চাঁদপুর, সোমবার ২০ জানুয়ারি ২০২০, ৬ মাঘ ১৪২৬, ২৩ জমাদউলি আউয়াল ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • -
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬১-সূরা সাফ্ফ


১৪ আয়াত, ২ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


১৩। এবং তিনি দান করিবেন তোমাদের বাঞ্ছিত আরও একটি অনুগ্রহ : আল্লাহর সাহায্য ও আসন্ন বিজয়; মু'মিনদিগকে সুসংবাদ দাও।


 


 


 


 


প্রাচীন মহিলার দেহের গহনা অবশ্যই খাদবিহীন হবে।


-জুভেনাল।


 


 


কৃপণ ব্যক্তি খোদা হতে দূরে লোকসমাজে ঘৃণিত, দোজখের নিকটবর্তী।


 


ফটো গ্যালারি
এলাকাবাসীর এমন সচেতনতাই দরকার
২০ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+

আমাদের শহরগুলোতে এক সময় বেশ্যালয় বা পতিতালয় ছিলো। সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগের অনুমোদনে চলতো এগুলো। কিন্তু এসব পতিতালয়কে ঘিরে যখন অপরাধী চক্র সক্রিয় হলো, খদ্দেররা সেখানে গিয়ে যখন প্রতারণা ও হয়রানির শিকার এবং ছিনতাই ও লুটপাটের শিকার হতে লাগলো, এমনকি হতাহত হতে থাকলো, সীমালঙ্ঘনের বহুমাত্রিক কর্মকা- ঘটতে শুরু করলো, বিশেষ করে ধার্মিক লোকজন অনেক বেশি ক্ষুব্ধ হয়ে উঠলো, তখন পতিতালয়গুলো ক্রমশ উচ্ছেদ হয়ে গেলো। এতে পতিতারা হয়ে গেলো ভাসমান। এদের কারো কারো কর্মসংস্থান হলো বিভিন্ন স্থানে। আবার কেউ কেউ পতিতাবৃত্তি চালানোর বিকল্প পথ খুঁজলো। এজন্যে তারা শহরের বিভিন্ন বাসা-বাড়িতে গিয়ে ভাড়াটিয়া সাজলো। ঘনিষ্ঠ খদ্দেরকে স্বামী বানিয়ে বাড়িওয়ালা থেকে বাসা ভাড়া পেতে তাদের খুব বেশি অসুবিধা হলো না। এলাকার মাস্তান, অসৎ চরিত্রের প্রভাবশালী লোকজন কিংবা তাদের সন্তানদের সাথে সখ্যতা গড়ে এরা নির্বিঘ্নে চালায় তাদের পতিতাবৃত্তি। এজন্যে তারা থানা-পুলিশের কাউকে কাউকে ম্যানেজ করেও রাখে। এরপরও যে আবাসিক এলাকায় পতিতারা এমন কাজ করে, সে এলাকায় সাধারণ মানুষ যদি সচেতন হয়, তাহলে তারা সময়ান্তরে বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠে এবং প্রতিবাদী কার্যক্রম হাতে নেয়। যেমনটি করেছে চাঁদপুর শহরের বিষ্ণুদী মাদ্রাসা রোড এলাকার লোকজন। যার ফলস্বরূপ পুলিশ একটি বাসা থেকে অসামাজিক কাজে লিপ্ত আট যুবক-যুবতীকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে।

এ ঘটনা নিয়ে চাঁদপুর কণ্ঠে প্রকাশিত সংবাদ থেকে জানা যায়, বিষ্ণুদী মাদ্রাসা রোড এলাকায় একটি বাসা ভাড়া নেয় জনৈকা নারী। সে দীর্ঘদিন যাবৎ এ বাসায় অসামাজিক কাজ চালিয়ে যাচ্ছিল। এক পর্যায়ে বিষয়টি এলাকাবাসীর দৃষ্টিগোচর হয় এবং ক্রমশ মারাত্মক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। গত শুক্রবার রাতে ওই বাসায় একদল যুবক ঢোকার খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকাবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে বাসাটির বাইরে থেকে দরজায় তালা লাগিয়ে দেয় এবং চাঁদপুর মডেল থানা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এসে অসামাজিক কাজে লিপ্ত আট যুবক-যুবতীকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

বিভিন্ন বাসা-বাড়িতে অসামাজিক কাজ ও জঙ্গিবাদী তৎপরতাসহ আইন বহির্ভূত বহুবিধ কাজ চালানোর জন্যে অবশ্যই সংশ্লিষ্টরা প্রধানত দায়ী। তবে বাসা-বাড়ির মালিক যে একেবারে দায়মুক্ত এটা সহজভাবে বলা যায় না। কারণ, তিনি কাউকে বাসা/বাড়ি ভাড়া দেয়ার পূর্বে অবশ্যই ভাড়াটিয়া তথা ভাড়া গ্রহণকারী সম্পর্কে ভালোভাবে খোঁজ নেয়ার এবং ভাড়া দেয়ার পর ভাড়াটিয়ার গতিবিধি ও কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করার আবশ্যকীয়তা রয়েছে। ভাড়াটিয়ার স্থায়ী ঠিকানা জানা, জাতীয় পরিচয়পত্র দেখা এবং সম্ভব হলে চুক্তিপত্র সম্পাদন করা দরকার। কিন্তু এমনটি কিছু বাসা/বাড়ির মালিক উপলব্ধি করতে চান না। বাসা/বাড়ি দীর্ঘদিন খালি পড়ে থাকলে তো কিছু মালিক কোনোভাবে ভাড়াটিয়া পেলেই হলো, কোনো খোঁজ-খবর না নিয়ে ভাড়া দিয়ে যেনো হাঁফ ছেড়ে বাঁচেন। বস্তুত এমন মালিকের বাসা/বাড়িকে টার্গেট হিসেবে বেঁচে নেয় খারাপ ভাড়াটিয়ারা। তারা সহজে এমন বাসা/বাড়ি ভাড়া নিয়ে পতিতাবৃত্তি, জঙ্গিবাদী তৎপরতা সহ যে কোনো খারাপ কাজে লিপ্ত হয়। অনেকে সমিতির অফিসের জন্যে ভাড়া নিয়ে বিপুল অংকের টাকা নিয়ে উধাও হয়ে যায়। এমতাবস্থায় বাসা/বাড়ি ভাড়া সংক্রান্ত নীতিমালা প্রণয়ন বা নির্দেশনা জারির ব্যাপারে সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগের উদ্যোগ নেয়া দরকার বলে আমরা মনে করি।

এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৪০৩৬০৩
পুরোন সংখ্যা