চাঁদপুর। শনিবার ১৯ আগস্ট ২০১৭। ৪ ভাদ্র ১৪২৪। ২৫ জিলকদ ১৪৩৮

বিজ্ঞাপন দিন

বিজ্ঞাপন দিন

সর্বশেষ খবর :

  • --
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২৯-সূরা আনকাবূত


৬৯ আয়াত, ৭ রুকু, ‘মক্কী’


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


৩৩। এবং যখন আমার প্রেরিত ফিরিশতাগণ লূতের নিকট আসিল, তখন তাহাদের জন্য সে বিষন্ন হইয়া পড়িল এবং নিজকে তাহাদের রক্ষায় অসমর্থ মনে করি। উহারা বলিল, ‘ভয় করিও না, দুঃখও করিও না; আমরা তোমাকে ও তোমার পরিবারবর্গকে রক্ষা করিব, তোমার স্ত্রী ব্যতীত; সে তো পশ্চাতে অবস্থানকারীদের অন্তর্ভুক্ত;


দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন

বিপদকে বিপদ দিয়েই অতিক্রম করা যায়।



-টমাস ফুলার।



যে নামাজে হৃদয় নম্র হয় না, সে নামাজ খোদার নিকট নামাজ বলিয়াই গণ্য হয় না।


 

ফটো গ্যালারি
দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষকের সাক্ষাৎকার : নাছরিন জাহান নিপা
বিতর্ক সত্য ও সুন্দরের পথ ভালো না লেগে উপায় আছে কি?
১৯ আগস্ট, ২০১৭ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


বিতর্কায়ন প্রতিবেদন



নাছরিন জাহান নিপা, প্রধান শিক্ষক, লিটল স্কলার্স একাডেমী, মতলব দক্ষিণ। তিনি তাঁর বিদ্যালয়ের বিতর্কের দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষক হিসেবে ৭ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের দিয়ে বিতর্ক করিয়ে ৯ম পাঞ্জেরী-চাঁদপুর কণ্ঠ বিতর্কে জেলার সেরা ষোলো দলে উন্নীত করাতে সক্ষম হয়েছেন। তিনি 'বিতার্কয়ান'কে বলেছেন তাঁর বিতর্ক-অনুরাগের কথা, যা পাঠকদের জন্যে তুলে ধরা হলো।



বিতর্কায়ন : ছাত্রজীবনে কি বিতর্ক করেছেন, না পেশাগত জীবনে এসে অর্পিত দায়িত্বের কারণে বিতর্ককে ভালোবেসে ফেলেছেন?



নাছরিন জাহান নিপা : হ্যাঁ, আমার শিক্ষা জীবনে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে বিতর্কের সাথে আমি জড়িত ছিলাম। বিতর্ক সত্য ও সুন্দরের পথ, তাই ভালো না লেগে উপায় আছে কি? পেশাগত জীবনে আমার শিক্ষার্থীদের মধ্যেও এর সৌন্দর্য ছড়িয়ে দেয়ার চেষ্টা করছি।



বিতর্কায়ন : বিতর্কের দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষক হিসেবে আনন্দ ও বেদনার অভিজ্ঞতা কী কী ?



নাছরিন জাহান নিপা : বেদনার কোনো অভিজ্ঞতা নেই। এ পর্যন্ত সবটাই আনন্দের অভিজ্ঞতা। আমার শিক্ষার্থীরা প্রাণশক্তি ও মনোবল সম্পন্ন হচ্ছে, তা অবশ্যই আনন্দের অভিজ্ঞতা।



বিতর্কায়ন : নিজ বিতর্ক দল হেরে গেলে যৌক্তিকভাবে তা মেনে নেন, না অন্য কিছু ভাবেন ?



নাছরিন জাহান নিপা : অবশ্যই মেনে নেওয়া উচিত এবং ভাবা উচিত হেরে যাওয়ার জন্যে আমাদের দুর্বলতা গুলো কী ছিলো।



বিতর্কায়ন : 'যে আসে বিতর্কে সে হারে না'_ আপনি কি এ কথায় বিশ্বাস করেন ?



নাছরিন জাহান নিপা : হ্যাঁ, বিশ্বাস করি।



বিতর্কায়ন : আমাদের বিতর্কের বিচারকার্য নিয়ে আপনার কোনো গঠনমূলক পরামর্শ বা ইতিবাচক সমালোচনা আছে কি ?



নাছরিন জাহান নিপা : বিচারকার্যে কোনো প্রকার অস্বচ্ছতা এ পর্যন্ত আমি দেখি নি। অনেক সুন্দর এবং স্বচ্ছ এ আয়োজন ।



বিতর্কায়ন : আপনার বিতর্ক দলকে নিয়ে আপনি কী কী স্বপ্ন দেখেন এবং তা বাস্তবায়নে কী পরিকল্পনা হাতে নিয়েছেন ?



নাছরিন জাহান নিপা : আমার বিতর্ক দলের বিতর্কে অংশগ্রহণ এ বছরই প্রথম। ৩ জন বিতার্কিকই সপ্তম শ্রেণিতে পড়ছে। আগামী দিনগুলোতে ওদের তৈরি করাই আমার পরিকল্পনা ও স্বপ্ন।



বিতর্কায়ন : উপরোক্ত প্রশ্নমালার বাইরে আপনার কোনো বক্তব্য থাকলে বা নিজ জীবন সম্পর্কে কিছু বলতে চাইলে বলতে পারেন।



নাছরিন জাহান নিপা : বিগত ১২ বছর আমার পরিচয় আমি একজন শিক্ষক। আমার ২টি সন্তান। তাদের আদর্শ মানুষ হিসেবে গড়ে তোলার স্বপ্ন আমি দেখি। ওদের মতো আমার শিক্ষার্থীদের আদর্শ পথে পরিচালিত করাও আমার স্বপ্ন। সমাজের মানুষ হিসেবে ভালো কিছু করার ইচ্ছা নিয়ে আমার পথ চলা। সে লক্ষ্যে ২০১৫ সালে মতলব (দঃ)-এ স্থাপিত লিটল স্কলার্স একাডেমি নামক মাধ্যমিক বিদ্যালয়টির অগ্রযাত্রায় শুরু থেকেই সাফল্যের প্রত্যাশা নিয়ে পথ চলছি। ব্যক্তি জীবনে আমি আল্লাহর ইচ্ছায় পরিপূর্ণ একজন মানুষ। কারণ আল্লাহ আমাকে আদর্শ বাবা-মার সন্তান হিসেবে পৃথিবীতে পাঠিয়েছেন। তাদের দোয়ায় সবাইকে নিয়ে সত্য পথে যেন সৎ জীবন যাপন করতে পারি-এই ইচ্ছা ও স্বপ্ন লালন করি প্রতিনিয়ত।



অসংখ্য ধন্যবাদ চাঁদপুর কণ্ঠকে। এই সম্মান ও সুন্দর ক্ষেত্র তৈরি করার জন্য। এই শুভ উদ্যোগ যেন চলমান থাকে তা প্রত্যাশা করি শুভেচ্ছার অজস্রতায়।



 


আজকের পাঠকসংখ্যা
১৩৫১৩৬
পুরোন সংখ্যা