চাঁদপুর, সোমবার ১৭ জুন ২০১৯, ৩ আষাঢ় ১৪২৬, ১৩ শাওয়াল ১৪৪০
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • জমে উঠেছে চাঁদপুরের আঞ্চলিক এসএমই পণ্য মেলা
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

৬৫-সূরা তালাক


১২ আয়াত, ২ রুকু, মাদানী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।


 


২। উহাদের 'ইদ্দাত পূরণের কাল আসন্ন হইলে তোমরা হয় যথাবিধি উহাদিগকে রাখিয়া দিবে, না হয় উহাদিগকে যথাবিধি পরিত্যাগ করিবে এবং তোমাদের মধ্য হইতে দুইজন ন্যায়পরায়ণ লোককে সাক্ষী রাখিবে; আর তোমরা আল্লাহর জন্য সঠিক সাক্ষ্য দিবে। ইহা দ্বারা তোমাদের মধ্যে যে কেহ আল্লাহ ও আখিরাতে বিশ্বাস করে তাহাকে উপদেশ দেওয়া হইতেছে। যে কেহ আল্লাহকে ভয় করে আল্লাহ তাহার পথ করিয়া দিবেন।


 


 


 


assets/data_files/web

ঘুম পরিশ্রমী মানুষকে সৌন্দর্য প্রদান করে।


-টমাস ডেককার।


 


 


 


 


নামাজ হৃদয়ের জ্যোতি, সদ্কা (বদান্যতা) উহার আলো এবং সবুর উহার উজ্জ্বলতা।


 


 


ফটো গ্যালারি
বাণী
১৭ জুন, ২০১৯ ০৩:১০:৪১
প্রিন্টঅ-অ+


চাঁদপুর কণ্ঠ যখন সাপ্তাহিক ছিলো তখন থেকেই এ পত্রিকাটির সাথে আমার একজন পাঠক হিসেবে পরিচয় ঘটে। রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গের সাক্ষাৎকার পর্বে আমারও এ পত্রিকায় একটি সাক্ষাৎকার ছাপা হয়, যেটি গ্রহণ করেছিলেন পত্রিকাটির তৎকালীন বার্তা সম্পাদক মির্জা জাকির। মফস্বলের একটি নূতন সাপ্তাহিক পত্রিকার পক্ষ থেকে সাক্ষাৎকার গ্রহণ এবং সেটি পরিবেশনের মান নিয়ে দ্বিধা-দ্বন্দ্বে ছিলাম। কিন্তু ছাপার পর সেটি পড়ে মুগ্ধ হয়েছিলাম এবং চাঁদপুরের সংবাদপত্র জগতে সম্ভাবনার নূতন দিগন্ত উন্মোচন হবার আশায় বুক বেঁধেছিলাম। সেদিনকার সে আশা আমার মোটেও বিফল হয়নি। ১৯৯৪ সালে জন্ম নেয়া সাপ্তাহিক চাঁদপুর কণ্ঠ ১৯৯৮ সালেই দৈনিকে পরিণত হলো। যেহেতু এর আগে চাঁদপুর জেলায় কোনো দৈনিকের আত্মপ্রকাশ ঘটেনি, সেহেতু চাঁদপুর কণ্ঠই জেলার প্রথম দৈনিক হিসেবে ইতিহাসের পাতায় স্থান পায়।

এক সময় আমরা পাঠকরা  ভাবলাম, দৈনিক হলেও চাঁদপুর কণ্ঠ নিয়মিত প্রকাশিত হবে কি না তথা অস্তিত্ব সঙ্কটে পড়বে কি না। কিন্তু আমরা লক্ষ্য করলাম, নির্ধারিত ছুটি ছাড়া সাপ্তাহিক ও দৈনিক মিলিয়ে চাঁদপুর কণ্ঠ কোনো সমস্যা বা জটিলতায় কক্ষণো বন্ধ হয়নি। এভাবে আমাদের চোখের সামনে চাঁদপুর কণ্ঠের বয়স হয়ে গেলো প্রায় পঁচিশ বছর। এটা একেবারে কম সময় নয়-সিকি শতাব্দী। এতোটা সময় ধরে চাঁদপুর কণ্ঠের নিরবচ্ছিন্ন প্রকাশনা নিঃসন্দেহে এর সাথে সংশ্লিষ্ট সকলের নিরলস শ্রম-ঘাম ও মেধা, বিশেষ করে পাঠকের ভালোবাসার ফলে সম্ভব হয়েছে বলে আমি মনে করি।

আগামী ১৭ জুন চাঁদপুর কণ্ঠের রজতজয়ন্তী অনুষ্ঠিত হবে জানতে পেরে খুশি হলাম। পঁচিশ বছরের মাইলফলক অতিক্রমের শুভ লগ্নে এমন অনুষ্ঠানের অনিবার্যতা রয়েছে। এ অনুষ্ঠানটি সর্বাঙ্গীণ সুন্দর হোক ও সফল হোক-গভীর আন্তরিকতার সাথে এমনটাই প্রত্যাশা করছি।

চাঁদপুর কণ্ঠ শতায়ু লাভ করুক। মহান সৃষ্টিকর্তা চাঁদপুর কণ্ঠ পরিবারের সকলের মঙ্গল করুক-এ শুভ কামনা করছি।





নাছির উদ্দিন আহমেদ

মেয়র, চাঁদপুর পৌরসভা

ও সভাপতি, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ

চাঁদপুর জেলা শাখা।

 


আজকের পাঠকসংখ্যা
৩৭৮২৭৪
পুরোন সংখ্যা