চাঁদপুর। শনিবার ১৭ নভেম্বর ২০১৮। ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪০
redcricent
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৪৪-সূরা দুখান

৫৯ আয়াত, ৩ রুকু, ‘মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।

৩৭। শ্রেষ্ঠ কি উহারা, না তুব্বা সম্প্রদায় ও ইহাদের পূর্ববর্তীরা? আমি উহাদিগকে ধ্বংস করিয়াছিলাম, অবশ্যই উহারা ছিল অপরাধী।

৩৮। আমি আকাশম-লী ও পৃথিবী এবং উহাদের মধ্যে কোনো কিছুই ক্রীড়াচ্ছলে সৃষ্টি করি নাই;





 


assets/data_files/web

মুক্ত করো ভয়, আপনা মাঝে শক্তি ধরো নিজেরে করো জয়।     


-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।


ডান হাত যা দান করে বাম হাত তা জানতে পারে না-এমন দানই সর্বোৎকৃষ্ট।

 


ফটো গ্যালারি
মাদকাসক্তির মর্মান্তিক পরিণাম
পুত্রের হাতে পিতা খুন
চাঁদপুর কণ্ঠ রিপোর্ট
১৭ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুর সদর উপজেলার প্রত্যন্ত এক গ্রামে মাদকাসক্তির মর্মান্তিক পরিণামে পুত্রের হাতে পিতা খুনের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল শুক্রবার সকাল সোয়া ৮টায় বালিয়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের গাজী বাড়িতে এ হত্যাকা-ের ঘটনাটি ঘটেছে।



ঘটনা সূত্রে জানা যায়, গাজী বাড়ির মৃত সেকান্তর গাজীর ছেলে মুছা গাজী (৭৫) মন্নান মিজি বাড়ি সংলগ্ন উত্তর ইচলী বায়তুল আমিন জামে মসজিদে ফজরের নামাজ আদায় করে নিজ গৃহে এসে ঘুমিয়ে পড়েন। সকাল সোয়া ৮টায় তার দ্বিতীয় ছেলে মোহাম্মদ হোসেন গাজী (২৫) ঘুমন্ত অবস্থায় তাকে ধারালো দা দিয়ে এলোপাতাড়িভাবে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। এ সময় মুছা গাজীর চিৎকারে বাড়ির লোকজন দ্রুত ছুটে আসলে মোহাম্মদ হোসেন বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। রক্তাক্ত মুছা গাজীকে চাঁদপুর ২৫০ শয্যার সরকারি জেনারেল হাসপাতালে আনা হলে কর্মরত চিকিৎসক ঢাকায় রেফার করেন। ঢাকা নেয়ার পথে তিনি মারা যান।



মুছা গাজীর বড় ছেলে আলম গাজী জানান, তার পিতা পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়তেন। তিনি উত্তর ইচলী বায়তুল আমিন জামে মসজিদের কোষাধ্যক্ষ ছিলেন। তিনি আরো জানান, মোহাম্মদ গাজী দীর্ঘদিন ধরে মাদকে আসক্ত। সে এক সময় সিএনজি স্কুটার চালাতো। নেশার কারণে এ পর্যন্ত ৪টি সিএনজি স্কুটার পুড়িয়ে দিয়েছে। ঘটনার দিন সকালে নির্মমভাবে কুপিয়ে আমার বাবাকে হত্যা করে। আমরা ইতঃপূর্বে তাকে বেশ কয়েক বার মানসিক চিকিৎসা করিয়েছি।



চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইবরাহিম খলিল বলেন, পিতার হত্যাকারী ঘাতক পুত্র মোহাম্মদ হোসেন চাঁদপুর মডেল থানায় এসে আত্মসমর্পণ করেছে। এ ব্যাপারে নিহতের বড় ছেলে আলম গাজী চাঁদপুর মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। পুলিশ উত্তর ইচলী গাজী বাড়ি থেকে নিহত মুছা গাজীর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে।



 



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
১০৪৫৬৫৪
পুরোন সংখ্যা