চাঁদপুর, বুধবার ২১ অক্টোবর ২০১৫ । ৬ কার্তিক ১৪২২ । ৭ মহররম ১৪৩৭
jibon dip

সর্বশেষ খবর :

  • --
ইদুর নিধন অভিযানে জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত মোহাম্মদ মনিরুজ্জামানের সাথে একান্ত আলাপন
সততা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করলে অভাবনীয় সাফল্য ও অসাধারণ স্বীকৃতি পাওয়া যায়
মুহাম্মদ আবদুর রহমান গাজী
২১ অক্টোবর, ২০১৫ ০০:০০:০০
প্রিন্টঅ-অ+


বর্তমান সরকারের অন্যতম প্রধান লক্ষ্য হলো কৃষক ও কৃষির উন্নয়ন। নানা প্রতিবন্ধকতা এড়িয়ে ফসল ঘরে তোলাই কৃষকের মূল লক্ষ্য। অথচ মাঠ থেকে শুরু করে গোলাঘর পর্যন্ত উৎপাদিত কৃষি পণ্যের একটা বিরাট অংশ নষ্ট হচ্ছে ইঁদুরের কারণে। ইঁদুর ক্ষতিকর প্রাণী। এরা মাঠের ফসলের একটা বিরাট অংশ খেয়ে ও কেটেকুটে নষ্ট করে ফেলে। এ প্রাণী দ্বারা ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়। শতকরা ৬০ জন মানুষ ক্ষতি হওয়ার পূর্বেই এদের দমনের প্রয়োজনীয়তা আছে বলে মনে করেন না। প্রতিনিয়তই কৃষকের কষ্টার্জিত ফসলকে ইঁদুর মারাত্মকভাবে ক্ষতি করছে। খাদ্যের প্রয়োজনে দেশে বর্তমানে এক ফসলের পরিবর্তে বহুবিধ ফসলের চাষাবাদ হচ্ছে। এর ফলে ইঁদুর সারা বছরই মাঠে খাদ্য পাচ্ছে। এ কারণেই ইঁদুরের সংখ্যাও উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে। হিসেবে দেখা যায় যে, প্রতি বছর ১২ থেকে ১৫ লাখ টন খাদ্যশষ্য কেবল ইঁদুরই নষ্ট করে থাকে।



ইঁদুর নিধন অভিযান একটি জাতীয় কর্মসূচি। এ কর্মসূচির প্রধান উদ্দেশ্য হলো বিষয় সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির পাশাপাশি সর্বস্তরের জনগণ তথা কৃষক-কৃষাণী, ছাত্র-ছাত্রী ও স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাসমূহের জনগণকে ইঁদুর দমনে উদ্বুদ্ধ করা। সরকারি এ কর্মসূচি বাস্তবায়নে আন্তরিক হয়েছিলেন চাঁদপুর সদর উপজেলার শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মোঃ মনিরুজ্জামান। তিনি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরে চাকুরি করছেন ১১ বছর। অর্পিত দায়িত্ব সততা ও নিষ্ঠার সাথে পালন করায় অর্জন করেছেন অভাবনীয় সাফল্য ও অসাধারণ স্বীকৃতি। গতকাল ২০ অক্টোবর মঙ্গলবার সকালে এ প্রতিনিধির কথা হয় মোহাম্মদ মনিরুজ্জামানের সাথে।



চাঁদপুর শহরের পৌর ৯নং ওয়ার্ডের প্রফেসরপাড়ার বাসিন্দা মরহুম আঃ হালিম মাস্টার ও মরহুমা মনোয়ারা বেগমের জ্যেষ্ঠ পুত্র মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান। তিনি দুই সন্তানের জনক। বড় কন্যা বাবুরহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী মাশনূর জামান ফারিহা (৯)ও ছোট কন্যা মাশিয়াত জামান ফায়িজার বয়স চার বছর। স্ত্রী সাদিকা বেগম আশিকাটি ইউনিয়নের লালপুর বস্নকের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা। তাঁর বিভিন্ন ভাবনা ও নানা বিষয় নিয়ে প্রশ্নোত্তর আকারে নিম্নে তা তুলে ধরা হলো:



চাঁদপুর কণ্ঠ : আপনি কেমন আছেন?



মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান : আল্হামদুলিল্লাহ, ভালো আছি।



চাঁদপুর কণ্ঠ : আপনি কত বছর যাবৎ চাকুরি করছেন?



মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান : আমি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরে ১১ বছর যাবৎ চাকুরি করছি। প্রথমে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায়, তারপর বিভিন্ন উপজেলা হয়ে বর্তমানে চাঁদপুর সদর উপজেলার কুমারডুগী বস্নকে কাজ করছি।



চাঁদপুর কণ্ঠ : আমরা জেনেছি আপনি জাতীয় পর্যায়ে ইঁদুর নিধনে একাধিক পুরস্কার পেয়েছেন। এ ব্যাপারে বিস্তারিত বলবেন কি?



মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান : আমি ১ লাখ ৯৩ হাজার ৮০৭টি ইঁদুর মারার সাফল্য অর্জন করেছি। কেবল মাত্র এই বছরই নয়, প্রতি বছর আমার কর্মকা- অব্যাহত থাকে। বিগত ১১ বছরের কর্মকা-ের বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে আঞ্চলিক ও জাতীয় পুরস্কার এবং স্বীকৃতি:



চাঁদপুর কণ্ঠ : আপনি কৃষির আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে উৎপাদন ও উন্নয়নে ব্যাপক অগ্রগতি দেখিয়েছেন, অর্জন করেছেন বিভিন্ন পুরস্কার ও স্বীকৃতি। তার জন্যে আপনার অনুভূতি সম্পর্কে কিছু বলুন?



মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান : পরিশ্রম একজন মানুষকে জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে সফলতা এনে দেয়। আসলে আমি যে রকম পরিশ্রম করেছি আল্লাহ আমাকে সে রকম দিয়েছেন। আজ আমার আর কিছু পাওয়ার নেই। আমি চাই মানুষের কল্যাণে ও কৃষক-কৃষাণীর সাথে একাকার হয়ে জাতীয় উন্নয়নে কাজ করতে।



চাঁদপুর কণ্ঠ : আপনার সুন্দর সাবলীল মতামত ব্যক্ত করার জন্যে কৃষি কণ্ঠের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ।



মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান : আমি যেনো আমার কর্মজীবনে সর্বাত্মক সফলভাবে কাজ করতে পারি সেই দোয়া কামনা করে আপনাকে ও চাঁদপুর কণ্ঠকে জানাই আন্তরিক ধন্যবাদ।



 


হেরার আলো
বাণী চিরন্তন
আল-হাদিস

২১-সূরা : আম্বিয়া

১১২ আয়াত, ৭ রুকু, মক্কী

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু  আল্লাাহ্র নামে শুরু করছি।



০৫। উহারা ইহাও বলে, ‘এই সমস্ত অলীক কল্পনা, হয় সে উহা উদ্ভাবন করিয়াছে, না হয় সে একজন কবি। অতএব সে আনয়ন করুক আমাদের নিকট এক নিদর্শন যেরূপ নির্দর্শনসহ প্রেরিত হইয়াছিল পূর্ববর্তীগণ।’

দয়া করে এই অংশটুকু হেফাজত করুন

 


শরীরের দুরন্ত অভিযানের সময় হচ্ছে যৌন, আর মনের অভিযান শুরু হয় বার্ধক্যের।

লোগন পিয়ারসাল।



 


মানবতার সেবায় যিনি নিজের জীবন নিঃশেষে বিলিয়ে দিতে পারেন, তিনিই মহামানব।

                 - হযরত মুহাম্মদ (সাঃ)

 


ফটো গ্যালারি
করোনা পরিস্থিতি
বাংলাদেশ বিশ্ব
আক্রান্ত ৪,৩৬,৬৮৪ ৫,৫৪,২৮,৫৯৬
সুস্থ ৩,৫২,৮৯৫ ৩,৮৫,৭৮,৭০৩
মৃত্যু ৬,২৫৪ ১৩,৩৩,৭৭৮
দেশ ২১৩
সূত্র: আইইডিসিআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
আজকের পাঠকসংখ্যা
৪১২৬৩০
পুরোন সংখ্যা