চাঁদপুর। বৃহস্পতিবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭। ৩০ ভাদ্র ১৪২৪। ২২ জিলহজ ১৪৩৮

বিজ্ঞাপন দিন

বিজ্ঞাপন দিন

সর্বশেষ খবর :

  • --
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২৯-সূরা আনকাবূত


৬৯ আয়াত, ৭ রুকু, ‘মক্কী’


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৫৬। হে আমার মু’মিন বান্দাগণ!নিশ্চয় আমার পৃথিবী প্রশস্ত; সুতরাং তোমরা আমারই ‘ইবাদত কর। 


৫৭। জীবমাত্রই মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণকারী; অতঃপর তোমরা আমারই নিকট প্রত্যাবর্তিত হইবে।  


দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


 


বিদ্রোহের ন্যায্যতা নির্ভর করে ইহার কৃতকার্যতার উপর। -টমাস বি রিড।


 

ব্যভিচারী হইতে ঈমান দূরে পলায়ন করে, কিন্তু সে ব্যভিচার ত্যাগ করিলেই ঈমান আবার তাহার নিকট প্রত্যাবর্তন করিবে।  


ফটো গ্যালারি
হাজীগঞ্জে মেঘনা ব্যাংকের ৩৮তম শাখার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম এমপি
আমাদের উন্নয়নে মেঘনা ব্যাংক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে
কামরুজ্জামান টুটুল
১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


গত বুধবার হাজীগঞ্জের রামপুর বাজারের গাউছিয়া টাওয়ারের ২য় তলায় মেঘনা ব্যাংকের ৩৯তম শাখার উদ্বোধন হয়েছে। চতুর্থ প্রজন্মের ব্যাংক হিসেবে গড়ে ওঠা শাখাটির উদ্বোধন করেন চাঁদপুর-৫ (হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তি) নির্বাচনী এলাকার সংসদ সদস্য মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম।



অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম এমপি বলেন, বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। শত শত প্রতিকূলতা ও প্রতিবন্ধকতার মধ্যে উন্নত বাংলাদেশ গঠনে কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি স্বপ্ন দেখিয়েছেন ভিশন ২০২১ ও ২০৪১-এর মাধ্যমে। আজ সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের পথে। অচিরেই আমরা মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হবো এবং তাঁর নেতৃত্বেই উন্নত বাংলাদেশের স্বপ্ন পূরণ হবে।



মফস্বল এলাকায় মেঘনা ব্যাংকের মতো প্রাইভেট ব্যাংকের শাখা উদ্বোধন হওয়ায় তিনি ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, সেবার উদ্দেশ্যে মেঘনা ব্যাংক মফস্বল এলাকায় এসেছে। গ্রামাঞ্চলের আর্থসামজিক উন্নয়নে এই ব্যাংক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আমি মনে করি। সেজন্যে ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদসহ এই শাখার সকল স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ধন্যবাদ। ব্যাংকের সফলতা অর্জনে স্থানীয় ব্যবসায়ীসহ সর্বস্তরের জনসাধারণকে সার্বিক সহযোগিতার অনুরোধ জানান অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি।



উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপ্রধানের দায়িত্ব পালন করেন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও মেঘনা ব্যাংকের চেয়ারম্যান এইচ.এন. আশিকুর রহমান এমপি। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, মেজর রফিক শুধু হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তি উপজেলার এমপি বলেই পরিচিত নন। তিনি একজন সেক্টর কমান্ডার। তিনি একজন সৎ, নীতিবান ও আদর্শবান বীর সেনানী। যাকে শুধু বাংলাদেশ নয়, বিশ্বের অনেক নেতা চেনেন এবং জানেন।



মেঘনা ব্যাংক নিয়ে চেয়ারম্যান বলেন, মেঘনা ব্যাংক চতুর্থ প্রজন্মের ব্যাংক। এই ব্যাংক থেকে আপনি ব্যাংকিং সংক্রান্ত সকল সেবা হাসিমুখে পাবেন। আমরা সর্বনিম্ন সময়ে, সর্বোচ্চ সেবা প্রদানে বিশ্বাসী। কথায় নয়, কাজেই প্রমাণ করতে চাই। অচিরেই এই শাখার জন্যে রামপুর বাজারে এটিএম বুথ খোলা হবে। যেই বুথ থেকে দেশের সকল অনলাইন ব্যাংকের টাকা উত্তোলন করা যাবে।



কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য নিয়ে শুরু হওয়া উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং সিইও মোহাম্মদ নুরুল আমিন। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ব্যাংকের পরিচালক ও নির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যান মোঃ কামাল উদ্দিন, ব্যাংকের পরিচালক ও বিশিষ্ট সংগীত শিল্পী রেহানা আশিকুর রহমান, হাজীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহবুবুল আলম মজুমদার, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অ্যাডঃ মোঃ নূরুল আমিন রুহুল, হাজীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গাজী মোঃ মাঈনুদ্দিন, হাজীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি রোটাঃ আহসান হাবিব অরুন, সাধারণ সম্পাদক হায়দার পারভেজ সুজন, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা স্বপন, রামপুর বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মোঃ সফিকুল ইসলাম তালুকদার, সাধারণ সম্পাদক ও গাউছিয়া টাওয়ারের স্বত্বাধিকারী রোটাঃ এস.এম. মানিক। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ব্যাংকের স্থানীয় শাখা ব্যবস্থাপক মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন চৌধুরী।



মেঘনা ব্যাংকের পাবলিক রিলেশন অফিসার ইমতিয়াজ শাহরিয়ার ইমনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ আফজাল হোসেন, শাহরাস্তি পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব আব্দুল লতিফ মিয়া, শাহরাস্তি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফরিদ উল্যাহ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান মিন্টু, জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান-২ আলহাজ্ব জসিম উদ্দিন, সদস্য বিল্লাল হোসেন, হাজীগঞ্জ শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আহম্মদ খসরু, হাজীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলী আশ্রাফ দুলাল, কাজী আনোয়ারুল হক হেলাল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান মিয়াজী, সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম ফারুক মুরাদ, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক আবু তালেব লিটন।



এ ছাড়াও অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল হাদী মিয়া, মাহফুজুর রহমান ইউছুফ পাটওয়ারী, মানিক হোসেন প্রধানীয়া, আলহাজ্ব সফিকুল ইসলাম মীর, আলহাজ্ব কবির হোসেন মিয়াজী, মোঃ মনির হোসেন গাজী, জলিলুর রহমান মির্জা দুলাল, মোঃ রফিকুল ইসলাম, মোঃ জাকির হোসেন লিটুসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও ব্যবসায়িক নেতৃবৃন্দ এবং স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।



 


এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
১৩৮৯৫০
পুরোন সংখ্যা