চাঁদপুর, বৃহস্পতিবার ২৬ নভেম্বর ২০১৫ । ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২২ । ১৩ সফর ১৪৩৭
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • চাঁদপুর সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কসহ আরো ৯ জনের করোনা শনাক্ত, মোট আক্রান্ত ২১৯
হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২১-সূরা : আম্বিয়া


১১২ আয়াত, ৭ রুকু, মক্কী


পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাাহ্র নামে শুরু করছি।


 


৫০/ ইহা কল্যাণময় উপদেশ; আমি ইহা অবর্তীর্ণ করিয়াছি। তবুও কি তোমরা ইহাকে অস্বীকার কর?


৫১/ আমি তো ইহার পূর্বে ইব্রাহীমকে সৎপথের জ্ঞান দিয়াছিলাম এবং আমি তাহার সম্বন্ধে ছিলাম সম্যক পরিজ্ঞাত। 


দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন


 


মৃত্যুটা জন্মানোর মতোই স্বাভাবিক। 


- বেকন।


যার রসনা ও হস্তদয় হইতে কোন মুসলমানের কোন প্রকার অনিষ্ট না হয়, সেই প্রকৃত মুসলমান এবং যে আল্লাহর নিষিদ্ধ কার্য হইতে পলায়ন করে সেই প্রকৃত মুহাজিজর। 


- (হযরত মুহাম্মদ (সঃ))


 

ফটো গ্যালারি
পিছিয়ে পড়ছে চাঁদপুরের কৃষি ও কৃষক
কৃষিকণ্ঠ রিপোর্ট
২৬ নভেম্বর, ২০১৫ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+

আধুনিক কৌশল প্রয়োগের ক্ষেত্রে কৃষক-কৃষাণীরা রয়ে যাচ্ছেন পিছিয়ে। শুধুমাত্র অর্থনৈতিক দৈন্যদশা ও অসচেতনতায় পিছিয়ে পড়ছে চাঁদপুর সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের কৃষি ও কৃষক। সচেতনতার অভাবে কৃষকের এক বিরাট অংশই ফসল উৎপাদনে এখনও সেই সনাতনী ধারণাকেই প্রাধান্য দিচ্ছেন। এতে করে আগাম সবজি চাষে পিছিয়ে পড়ছে চাঁদপুরের কৃষি ও কৃষক। অবশ্য এসব অভিযোগ উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাগণ স্বীকার করেছেন।

চাঁদপুর পৌরসভাসহ সদর উপজেলার যে সকল ইউনিয়ন সবজি চাষে পিছিয়ে পড়ছে তার মধ্যে তরপুরচন্ডী, কল্যাণপুর, আশিকাটি, বিষ্ণুপুর, রামপুর, মৈশাদী, ইব্রাহীমপুর, হানারচর ও রাজরাজেশ্বর। আগাম সবজি চাষে অন্যান্য উপজেলার ন্যায় এগিয়ে আছে শাহমাহমুদপুর, বাগাদী, বালিয়া, লক্ষ্নীপুর, ও চান্দ্রা ইউনিয়ন। বিষ্ণুদীর কৃষক আনোয়ার জানান, আমাদের এসব এলাকায় বন্যা বা বর্ষার পানি একটু দেরিতে নিষ্কাশন হয়। যার দরুণ জমি শুকাতে শুকাতে কার্তিক ও অগ্রহায়ণ মাস শেষ হয়ে যায়। এতে করে আমরা আগাম সবজি চাষ করতে পারি না। তবুও এ বছর ৫০ শতক জমিতে আলু চাষ করেছি এবং লাল শাক, মুলাশাক চাষ করেছি। কিন্ত এসব ফলন যখন উঠবে তখন হয়তো বাজারে এগুলোর দাম কম থাকবে। তরপুরচ-ীর কৃষক আবুল কালাম, মৈশাদীর তমিজ উদ্দিন, ইব্রাহিমপুরের আঃ মান্নান ও রাজরাজেশ্বরের উজ্জ্বল হোসাইন জানান, এসব এলাকার চাষাবাদ জমিগুলো নিচু হওয়ায় সবজি চাষে তারা পিছিয়ে আছে। বর্তমানে চাঁদপুরের বিভিন্ন কাঁচা বাজারগুলোতে জেলার বাহির থেকে আসা সবজিয়ে ভরপুর। আমাদের সবজিগুলো যখন বাজারে উঠার সময় হবে তখন দাম আরো কম থাকবে। এতে আমারা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবো।

এ ব্যাপারে কথা হয় আশিকাটি ইউনিয়নের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকতা এস এম কামরুজ্জামান, বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের উপ-সহকারী মোঃ মনোয়ার হোসেন ও কল্যাণপুর ইউনিয়নের উপ-সহকারী আবুল বাসারের সাথে তারা জানান, কৃষি বিভাগ নিয়মিত মাঠ পর্যায়ে সভা সেমিনার করে কৃষকদের সচেতন করে চলছে। এ ব্যাপারে রয়েছে জোর মনিটরিং। তবে এসব এলাকার কৃষকদের আধুনিক কৌশলে প্রয়োগের আগ্রহের ঘাটতি রয়েছে। সব ধরনের ফসল এ উপজেলার চাষ করে কৃষক। তবে অর্ধ শিক্ষিত এবং বয়সে প্রবীণ ব্যক্তিরাই সাধারণত কৃষিজীবী হিসেবে উৎাপাদন কাজে নিয়োজিত রয়েছেন। রামপুর ইউনিয়নের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা দুলাল চন্দ্র দাস ও মৈশাদী ইউনিয়নের উপ-সহকারী মোঃ আব্দুর রশিদ জানান, বিশেষ করে চাঁদপুর সদর উপজেলার বিভিন্ন এলাকা নিচু। যার দরুণ এসব এলাকার পানি শুকাতে কার্তিক ও অগ্রহায়ন মাস পর্যন্ত সময় লাগে। অন্যদিকে ভাসমান সবজি চাষে কৃষকরা আগ্রহী হলেও এসব এলাকায় কচুরিপানা কম। ঢালাওভাবে কচুরি পানা পাওয়া যায় না। তবে এসব এলাকায় সবজির মধ্যে আলু, লাউ, লালশাক, মুলাশাক, ধনিয়া পাতা, বেগুন ও টমেটু এবং বিভিন্ন ডাল ক্ষেতের চাষ করা হয়।

আজকের পাঠকসংখ্যা
১৯০৫২৫
পুরোন সংখ্যা