চাঁদপুর, রোববার ১৮ অক্টোবর ২০২০, ২ কার্তিক ১৪২৭, ৩০ সফর ১৪৪২
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • --
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৭৯-সূরা নাযি 'আত


৪৬ আয়াত, ২ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


৫। অতঃপর যাহারা সকল কর্ম নির্বাহ করে।


৬। সেই দিন প্রথম শিংগাধ্বনি প্রকম্পিত করিবে,


৭। উহাকে অনুসরণ করিবে পরবর্তী শিংগাধ্বনি,


৮। কত হৃদয় সেই দিন সন্ত্রস্ত হইবে,


 


 


assets/data_files/web

যারা কখনো ক্ষতিগ্রস্ত হতে চায় না, তারা কোনোদিন লাভবান হতে পারে না।


-ডেভিড জেফারসন।


 


 


 


 


কাউকে অভিশাপ দেওয়া সত্যপরায়ণ ব্যক্তির উচিত নয়।


 


 


ফটো গ্যালারি
আলু ডিম সবজির দাম বৃদ্ধি, গরীব মানুষগুলোর কী হবে?
১৮ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


বৃহস্পতিবার দৈনিক ইত্তেফাকের শীর্ষ সংবাদ শিরোনাম হয়েছে 'সিন্ডিকেটের কারসাজিতে ৩০ টাকার আলু ৬০ টাকা সরকার নির্ধারিত মূল্য মানছে না ব্যবসায়ীরা, অথচ চাহিদার চেয়ে বাড়তি মজুত আছে ৩২ লাখ টন।' আর মুরগির খাবারের মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় যে ডিমের দামও বেড়েছে সে খবর ইত্তেফাকের শেষ পৃষ্ঠায় প্রকাশিত হয়েছে একই দিন। শাক সবজির দামতো কয়েক মাস ধরেই চড়া। অতি সম্প্রতি শাক সবজির এমন সঙ্কট দেখা দিয়েছে, তাতে নির্দিষ্ট সময় পর বাজারে গেলে কিছুই পাওয়া যায় না। ২০-২৫ টাকা দামের পিঁয়াজ তো ৮০-৮৫ টাকায় উঠে বসেছে সেই কবেই। কাঁচা মরিচ বিক্রি হচ্ছে সর্বোচ্চ ২৩০-৩০০ টাকা কেজিতে। এমতাবস্থায় বেশি দামে চাল জোগাড় করে ঘরে আনলেও গরীব মানুষ আলু সিদ্ধ করে পিঁয়াজ-মরিচ দিয়ে ভর্তা বানিয়ে যে কোনোরকমে ভাত গলাধকরণ করবে, সে সুযোগও যেনো কমে গেলো। অগত্যা গরীব মানুষকে ১৯৭৪ সালের দুর্ভিক্ষ সহ অন্যান্য দুর্ভিক্ষের সময় জাউ ভাত রান্না করে লবণ দিয়ে খাওয়ার পরিস্থিতি তৈরি হতে যাচ্ছে।



মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্ত মানুষের জন্যে ডিম হচ্ছে নূ্যনতম ভদ্রোচিত খাবার। একটি ডিম পিঁয়াজ-মরিচ দিয়ে তেলে বাজলে ভাগ করে সর্বোচ্চ চারজন এক প্লেট ভাত পাকস্থলীতে পেঁৗছাতে পারে। সেই ডিমের মূল্যও ঊর্ধ্বমুখী। মাসখানেক আগে চাঁদপুরের বাজারে এক কুড়ি ডিম ১৪০-১৫০ টাকায় কেনা গেছে। এখন তার মূল্য দাঁড়িয়েছে ১৯০-২০০ টাকা। এক মুঠি লাল শাক ৫/১০ টাকায় কিনে যারা সবজির স্বাদ নিতো, সেই লাল শাক এখন ২৫-৩০ টাকা। কলমির শাক ও শাপলার মূল্য তুলনামূলক সুলভ হলেও সেগুলো সহজলভ্য নয়। বন্যা, ঝড়, ঘূর্ণিঝড়, জলোচ্ছ্বাস, অতিবৃষ্টি, খরা, জলাবদ্ধতা, নদী ভাঙ্গন ইত্যাদি প্রাকৃতিক দুর্যোগ নিয়েই আমরা বসবাস করছি বাংলাদেশে। এখানকার ন্যায় ভূমি বৈচিত্র্য বিশ্বের অধিকাংশ দেশেই নেই। এখানকার মাটি যে কতো উর্বর সেটা বিশ্বের বিভিন্ন দেশের কৃষি নিয়ে যারা লেখাপড়া করেছে, কেবল তারাই বলতে পারবে। ছোট্ট দেশের অভ্যন্তরে, যাতায়াত ও পরিবহন ব্যবস্থাও ভালো। পার্বত্য চট্টগ্রামের কিছু দুর্গম এলাকা ছাড়া অন্য সব জায়গায় যাতায়াত ও পরিবহন সাধ্যের আওতায় দেশের এক জায়গায় লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি উৎপাদিত কৃষিপণ্য আরেক জায়গায় পরিবহন খুব কষ্টসাধ্য ও সময়সাপেক্ষ নয়। তারপরও প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও রাজনৈতিক সহ অন্যান্য কারণে ব্যবসায়ীদের মধ্যে একটি অসাধু চক্র সিন্ডিকেট গড়ে তুলে সাধারণ মানুষের কথা বেমালুম ভুলে গিয়ে এমন পরিস্থিতি তৈরি করে, যেখানে কেবল বাণিজ্যই মুখ্য হয়ে দাঁড়ায়। এর ফলে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে সাধারণ মানুষের নাভিশ্বাস উঠে।



ভোক্তা পর্যায়ে আলুর কেজি ৩০ টাকা মূল্যে খুচরা ব্যবসায়ীরা বিক্রি করবে বলে দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে কৃষি বিপণন অধিদপ্তর। এ ব্যাপারে কঠোর মনিটরিং ও নজরদারিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে জেলা প্রশাসকদের এক চিঠিতে অনুরোধ জানিয়েছে উক্ত অধিদপ্তর। এ চিঠিতে আলুর মূল্য বৃদ্ধির নূ্যনতম যৌক্তিক কারণ যে নেই সেটির সুস্পষ্ট বিবরণী তুলে ধরা হয়েছে। আমাদের বিশ্বাস, জেলা প্রশাসকগণ এ ব্যাপারে আন্তরিক ভূমিকা পালন করবেন। সাথে সাথে আমরা সরকারকে প্রয়োজনে ভর্তুকি দিয়ে হলেও মুরগির খাবারের দাম কমাতে এবং ডিমের মূল্য সাধারণ মানুষের সাধ্যের মধ্যে রাখার অনুরোধ জানাচ্ছি। আর বন্যা, অতিবৃষ্টি, জলাবদ্ধতায় সৃষ্ট সবজি সঙ্কট হ্রাসে দ্রুত বর্ধনশীল সবজি উৎপাদনে কী কী করণীয় সম্পাদন করা যায় সে বিষয়ে ভাবতে সনির্বন্ধ অনুরোধ জানাচ্ছি। অন্যথায় গরীব মানুষ যে ক্ষোভে কম-বেশি ফুঁসে উঠবে না-এটা হলফ করে কেউ বলতে পারবে না।


এই পাতার আরো খবর -
করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ৩,৮৭,২৯৫ ৩,৯৬,৩৮,১৮৮
সুস্থ ৩,০২,২৯৮ ২,৯৬,৭৮,৪৪৬
মৃত্যু ৫,৬৪৬ ১১,০৯,৮৩৮
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৭৯৪৯
পুরোন সংখ্যা