চাঁদপুর, শুক্রবার ৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ৮ রবিউস সানি ১৪৪১
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • চাঁদপুর শহরে গৃহপরিচারিকার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬২-সূরা জুমু 'আ


১১ আয়াত, ২ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


৫। যাহাদিগকে তাওরাতের দায়িত্বভার অর্পন করা হইয়াছিল, কিন্তু তাহারা উহা বহন করে নাই, তাহাদের দৃষ্টান্ত পুস্তক বহনকারী গর্দভ। কত নিকৃষ্ট সে সম্প্রদায়ের দৃষ্টান্ত যাহারা আল্লাহর আয়াতসমূহকে অস্বীকার করে। আল্লাহ যালিম সম্প্রদায়কে সৎপথে পরিচালিত করেন না।


 


 


assets/data_files/web

মানুষের মধ্যে ঈশ্বরের উপস্থিতিটাই হল বিবেক। -সুইডেন বোর্গ।


 


 


নফস্কে দমন করাই সর্বপ্রথম জেহাদ।


ফটো গ্যালারি
অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগটি যদি সত্য হয়-
০৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+

সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলরের বিরুদ্ধে, বিভিন্ন মাদ্রাসা ও কলেজের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে, বিভিন্ন হাইস্কুল ও প্রাইমারি স্কুলের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ এনে অপসারণের দাবির বিষয়টি যেনো মামুলি ঘটনায় পরিণত হয়েছে। এ দাবি শিক্ষার্থীরা যেমন করছে, শিক্ষকরাও করছে। এ দাবিতে সৃষ্ট আন্দোলনে রাজনীতিও ঢুকে পড়ছে। কোথাও রাজনীতি, প্রতিহিংসা ও ষড়যন্ত্রের কবলে পড়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির শিকার হচ্ছেন, আবার কোথাও তীব্র আন্দোলনের মুখে কিংবা উত্থাপিত অভিযোগের প্রমাণসাপেক্ষে অপসারিত হচ্ছেন। আমাদের দেশে এমন সংবাদে মানুষ তেমন বিস্মিত বা স্তম্ভিত হয় না। কিন্তু কচুয়ায় অবস্থিত চাঁদপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষের অপসারণ দাবি এবং অনিয়মের অভিযোগসমূহের ২-১টিতে অনেকেই বিস্মিত ও স্তম্ভিত হয়েছে।

গতকাল চাঁদপুর কণ্ঠের প্রথম পৃষ্ঠায় প্রকাশিত সংবাদে উক্ত অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ উল্লেখ করা হয়েছে, তার মধ্যে রয়েছে যে, তিনি গত জুলাই মাসে ৫০ দিনের ছুটি নিয়ে হজব্রত পালন করতে সৌদি আরবে যান। ওই ছুটির সময়ে তিনি নিজেকে উপস্থিত দেখিয়ে প্রতিষ্ঠানের পরীক্ষার ডিউটি বাবদ ভাতা গ্রহণ করেন। এছাড়া তিনি বিভিন্ন জাতীয় দিবস উদ্যাপনে নামমাত্র অনুষ্ঠান করে জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের ভাউচার বানিয়ে অর্থ আত্মসাৎ করেন। শিক্ষার্থীদের অন্যান্য অভিযোগের কথা এখানে না হয় উল্লেখ নাই করলাম।

চাঁদপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীরা অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে উত্থাপিত অনিয়মসমূহের অভিযোগ তদন্তে কমিটি গঠনের জন্যে কারিগরি শিক্ষাবোর্ড সমীপে দাবি জানিয়েছে। এ দাবি অনুযায়ী যদি তদন্ত হয় এবং সেই তদন্তে হজব্রত পালনের ছুটি কাটানোর সময় পরীক্ষার ভুয়া ডিউটি বাবদ অধ্যক্ষের ভাতা গ্রহণের বিষয়টিও যদি অন্তত প্রমাণিত হয়, তাহলে তার হজ পালনের উদ্দেশ্যের যে জলাঞ্জলি হবে তাতে কোনো সন্দেহ নেই। হজ পালনের মাধ্যমে মানুষ নিষ্পাপ হয়ে দেশে ফিরে এবং নিষ্পাপ থাকার প্রয়াস চালায়-এটাই সঙ্গত। কিন্তু কেউ যদি তার বিপরীত করে, তাহলে বিস্মিত, এমনকি বিব্রতও বোধ করতে হয় অনেককে। এ কথাটি হজ পালনকারীদের মনে রাখা উচিত বলে আমরা মনে করি।

এই পাতার আরো খবর -
আজকের পাঠকসংখ্যা
৭৩১২১৯
পুরোন সংখ্যা