষ হলো চাঁদপুরে ৮ দিনব্যাপী রথযাত্রা
বৃষ্টি উপেক্ষা করে হাজারো ভক্তের বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা
স্টাফ রিপোর্টার
১২ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


উল্টো রথযাত্রার মধ্য দিয়ে চাঁদপুরে শেষ হয়েছে শ্রীশ্রী জগন্নাথদেবের রথযাত্রা অনুষ্ঠান। বৃষ্টি উপেক্ষা করে হাজারো ভক্ত নর-নারী ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যপূর্ণ পরিবেশে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রায় অংশ নেয়। তারা নেচে-গেয়ে জয় জগন্নাথের ধ্বনি দিয়ে পুণ্য অর্জনের লক্ষ্যে জগন্নাাথদেব উপবিষ্ট সুসজ্জিত রথখানা সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যান। তখন জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে শত শত মানুষ সনাতন ধর্মাবলম্বী হিন্দু সমপ্রদায়ের এ উৎসব অবলোকন করেন। গতকাল বিকেলে পুরাণবাজার জগন্নাথ মন্দিরের রথখানা শহরস্থ শ্রীশ্রী কালীবাড়ি মন্দির হতে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রাসহ বের হয়ে শহরস্থ নতুনবাজার ঘোষপাড়া এলাকায় পেঁৗছলে এর সাথে যোগ দেয় ইসকন আয়োজিত জগন্নাথদেবের বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, এর পেছনেই অবস্থান নেয় নতুনবাজার গোপাল জিউড় আখড়ার শত বছরের ঐতিহ্যবাহী সুসজ্জিত রথ। তিনখানা রথের হাজারো ভক্তের উপস্থিতিতে হিন্দু সমপ্রদায়ের মাঝে এ সময় পরিলক্ষিত হয় মহামিলন। পুরাণবাজার জগন্নাথ মন্দিরের রথ হরিসভা এলাকায় নিজ মন্দিরে, ইসকন মন্দিরের রথ পুরাণবাজারস্থ ঘোষপাড়ায় নিজ মন্দিরে এবং শ্রীশ্রী গোপাল জিউড় আখড়ার রথখানা গোপালের আখড়ায় ফিরে যায়।



রথের শোভাযাত্রায় নেতৃবৃন্দের মাঝে উপস্থিত ছিলেন জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি সুভাষ চন্দ্র রায়, সাধারণ সম্পাদক তমাল কুমার ঘোষ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিমল চৌধুরী, কার্যকরী সদস্য পরেশ মালাকার, বিপ্লব চক্রবর্তী, লিটন সাহা, নেপাল সাহা, রঞ্জিত সাহা মুন্না, তাপস রায়, জয়রাম রায়, জেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি অ্যাডঃ বিনয় ভূষণ মজুমদার, সহ-সভাপতি তপন সরকার, জেলা জন্মাষ্টমী উদ্যাপন পরিষেদের সভাপতি গোপাল চন্দ্র সাহা, সাধারণ সম্পাদক অরূপ কুমার শ্যাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডাঃ সহদেব দেবনাথ, সদর উপজেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি সুশীল সাহা, সাধারণ সম্পাদক লক্ষ্মণ চন্দ্র সূত্রধর, গোপাল জিউড় আখড়া কমিটির সভাপতি দুলাল চন্দ্র কর্মকার, সাধারণ সম্পাদক চির রঞ্জন রায়, সদস্য বাপ্পী কর্মকার, গৌতম ঘোষ, সুমন সরকার জয়, ইসকন মন্দিরের অধ্যক্ষ প-িত জগদানন্দ ব্রহ্মচারী, রত্নেশ্বর হরিদাস, মুক্তিযোদ্ধা নির্মল রায়, হরিসভা জগন্নাথ মন্দিরের অধ্যক্ষ বিশাল গোবিন্দ দাসাধিকারী, উৎসব কমিটির আহ্বায়ক সমর কান্তি সাহা, সদস্য সচিব সহদেব বর্মন প্রমুখ।



পুরাণবাজার জগন্নাথ মন্দিরের শোভাযাত্রা বের হওয়ার আগমুহূর্তে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। মন্দির কমিটির সভাপতি সুভাষ চন্দ্র রায়ের সভাপ্রধানে প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর রামকৃষ্ণ আশ্রমের অধ্যক্ষ স্থির আত্মানন্দজী মহারাজ। অতিথিদের মাঝে বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ নাছিম উদ্দিন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন উৎসব কমিটির আহ্বায়ক সমীর কান্তি সাহা। উল্টো রথযাত্রার উদ্বোধন ঘোষণা করেন অ্যাডঃ বিনয় ভূষণ মজুমদার। গত ৪ জুলাই বৃহস্পতিবার বিকেলে প্রথম রথের দিন জগন্নাথ মন্দিরের রথখানা নতুনবাজার শ্রীশ্রী কালীবাড়ি মন্দিরে নিয়ে আসা হয় এবং এ স্থানে দীর্ঘ ৮ দিন যাবৎ অনুষ্ঠিত হয় হোম, যজ্ঞ, ধর্মীয় নাটক, সংগীত, নৃত্য, পূজা, প্রসাদ বিতরণসহ ধর্মীয় অনুষ্ঠান। সকল অনুষ্ঠানেই ছিলো ভক্তদের ব্যাপক উপস্থিতি। গতকাল উল্টো রথযাত্রার মধ্য দিয়ে শেষ হলো ৮ দিনব্যাপী রথযাত্রা অনুষ্ঠান।



 



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
১৭৩৪৮৯
পুরোন সংখ্যা